বিনোদন

শেষ হলো শাকিব-অপুর সংসার

নাটকীয়তার পরও আটকানো গেল না শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের বিবাহবিচ্ছেদ। পূর্বনির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী ডিভোর্সের তৃতীয় ও শেষ শুনানিতে গতকাল শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস অংশ না নেয়ায় আইন অনুযায়ী বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছে এ দম্পতির।

বিধিবদ্ধ সময়সীমা ৯০ দিন উত্তীর্ণ হওয়ায় সালিশ মামলাটি নিষ্পন্ন হয়েছে এবং গতকালই তাদের তালাক কার্যকর হয়েছে— এ মর্মে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন অঞ্চল ৩-এর নির্বাহী কর্মকর্তা হেমায়েত হোসেন। তিনি বলেন, ‘শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের তালাক বিষয়ে তৃতীয় ও শেষ শুনানি ছিল আজ (গতকাল)। আপস-মীমাংসার জন্য তাদের ডাকা হয়েছিল। যদিও এর আগে একাধিক দফায় তাদের ডাকা হয়। এতে অপু একবার উপস্থিত হলেও অন্য দুটি তারিখে আসেননি। অন্যদিকে শাকিব খান কোনো তারিখেই উপস্থিত হননি।’ এ কর্মকর্তা জানান, ১২ জানুয়ারি উপস্থিত হয়ে অপু সংসার করার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করলেও শাকিব খান এতে সাড়া দেননি।

গত বছরের ২২ নভেম্বর শাকিব খান তার আইনজীবী শেখ সিরাজুল ইসলামের মাধ্যমে অপু বিশ্বাসের কাছে তালাকের নোটিস পাঠান। একই সঙ্গে তিনি শাকিব খানের পক্ষে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র কার্যালয়, অপু বিশ্বাসের ঢাকার নিকেতনের বাসা এবং বগুড়ার ঠিকানায়ও তালাকের নোটিস পাঠান। এরপর অপু বিশ্বাস গত ১২ ডিসেম্বর এ চিঠি হাতে পান। তালাকের নোটিসের চিঠি হাতে পাওয়ার পর গত ১২ জানুয়ারি ডিএনসিসি প্রথম সালিশি বৈঠকের আয়োজন করে।

উল্লেখ্য, ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল গোপনে বিয়ে করেন বাংলাদেশী ছবির জুটি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। ২০১৬ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর জন্ম নেয় তাদের সন্তান আব্রাম খান জয়। এর পর গত বছর ১০ এপ্রিলে একটি টিভি চ্যানেলের সরাসরি অনুষ্ঠানে এসে বিয়ে ও সন্তানের খবর ফাঁস করেন অপু বিশ্বাস।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন