আজব দুনিয়া

এখনো পায়রা’র ব্যবহার, হইচই ফেলে দিয়েছে পুলিশ!

প্রযুক্তি আমাদের জীবনকে কতটা সহজ করেছে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। কিন্তু যখন প্রযুক্তি এতটা সহজলভ্য ছিল না তখন খবরাখবর আদান প্রদান করতে ব্যবহৃত হতো শান্তির দূত ‘পায়রা’। তবে বর্তমান সময়েও তথ্য আদান-প্রদান করতে পায়রা ব্যবহার করে হইচই ফেলে দিয়েছে ভারতের পুলিশ।

প্রযুক্তিগত এত সুযোগ সুবিধার এই সময়ে ‘পুলিশ পিজিয়ন সার্ভিস’ নামের একটি আলাদা পরিসেবা দিচ্ছে ভারতের ওড়িষা পুলিশ সার্ভিস ডিপার্টমেন্ট। আদিকালের রেওয়াজ বাঁচিয়ে রাখতেই নাকি তাদের এ উদ্যোগ জানালো ওড়িষা পুলিশ।

১৯৭০ সালে ২০০ টি পায়রা নিয়ে ওড়িষা পুলিশের এই সার্ভিসটির যাত্রা শুরু হয়। এই সেবাটি দেশের সবচেয়ে পুরনো সেবা হলেও দিব্যি টিকে আছে এখনো এবং সফলতার সাথে কাজও করছে। ১৯৯৯ সালের সাইক্লোন এর সময় রেডিও ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়লে এই পায়রা পরিসেবায় জরুরি বার্তা আদান প্রদান চলতো।

ভারতের কটাক থেকে ভুবনেশ্বরে বার্তা পাঠানোর মাধ্যমে সম্প্রতি একটি পরীক্ষা চালান ওড়িষা পুলিশ। এক্ষেত্রে পঞ্চাশটি পায়রার প্রতিটির পায়ে চিঠি বেঁধে দেন তারা। এতে দেখা যায় পায়রাগুলো ২৪ কি.মি. রাস্তা তারা পার হয় মাত্র বিশ মিনিটেরও কম সময়ে। পুলিশ বলছে, ৭০ বছরের পুরনো ধারাটি ধরে রাখতেই এমন আয়োজন করেছে তারা।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন