বিনোদন

আগামীকাল দেশ ও গ্রামের গল্প নিয়ে জায়েদ-পরীর ‘অন্তর জ্বালা’

বিনোদন ডেস্ক : ডিসেম্বরে মাস আসতে না আসতেই মুক্তি পেয়েছে দুই ছবি। অপেক্ষায় আছে আরো কয়েকটি। যার মধ্যে রয়েছে মালেক আফসারী নির্মিত ‘অন্তর জ্বালা’। ছবিটি শুরু থেকেই বেশ আলোচনায় ছিল। যার কয়েকটি কারণের মধ্যে রয়েছে অনেকদিন পর পর্দায় মালেক আফসারীর চলচ্চিত্র।

অন্যদিকে জায়েদ খানের নতুন লুকও বেশ আলোচনায়। পাশাপাশি পরীমনি তো রয়েছেই। এরইমধ্যে ছবিটির ট্রেলর প্রশংসিত হয়েছে।আগামী কাল ১৫ ডিসেম্বর মুক্তি পাচ্ছে মালেক আফসারি পরিচালিত ছবি ‘অন্তর জ্বালা’।১৭৫ হলে মুক্তির বিরল রেকর্ড গড়বে অন্তর জ্বালা।

পরী বলেন, এই ছবিটি নিয়ে ছবির সংশ্লিষ্টসহ দর্শকরাও বেশ আশাবাদী। ছবিটি মুক্তির আগেই দর্শকদের ভালো সাড়া পাচ্ছি। ছবির গল্পের পাশাপাশি গানের বিষয়ে আমি মুগ্ধ।

তিনি আরও বলেন, আগে আমার যতগুলো সিনেমা মুক্তি পেয়েছে কেউ বলতে পারবে না ওইসব সিনেমা মুক্তির আগে আমি এমন কথা বলেছি। এই সিনেমার গল্পটাই অন্যরকম। এবার আমার আত্মবিশ্বাস রয়েছে। তাছাড়া অন্তর জ্বালার নির্মাতা মাস্টার মেকার মালেক আফসারী। তার কোনো তুলনা হয় না।

পরী বলেন, সবাইকে অনুরোধ করবো হলে এসে ছবিটি দেখবেন। আমাদের বাংলা ছবি দেখুন। ভালো বা খারাপ প্রতিক্রিয়া দিন। কারণ সমালোচনা ছাড়া কাজের ভুলগুলো বের করা সম্ভব নয়। আর আমি সবসময় ভালো ভালো বাংলা ছবি নিয়ে আপনাদের সামনে আসতে চাই।

জায়েদ খান বলেন, আমার জীবনের সেরা ছবি অন্তর্জ্বালা। এ যাবত কালে আমি যতোগুলো মুভি করেছি। তার মধ্যে এই ছবিটি অন্যতম। এটি আমার নিজেকে ভাঙ্গার ছবি। এর আগের ছবিগুলোতে দর্শক নায়ক জায়েদ খানকে দেখেছে। এবার দেখবে অভিনেতা জায়েদ খানকে। আর এটা কোনো নায়ক বা নায়িকার মুভি না। এটা হলো পরিচালকের মুভি। এই ছবি মালেক আফসারীর মুভি। তিনি ছবির জন্য জায়েদ খানকে একেবারে ভেঙ্গে দিয়েছেন, গড়ে তুলেছেন অন্যরকমভাবে। তার কাছ থেকে অভিনয় বের করে নিয়েছেন। আমি বলবো এর সব কৃতিত্ব মালেক আফসারীর। তিনিই আামকে ছবির উপযোগী করে তৈরি করেছেন।

জায়েদ খান আরও বলেন, এই চলচ্চিত্রে একজন দর্শক নিজেকে খুঁজে পাবে। আমরা এই শহরে বা মফস্বলে যেখানেই থাকি না কেন আমাদের জীবনে কিছু না কিছু স্মৃতি আছে। শিশুকাল বা শৈশবের স্মৃতি আছে। এই ছবি মানুষের সেই স্মৃতিকে নাড়া দিবে। সে ছবির মধ্যে নিজেকে খুঁজে পাবে। সে তার অতীতকে দেখতে পাবে। আর একটি বিষয় বলবো সেটা হলো এই ছবিতে মানুষ নায়ক মান্না ভাইকে খুঁজে পাবে।

তিনি আরও বলেন, আমি শুধু এটুকুই বলতে চাই, ‘অন্তর জ্বালা’ দেখে মানুষকে কাঁদতে হবে। আমিও অভিনয় করতে গিয়ে কেঁদেছি। আমি বিশ্বাস করি ‘অন্তর জ্বালা’ দেখে মানুষের অশ্রু ঝরবে। একজন মানুষ ছোটবেলা থেকে যেভাবে বড় হয়েছে ছবিতে সেটাই দেখানো হবে। এটি একদম মাটি ও মানুষের গল্প। বলতে পারি গ্রামের গল্প এককথায় দেশের গল্প। এখন ছবিটা কেমন হবে সেটা দর্শক বলতে পারবে।

‘অন্তর জ্বালা’ সিনেমাটি পরিবেশনা করছে প্রয়াত মান্নার পরিবেশনা-প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান কৃতাঞ্জলি চলচ্চিত্র।জায়েদ খান ও পরী ছাড়াও অভিনয় করেছেন জয় চৌধুরী, মৌমিতা মৌ, অমিত হাসান, প্রয়াত মিজু আহমেদ, সাঙ্কু পাঞ্জা, রেহেনা জলী, বড়দা মিঠু ও চিকন আলী।

 

দেশ রিপোর্ট / আর


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন