খেলাপ্রধান সংবাদ

লড়াই করেও হোয়াইটওয়াশের লজ্জাই পেতে হলো বাংলাদেশকে

নিজস্ব প্রতিবেদক: ১৪৬ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে ৫৩ রানে ৪ উইকেটে হারিয়ে চরম বিপর্যয়ে পড়ে যাওয়া বাংলাদেশ দলকে খেলায় ফেরান মুশফিকুর রহিম এবং মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

পঞ্চম উইকেটে মুশফিক-রিয়াদের গড়া ৮৪ রানের জুটিতে খেলায় ফেরে বাংলাদেশ। জয়ের জন্য শেষ ১২ বলে বাংলাদেশের প্রয়োজন ছিল ৩০ রান। ১৯তম ওভারে পরপর পাঁচ বলে পাঁচটি বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ২১ রান আদায় করে জয়ের পথ সহজ করেন মুশফিকুর রহিম।

শেষ ওভারে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল মাত্র ৯ রান। ২০তম ওভারের প্রথম বলে রশিদ খানের বলে ক্যাচ তুলে বিদায় নেন মুশফিক। তার বিদায়ে দুশ্চিন্তায় পড়ে যায় বাংলাদেশ। জয়ের জন্য ওভারের শেষ বলে প্রয়োজন ছিল ৪ রান।

স্টাইকে থাকা আরিফুল হক ছক্কার জন্য চেষ্টা করেও বল মাঠের বাইরে নিতে পারেননি। লংঅনে ফিল্ডিং করা শফিকুল্লাহ নিশ্চিত ছয় হওয়া বলটিকে অসাধারন নৈপূণ্যে বলটিকে ছয় হওয়া থেকে ফিরিয়ে দেন, তখন দৌড়ে দুই রানের বেশি নিতে পারেননি রিয়াদ-আরিফুলরা।

অসাধারণ খেলেও মাত্র ১ রানের জন্য পরাজয় বরণ করতে হয় মুশফিক-রিয়াদদের।

সামিউল্লাহর অসাধারণ ক্যাচ, সাজঘরে সাকিব

এক বল আগেই করিম জানাতকে স্কয়ার লেগের ওপর দিয়ে ছক্কা হাঁকান সাকিব আল হাসান। নবম ওভারের তৃতীয় বলটিকে এক্সটা কাভারের ওপর দিয়ে বাউন্ডারি হাঁকাতে চেষ্টা করেন বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডার। কিন্তু সেখানে ফিল্ডিং করে যাওয়া সামিউল্লাহ সেনোয়ারি নিজের শরীরকে হাওয়ায় ভাসিয়ে ক্যাচটি লুফে নেন। সাকিবের বিদায়ে আরও বিপদে পড়ে যায় বাংলাদেশ দল।

পাওয়ার প্লেতে নেই টপঅর্ডার ৩ ব্যাটসম্যানের উইকেট

আফগানিস্তানের বিপক্ষে হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর ম্যাচেও ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। ১৪৬ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে ৫.৫ ওভারে স্কোর বোর্ডে ৩৫ রান জমা করতেই ফিরে গেছেন তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার ও লিটন কুমার দাস।

একই কায়দায় রান আউট সৌম্য

লিটনের বিদায়ের দু্ই বল ব্যবধানে রান আউটের ফাঁদে পড়েন সৌম্য সরকার। পঞ্চম ওভারে মুজিব-উর-রহমানকে এক ছয় এবং চার হাঁকিয়ে ১৩ রান আদায় করা সৌম্য ঠিক পরের ওভারে ফেরেন রান আউট হয়ে।

রান আউট লিটন

ইয়েস নো, ইয়েস নোর ফাঁদে পড়ে রান আউট হন লিটন ‍কুমার। সৌম সরকারের সঙ্গে রান নেবেন কি নেবেন না এমন দোদুল্যমান অবস্থায় পড়ে রান আউট হয়ে ফেরেন লিটন কুমার দাস

দ্রুত ফিরে গেলেন তামিম

আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম খেলায় প্রথম বলেই সাজঘরে ফেরেন তামিম ইকবাল। দ্বিতীয় ম্যাচে লম্বা সময় উইকটে থেকে করেছেন ৪৮ বলে ৪৪ রান। আর বৃহস্পতিবার শেষ ম্যাচে দায়িত্বশীল ব্যাটিং করতে পারেননি দেশসেরা এ ওপেনার। এদিনও প্রথম ম্যাচের মতো দ্রুত আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন তামিম। মুজিব-উর রহমানের বলে এক্সটা কাভারে ক্যাচ তুলেন তিনি।

আফগানিস্তান সংক্ষিপ্ত স্কোর: ২০ ওভারে ১৪৫/৬ রান

সিরিজের তৃতীয় এবং শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচে আগে ব্যাট করে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৪৫ রান সংগ্রহ করেছে আফগানিস্তান। বাংলাদেশ দলের হয়ে দুটি করে উইকেট নেন আবু জায়েদ রাহী ও নাজমুল ইসলাম অপু।

রাহীর দ্বিতীয় শিকার নবী

উসমান গনির পর আফগানিস্তানের অলরাউন্ডার মোহাম্মদ নবীকেও সাজঘরে পাঠান আবু জায়েদ। আগের ম্যাচে মাত্র ১৫ বলে ৩১ রান করা আফগান মারমুখী ব্যাটসম্যানকে এদিন ৩ রানের বেশি করতে দেননি আবু জায়েদ। দলীয় ১৪.১ ওভারে চতুর্থ উইকেট হারায় আফগানিস্তান।

আরিফুলের প্রথম বোলিং প্রথম উইকেট

সর্বশেষ বিপিএলের আবিষ্কার আরিফুল হক। বিপিএলে অসাধারণ খেলায় জাতীয় দলে সুযোগ হয় তার। কিন্তু ঘরোয়া ক্রিকেটের পারফরম্যান্সের ধারাবাহিকতা আন্তর্জাতিকে অব্যাহত রাখতে পারেননি আরিফুল। বৃহস্পতিবারের আগে জাতীয় দলের হয়ে দুটি মাত্র আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলার সুযোগ হয় তার। বোলিংয়ের সুযোগ না পেলেও ব্যাট হাতে সুযোগ পেয়ে করেছেন মাত্র ৩ রান।

নিজের তৃতীয় আন্তর্জাতিক ম্যাচে বৃহস্পতিবার বোলিংয়ের সুযোগ পেয়ে সাফল্য ফেলেন রংপুরের এই অলরাউন্ডার। প্রথম চার বলের দুটিতে ছক্কা হজম করার পর পঞ্চম বলে আফগান অধিনায়ক আসগর স্টানিকেজাইয়ের উইকেট তুলে নেন আরিফুল। লংঅনের উপর দিয়ে ছক্কা হাঁকাতে গিয়ে বদলি ফিল্ডার সাব্বির রহমান রুম্মনের হাতে ধরা পরেন আসগর।

বোলিংয়ে এসেই সফল আবু জায়েদ

নাজমুল অপুর পর আফগান শিবিরে দ্বিতীয় আঘাত হানেন আবু জায়েদ রাহী। নবম ওভারে বোলিংয়ে এসেই আফগানিস্তানের অন্য ওপেনার উসমান গনিকে সাজঘরে পাঠান রাহী। জায়েদের শর্ট বলে পুল করতে গিয়ে বিভ্রান্ত হন উসমান গনি। তার গ্ল্যাভসে লেগে বলটি গিয়ে জমা পড়ে উইকেটকিপার মুশফিকুর রহিমের হাতে। প্যাভেলিয়নে ফেরার আগে ২৬ বলে ১৯ রান করেন গনি।

নাজমুলের ব্রেক থ্রু

বাংলাদেশকে ব্রেক থ্রু এনে দিলেন নাজমুল ইসলাম অপু। অবশ্য তার আগেই উদ্বোধনীতে ৭.৪ ওভারে ৫৫ রানের জুটি গড়েন মোহাম্মদ শাহজাদ ও উসমান গনি।

অপুর স্পিনের শিকার হওয়ার আগে ২২ বলে ৩ চার ও ১ ছক্কায় ২৬ রান করে ফেরেন আফগানিস্তান সেরা ওপেনার শাহজাদ।

বাংলাদেশের তিন পরিবর্তন

হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর ম্যাচে তিন পরিবর্তন এনেছেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। তৃতীয় টি-টোয়েন্টির দল থেকে বাদ পড়েছেন সাব্বির রহমান রুম্মন, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ও পেস বোলার রুবেল হোসেন। তাদের পরিবর্তে খেলানো হচ্ছে মেহেদী হাসান মিরাজ, আরিফুল হক ও পেস বোলার আবু জায়েদ রাহীকে।

আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের তৃতীয় এবং শেষ টি-টোয়েন্টিতে টস হেরে ফিল্ডিংয়ে সাকিব আল হাসানের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।

ভারতের দেরাদুনের রাজীব গান্ধী আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে খেলাটি হচ্ছে। প্রথম দুই ম্যাচে জিতে ইতিমধ্যেই সিরিজের ট্রফি নিজেদের করে নিয়েছে আফগানিস্তান।

 

 

দেশর্রিপোট/দিদারুল


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন