সারাদেশ

আ.লীগের নেতা-কর্মীরা ঐক্যবদ্ধ আছে, তাই নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত’

নিজস্ব প্রতিবেদক: আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, সাবেক চীফ হুইপ ও বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ এমপি বলেছেন, ’আওয়ামী লীগ একটি সুসংগঠিত ও ঐক্যবদ্ধ সংগঠন। এই ঐক্যবদ্ধতার কারণেই সকল ক্ষেত্রে আওয়ামী লীগের বিজয় হয়েছে। আসন্ন বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ আছে এ কারনেই নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।’

জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব এ্যাডভোকেট মোঃ শাহজাহান মিয়ার সভাপতিত্বে দপ্তর সম্পাদক এড. হারুন অর রশিদ ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারন সম্পাদক এড. উজ্জ্বল বোস এর পরিচালনায় বিশেষ বর্ধিত সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা কাজী আলমগীর।

বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষনা বিষয়ক সম্পাদক এড. আফজাল হোসেন, বরিশাল-৫ আসনের এমপি জেবুননেচ্ছা আফরোজ, পটুয়াখালী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ খলিলুর রহমান মোহন, জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সদস্য এ্যাড. মোঃ সুলতান আহমেদ মৃধা, পৌরসভার মেয়র ডাঃ শফিকুল ইসলাম, বাউফল উপজেলা চেয়ারম্যান ইঞ্জিঃ মুজিবুর রহমান, দুমকি উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজাহান সিকদার, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, বাউফল উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোতালেব হাওলাদার, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি কাজী কানিজ সুলতানা হেলেন, মির্জাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক অধ্যাপক মোঃ ইউনুস সরদার, কলাপাড়ার সাধারন সম্পাদক রাকিবুল আহাসান, গলাচিপার সাধারন সম্পাদক গোলাম মোস্তফা টিটু, দশমিনার সাধারন সম্পাদক মোঃ গোলাম মোস্তফা, রাঙ্গাবালীর সাধারন সম্পাদক এনামুল ইসলাম লিটু, ইউপি চেয়ারম্যান কবির হোসেন তালুকদার, হুমায়ুন কবির প্রমুখ। এছাড়া সভায় বিভিন্ন উপজেলার মেয়র, চেয়ারম্যান-ভাইস চেয়ারম্যান, সভাপতি-সাধারন সম্পাদকবৃন্দ, বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যানবৃন্দ, আওয়ামীলীগের বিভিন্ন সহযোগী সংগঠনের সভাপতি-সাধারন সম্পাদকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সোমবার (৯ জুলাই) দুপুর ১২টায় পটুয়াখালী ক্লাবে জেলা আওয়ামীলীগের বিশেষ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ আরও বলেন, ’১৯৯৬ সালে আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় এসে বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের উন্নয়ন কার্যক্রম শুরু হয়। বিশেষ করে বরিশাল বিভাগসহ দক্ষিনাঞ্চলের ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে।

দৃশ্যমান হয়েছে আব্দুর রব সেরনিয়াবাত সেতু, লেবুখালী সেতু, শেখ কামাল সেতু, শেখ জামাল সেতু, শেখ রাসেল সেতু, পায়রা সমুদ্র বন্দর, পায়রা বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র, সাবমেরিন কেবল ল্যান্ডিং স্টেশন, কোষ্টগার্ড স্টেশন, শেখ হাসিনা সেনা নিবাস, পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ, ঢাকা থেকে কুয়াকাটা পর্যন্ত ফোর লেনের সড়কসহ আরো একাধিক প্রকল্প। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ আবার ক্ষমতায় আসলে পটুয়াখালী জেলা হবে দ্বিতীয় সিঙ্গাপুর।’

দেশরির্পোট,এএইচ


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন