সারাদেশ

বাঞ্ছারামপুর থানা এলাকা হতে ২১,৩০০ পিস ইয়াবা, ফেন্সিডিল, গাঁজা ও বিয়ার’সহ এক মহিলা মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‍্যাব-১৪, ভৈরব ক্যাম্প

আশরাফুল আলম।। কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি।।

ভৈরব র‍্যাব-১৪, সিপিসি-৩ ভৈরব গোপন ক্যাম্প সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, ব্রাক্ষ্মনবাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুর থানাধীন দরিয়াদৌলত ইউনিয়নের মরিচাকান্দি গ্রামের হোসেন মিয়ার বসত বাড়ীর একটি ঘরে কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে বিপুল পরিমান মাদকদ্রব্য অবৈধ ভাবে মজুদ করছে। উক্ত তথ্যের ভিত্তিতে র‍্যাব-১৪, সিপিসি-৩ ভৈরব ক্যাম্প এর কোম্পানী কমান্ডার মেজর শেখ নাজমুল আরেফিন পরাগ ও স্কোয়াড কমান্ডার এএসপি জুয়েল চাকমা এর নেতৃত্বে র‍্যাবের একটি চৌকস আভিযানিক দল ১৯ অক্টোবর ২০১৭ইং তারিখে রাত সাড়ে ১২ ঘটিকায় উক্ত স্থানে অভিযান পরিচালনা করে আসামী-১। মনোয়ারা বেগম (৬০), স্বামী- হোসেন মিয়া, সাং- মরিচা, থানা- বাঞ্ছারামপুর, জেলা- ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়া থেকে গ্রেফতার পূর্বক তার বসত বাড়ি তল্লাশী করে ২১,৩০০ পিস ইয়াবা, ০৭ বোতল বিয়ার, ৪৩ বোতল ফেন্সিডিল, ২ কেজি গাঁজা, মাদক বিক্রির ২৬,৮৬০ টাকা ও মাদকদ্রব্য ক্রয়-বিক্রয়ের কাজে ব্যবহৃত ০৯ টি মোবাইল সেট উদ্ধার করেন। এ সময়ে র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে ১। সবুজ মিয়া (৩০), পিতা- হোসেন মিয়া। ও ২। রুবেল মিয়া (২৬), পিতা- হোসেন মিয়া সর্ব সাং- মরিচা, থানা- বাঞ্ছারামপুর, জেলা- ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়া কৌশলে পালিয়ে যায়। উক্ত মাদকদ্রব্য সমূহের আনুমানিক মূল্য ৮৬ লক্ষ টাকা। ধৃত আসামী ও পলাতক আসামীদ্বয়ের বিরুদ্ধে ১৯৯০ (সংশোধনী ২০০৪)ইং সালের মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ১৯(১) টেবিল ৯(খ)/৩(খ)/৭(ক)/২২(গ)/২৫ ধারা মোতাবেক ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্ছারামপুর থানায় মামলা দায়েরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। একই সাথে পলাতক আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে বলে জানান ভৈরব র‍্যাব-১৪ ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার মেজর শেখ নাজমুল আরেফিন পরাগ।

 


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন