সারাদেশ

কিশোরগঞ্জ ভৈরবে মিথ্যা ও হয়রানিমূলক মামলায় ফেঁসে গেলেন স্থানীয় সাংবাদিক।

উপরের ৩টি ছবিতেই দেখা যাচ্ছে সোমবার দিন সাংবাদিক আলহাজ্ব সজীব তার সাংবাদিকতার পেশাগত দায়িত্ব পালন করছেন।

আশরাফুল আলম।।

সাংবাদিকতা একটি মহান পেশা। সেই মহান পেশার দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে মিথ্যে মামলায় ফেঁসে গেলেন স্থানীয় ভৈরব প্রতিনিধি এশিয়ান টিভি ও নয়াদিগন্ত এর আলহাজ্ব সজীব আহমেদ। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, তিনি গত সোমবার বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার গাড়িবহর ভৈরব অতিক্রম করার সময় সংবাদ সংগ্রহ করতে ঘটনাস্হলে এশিয়ান টিভির ক্যামেরা নিয়ে আলহাজ্ব সজীব আহমেদ সাংবাদিকতার পেশাগত দায়িত্বরত ছিলেন। কিন্তু একদিন পরেই বিভিন্ন সূত্রে জানা যায় কোন অজানা রাজনৈতিক কারণে মিথ্যে মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়া হয়েছে বিভিন্ন গুঞ্জন উঠেছে। এমন কি সোমবার ঘটাস্হলে জৈনিক সাংবাদিকের ছবিতে উঠে আসে সাংবাদিক আলহাজ্ব সজীব আহমেদ নিজ সাংবাদিকতার পেশার দায়িত্ব পালনে ব্যস্ত। আলহাজ্ব সজীব আহমেদ এর সাথে ভৈরবে আরেক সাংবাদিক সোহেলুর রহমানের বিরুদ্ধেও মিথ্যে হয়রানি মূলক মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঘটনাস্থলে থাকা একাধিক সাংবাদিক অভিমত দিয়েছেন। কিন্তু তারাও মিথ্যে মামলার ভয়ে প্রকাশ্যে এই বিষয়ে কথা বলতে বিশেষ অনিহা প্রকাশ করছেন। উল্লেখ্য যে,
পুলিশের কর্তব্যকাজে বাঁধা দেয়ার অভিযোগ এনে ভৈরবের দুই সাংবাদিক সহ ৪৫ জনের নাম উল্লেখ করে বিএনপির ৯০০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশ। সোববার বিএনপি চেয়ারর্পাসন বেগম খালেদা জিয়া সিলেট যাওয়ার পথে নেতাকর্মীরা খালেদা জিয়াকে অভ্যর্থনা জানাতে এসে পুলিশি বাঁধার মুখে পড়ে। এসময় পুলিশ নেতাকর্মীদের উপর কাদুনিগ্যাস ও লাঠিচার্জ করলে পুলিশের উপর নেতাকর্মীরা ক্ষিপ্ত হয়ে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। এসময় পুলিশের কিছু সদস্য আহত হয়। অপরদিকে পুলিশের লাঠিচার্জে বিএনপির বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীও আহত হয়। এঘটনায় ভৈরব থানার জৈনক উপ পরিদর্শক বাদী হয়ে কিশোরগঞ্জ জেলা বিএনপি সাধারণ সম্পাদক মো: মাজাহারুল ইসলাম, ভৈরব উপজেলা বিএনপি সভাপতি মো: রফিকুল ইসলাম’সহ ৪৫ নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ৮৫৫ নেতাকর্মীকে আসামী করে মোট ৯০০ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে পুলিশ।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন