অর্থনীতিসারাবিশ্ব

অর্থনীতির নোবেল পেলেন রিচার্ড এইচ থ্যালার

বিহেইভিয়ারাল ইকনমি নিয়ে গবেষণায় অবদান রাখায় ২০১৭’র অর্থনীতির নোবেল পেলেন মার্কিন অধ্যাপক রিচার্ড থ্যালার। সোমবার দ্য রয়্যাল সুইডিশ একাডেমি এই ঘোষণা করে। এরমাধ্যমে থ্যালার পাবেন পুরস্কারের ৯০ লাখ ক্রোনার। ইউনিভার্সিটি অফ শিকাগোর বিহেইভিয়ারাল সায়েন্স ও অর্থনীতির অধ্যাপক থ্যালার এই দুই ক্ষেত্রকে এক করে বিহেইভিয়ারাল ফিন্যান্স নামের নতুন একটি ক্ষেত্রের উদ্ভব করেন। ড্যানিয়েল কাহনেম্যানের মতো এই ক্ষেত্রের অন্যতম তাত্ত্বিকও তিনিই। বিহেইভিয়ারাল ফিন্যান্সের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ পাঠ্যপুস্তক ‘মিসবিহেইভিং : দ্য মেকিং অফ বিহেইভিয়ারাল ইকনমিকস’-এর রচয়িতাও থ্যালার।

নিজের তত্ত্বের মাধ্যমে অর্থনীতিবিদদের আবেগ নিয়ে কাজ করেন থ্যালার। বেশি কিছু তত্ত্বের মাধ্যমে তিনি প্রমাণ করেছেন ক্ষমতায় থাকা অর্থনীতিবিদদের আবেগ অনেক সময় বিশ্বের বড় বড় অর্থনৈতিক বাঁকবদলের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ৭২ বছর বয়সী এই অধ্যাপক কেইস ওয়েস্টার্ন রিজার্ভ ইউনিভার্সিটি থেকে স্নাতক হওয়ার পর ইউনিভার্সিটি অফ রচেস্টার থেকে স্নাতোকোত্তর এবং ডক্টোরেট ডিগ্রি লাভ করেন। শিকাগো ইউনিভার্সিতে যোগদানের আগে তিনি জনসন গ্র্যাজুয়েট স্কুল অফ ম্যানেজমেন্টেও শিক্ষাদান করেছেন। অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার মূল নোবেল পুরস্কারের অন্তর্ভুক্ত না হলেও এই কে।সত্রের সবচেয়ে বড় সম্মাননা হিসেবেই ধরা হয় এটিকে। ১৯৬৮ সালে সুইডেনের কেন্দ্রিয় ব্যাঙ্কের প্রচলিত এই পুরস্কারকে শুরুতে ডাকা হতো ‘সেভেরিগজ রিকসব্যাঙ্ক’  পুরস্কার নামে। পরবর্তীতে আলফ্রেড নোবেলের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এটিকে নোবেল মেমোরিয়াল পুরস্কার হিসেবে ঘোষণা দেওয়া হয়। তখন থেকেই সুইডিশ অ্যাকাডেমির অধীনে এই পুরস্কার ঘোষিত হয়ে আসছে।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন