খেলাপ্রধান সংবাদ

আইপিএলের বিদেশি অলরাউন্ডারদের মধ্যে সাকিবই কি সেরা?

প্রতি বছর ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) শুরু হওয়ার আগে ‘তারকা’দের নিয়ে কতো আলোচনা। তারকা ব্যাটসম্যান, বোলার এবং অলরাউন্ডারদের নিয়ে কতো আগ্রহ। কিন্তু আলোচিতদের সবাই কি আর মাঠে প্রত্যাশা মতো পারফরর্ম করতে পারেন! দেখা যায়, আলোচিত কিছু তারকা চরম ফ্লপ, আবার আলোচনার বাইরে থেকে কেউ এসে নজরকাড়া পারফরম্যান্স দেখিয়ে যান।

সাকিব আল হাসানের ক্ষেত্রে এবার হয়তো দ্বিতীয়টিই হচ্ছে। গত বছর কলকাতার হয়ে মাত্র একটা ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি। ফলে নিলাম টেবিলে তাকে নিয়ে তেমন কোনো আগ্রহ ছিলো না। দুই কোটি রুপিতে চুপিচুপি তাকে কিনে নিয়েছিল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। সেই সাকিবই এখন নিয়মিত আলো ছড়াচ্ছেন মাঠে।

আইপিএল খেলতে থাকা বিদেশি অলরাউন্ডারদের মধ্যে সাকিবই সেরা কিনা, উঠে যাচ্ছে এমন প্রশ্নও। বিদেশি তারকা অলরাউন্ডারদের মধ্যে বেন স্টোকস, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, ক্রিস ওকস, ক্রিস মরিচ, ডোয়াইন ব্রাভোরা পারফরম্যান্সের দিক দিয়ে সাকিবের অনেক নিচে। ব্যাটিংয়ের দিক দিয়ে শেন ওয়াটসন, আন্দ্রে রাসেল, সাকিবের চেয়ে অনেকটা এগিয়ে আছেন কিন্তু বল হাতে ধারে কাছেও নেই।

হায়দরবাদের হয়ে এখন পর্যন্ত ১১ ম্যাচ খেলে ১২ উইকেট দখল করেছেন সাকিব। বাংলাদেশি অলরাউন্ডার ওভারপ্রতি রান খরচ করেছেন ৭.৪৭, গড় ২৪.৯১। ব্যাট হাতে ৮ ইনিংস ব্যাট করে রান করেছেন ১৫৮। গড় ২২.৫৭, স্ট্রাইকরেট ১১৭.০৩।

রেকর্ড সাড়ে বারো কোটি রুপিতে বিক্রি হওয়া বেন স্টোকস ব্যাট হাতে ১০ ম্যাচের ১০টিতেই ব্যাট করে রান করেছেন ১৭৪। গড় ১৭.৪০। নয় মাচেই হাত ঘুরিয়ে মাত্র ৩টি উইকেট দখল করতে পেরেছেন ইংলিশ অলরাউন্ডার। ক্রিস ওকস পাঁচ ম্যাচ খেলে ৮ উইকেট তুলে নিলেও রান দিয়েছেন ওভারপ্রতি ১০.৩৬। ব্যাট হাতে রান করেছেন মাত্র ১৭! পরে আর সেরা একাদশে সুযোগই পাননি।

নয় কোটি রুপিতে বিক্রি হওয়া ক্রিস মরিচ চার ম্যাচ খেলে উইকেট পেয়েছেন মাত্র ২টি। রান করতে পেরেছেন ৪৪। চার ম্যাচ পর দিল্লির একাদশে সুযোগই মিলেনি দক্ষিণ আফ্রিকান অলরাউন্ডারের। নয় কোটি রুপিতে বিক্রি হওয়া অস্ট্রেলিয়ান তারকা গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ১০ ম্যাচের দশটিতেই ব্যাট করে রান করেছেন ১৪২। গড় মাত্র ১৪.২০। আর বল হাতে উইকেট দখল করেছেন মাত্র ৫টি।

ক্যারিবিয়ান তারকা ডোয়াইন ব্রাভো এক ম্যাচে ৬৮ রাান করলেও দশ ম্যাচ শেষে তার মোট রান ১৩২। বল হাতে দখল করেছেন ৭ উইকেট, কিন্তু রান দিয়েছেন ওভারপ্রতি ১০.১৪ করে, গড় ৪৩! সাড়ে আট কোটি রুপির আন্দ্রে রাসেল ১১ ম্যাচে সাত উইকেট তুলে নিয়েছেন। কিন্তু প্রতি ওভার রান খরচ করেছেন ১০.০২ করে। অবশ্য ব্যাটিংয়ে অনেকটা এগিয়ে আছেন ক্যারিবিয়ান তারকা। এগারো ম্যাচে রান করেছেন ২১৮।

শেন ওয়াটসন ব্যাটিংয়ে আরও এগিয়ে আছেন। ১০ ম্যাচে ৩৩২ রান করেছেন অস্ট্রেলিয়ান তারকা। কিন্তু বল হাতে সফল হতে পারেননি। দশ ম্যাচে উইকেট শিকার করেছেন ছয়টি। ওভারপ্রতি রান খরচ করেছেন ৯.০৮ করে।

রানের দিক দিয়ে ওয়াটসন, রাসেলরা সাকিবের চেয়ে অনেক এগিয়ে। তবে বোলিংয়ে ধারে কাছেও নেই। তা ছাড়া রাসেল-ওয়াটসন-স্টোকসদের পেছনে যতো অর্থ খরচ করেছে তাদের ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো এবং তাদের ক্ষেত্রে যতো প্রত্যাশা সে হিসেবে সাকিবকে কেউ কেউ হয়তো এখন পর্যন্ত সেরা বিদেশি অলরাউন্ডার বলেও দিবেন।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন