তথ্য প্রযুক্তিপ্রধান সংবাদ

শতাধিক সরকারি সেবা এখন অনলাইনে: জুনাইদ আহমেদ পলক

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, ‘২০০৮ সালে মাত্র দুই-তিন ধরণের সেবা অনলাইনে গ্রহণ করা যেত কিন্তু বিগত সময়ে আমরা শতাধিক সরকারি সেবাকে অনলাইনে সহজলভ্য করেছি। প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের নির্দেশনা ও তত্ত্বাবধানে আমরা ২০২১ সালের মধ্যেই ৯০ শতাংশ সেবা অনলাইনে সহজলভ্য করতে কাজ করে চলেছি।’
মঙ্গলবার দুপুরে এস্তোনিয়ার রাজধানী তাল্লিনে ‘হাউ টু ম্যানেজ ডিজিটাল সিটিজেন সেন্ট্রিক ই-গভর্নেন্স?’ শীর্ষক প্যানেল আলেচনায় এক প্রশ্নের জবাবে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, আমরা দেশের ৩ ধরণের জনগণকে টার্গেট করেই ই-গভ সেবা বিস্তৃত করছি। যেমন ডিজিটাল নেটিভস-যারা ইন্টারনেট যুগেই জন্মগ্রহণ করেছে এবং বেড়ে উঠছে; ডিজিটাল এডাপ্টারস- ক্রমাগতভাবে যারা নিজেদেরকে ইন্টারনেট ব্যবহারে সম্পৃক্ত করছে; আর ডিজিটাল আউলেয়ার্স – যারা ইন্টারনেট ব্যবহার করে না এবং ব্যবহার করতেও ইচ্ছুক নয়।
প্রতিমন্ত্রী বলেন, এই ডিজিটাল আউটলেয়ার্সদের ইন্টারনেট সেবায় নিয়ে আসাটাই বড় চ্যালেঞ্জ। সেই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় আমরা সারাদেশে পাঁচ সহস্রাধিক ডিজিটাল সেন্টার স্থাপন করেছি। এখন তাদেরকে এ সকল ডিজিটাল সেন্টারে এসে ই-গভ সেবা গ্রহণে আমরা উদ্বুদ্ধ করছি। এ ছাড়াও, আমরা প্রান্তিক পর্যায়ে ব্রডব্যান্ড সংযোগ বিস্তৃত করছি এবং জনগণের প্রয়োজনীয় সেবাগুলোকে অনলাইনে নিয়ে আসতে আমরা নিরলসভাবে কাজ করে চলেছি।
পলক বলেন, স্বল্প সময়ে, কম খরচে এবং বারবার সরকারি অফিসে জনগণকে যাতে বারবার ধর্ণা না দিতে হয়, সে বিষয়গুলো মাথায় রেখে আমরা ই-গভর্নেন্স পরিকল্পনা করেছি। ফলে, সরকারের সকল মন্ত্রণালয়, বিভাগ, সংস্থা জনগণের জন্য আলাদা আলাদা অনলাইন সেবা চালু করে। প্রাথমিকভাবে সে সকল সেবা প্রদানে সমন্বয় ছিল না বললেই চলে।
কনফারেন্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এস্তোনিয়ার প্রেসিডেন্ট কার্সটি কালজুলেইদ বলেন, বর্তমানে বিশ্বের ৪ বিলিয়নেরও অধিক মানুষ অনলাইনের সাথে সংযুক্ত এবং মানুষ এখন গড়ে ৬ ঘন্টারও অধিক সময় অনলাইনে ব্যয় করে। সেজন্য জনগণকে আমরা ডিজিটাল সিটিজেন হিসেবে গণ্য করছি এবং অনলাইনেই তাদেরকে সকল ধরণের সরকারি সেবা দেয়ার মাধ্যমে কার্যকরভাবে ই-গভর্নন্সে নিশ্চিত করতে বিশ্ববাসীর একযোগে কাজ করতে হবে।
দুই দিনব্যাপী সম্মেলনের উদ্বোধনী সেশনের প্যানেল আলোচনায় সেন্ট লুসিয়ার প্রধানমন্ত্রী এলেন চ্যাস্টনেট, স্মার্ট কাতালোনিয়া, স্পেনের পরিচালক ডেনিয়েল মার্কো অংশ নেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ইজিএ (এস্তোনিয়ান গভর্নমেন্ট একাডেমি)-এর প্রোগ্রাম ডিরেক্টর অব স্মার্ট গভর্নমেন্ট লিনার ভিক।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন