খেলা

বিশ্বকাপের মঞ্চে চেরিশেভের অনন্য রেকর্ড

জাতীয়দলের জার্সি পরেছেন ২০১২ সালে। কিন্তু গত ৬ বছরে কোনো গোল করতে পারেননি দলের হয়ে। সব জমিয়ে রেখেছেন রাশিয়া বিশ্বকাপের আসরটির জন্য। নিজ দেশে বিশ্বকাপ বলে কথা! বলছি ডেনিস চেরিশেভের কথা। গত ৬ বছরে যার বুট কথা বলেনি, সেই বুটের মালিক চেরিশেভ বনে গেছেন রাশিয়া বিশ্বকাপের উদ্ভোধনী ম্যাচের নায়ক।এক কথায় সৌদি বধের নায়ক ডেনিস চেরিশেভ। পরিবর্তিত খেলোয়াড় হয়ে মাঠে নেমেই ৪৩ মিনিটের মাথায় করেন নিজের ক্যারিয়ারের প্রথম গোল।অনেকটা গত বিশ্বাকাপের ফাইনালে জার্মান খেলোয়াড় মারিও গোটজের মত। তার মতই ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে গেলেন চেরিশেভ।

১৪৫ মিলিয়ন জনসংখ্যার দেশ রাশিয়াকে ৯০ মিনিটের লড়াইয়ে চমকই দেখিয়েছেন চেরিশেভ। তিনি শুধু ক্যারিয়ারের প্রথম গোল করেননি, পরিবর্তিত খেলোয়াড় হিসেবে নেমে বিশ্বকাপের উদ্ভোধনী ম্যাচে প্রথম গোলটির করেছেন নিজের নামে। ২০টি বিশ্বকাপে যা ঘটেনি তা করে দেখালেন ২১ তম বিশ্বকাপে।না চেরিশভের ভেলকি এখানেই শেষ নয়। ম্যাচের নির্ধারিত সময় ৯০ মিনিট শেষ। অতিরিক্ত সময় পাওয়া গেল চার মিনিট। প্রথম মিনিটেই আবার চেরিশিভের গোল, রাশিয়া এগিয়ে গেল ৩-০ গোলে।

দীর্ঘ ৬ বছরের ক্যারিয়ারে গোল না পাওয়ার ক্ষোভ, হতাশাটা নিমিষেই কেটে যাওয়া কথা চেরিশেভের। জমানো ক্ষোভ যেন উগড়ে দিলেন বিশ্বকাপের মঞ্চে। তবে তার ক্ষোভ-হতাশা থাকার পেছনে আছে বড় কারণও। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে খেলেন ২০১২-১৬ পর্যন্ত। খেলেন বললে রিয়ালের হয়ে কাটিয়েছেন সাইড বেঞ্চে বসে। রিয়ালে থাকাকালীন ধারে দুই মৌসুম খেলেছেন সেভিয়া আর ভিয়া রিয়ালের হয়ে। ক্লাব ক্যারিয়ারেও থিতু হতে পারেননি কোথাও।

২০১৬ সালে ধারে ভ্যালেন্সিয়ার হয়ে খেলেছিলেন ৭ ম্যাচ। করেছেন ৩ গোল। এরপর আবার চলে যান আগের দল ভিয়া-রিয়ালে। এখনও খেলছেন সেখানেই।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন