মুক্তমত

ডিআরইউ নির্বাচনে জাল ভোটের চেষ্টা, ধরা খেলেন কথিত সাংবাদিক

দেশ রিপোর্ট | ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) নির্বাচনে জাল ভোট দিতে গিয়ে ধরা পড়েছেন কথিত এক সাংবাদিক। ডিআরইউ’র সদস্য না হয়েও বুধবারের নির্বাচনে ভোট দিতে গিয়ে নির্বাচন কমিশনের দায়িত্বপ্রাপ্তদের কাছে ধরা পড়েন তিনি। কথিত ওই সাংবাদিকের নাম মো. জহিরুল হক বসির। নরসিংদী জেলার গাবতলী গ্রামের মো. সিরাজুল হকের ছেলে তিনি।

জাল ভোট দিতে গিয়ে বসির ধরা পড়ার পর নির্বাচন কমিশনের দায়িত্বপ্রাপ্তরা তাকে দীর্ঘক্ষণ আটকে রেখে জেরা করেন। পরে মুচলেকার বিনিময়ে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। জহিরুল হক বসিরের কাছ থেকে ২টি পরিচয়পত্র ও একটি ভিজিটিং কার্ড পাওয়া যায়। দুটি পরিচয়পত্রের একটিতে ‘প্রাইভেট ডিটেকটিভ’ নামে একটি অনলাইনের প্রধান সম্পাদক ও আরেকটিতে ‘দৈনিক আমার বার্তা’-এর সিনিয়র সাব-এডিটর এবং ভিজিটিং কার্ডে নিজেকে বাংলাদেশ টেলিভিশনের প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর হিসেবে দাবি করেন জহিরুল হক বসির। নির্বাচন কমিশনে থাকা দায়িত্বপ্রাপ্তদের কাছে তিনি মুচলেকা ও অঙ্গীকারনামায় বলেছেন, ‘আমি ডিআরইউ-এর সদস্য পরিচয় দিয়ে পছন্দের প্রার্থীর পক্ষে জাল ভোট দিতে গিয়ে ধরা পড়ি। এ ঘটনায় আমি লজ্জিত।

কারণ আমার এ কাজটি আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।’ এই ঘটনায় ডিআরইউ-এর সকল সদস্যের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করে তিনি অঙ্গীকার করেছেন, ‘আমি প্রতিজ্ঞা করছি, জীবনে কোনো দিন ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির চত্বরে আসব না।’


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন