সারাদেশ

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে স্বামীর হাতে স্ত্রী ও সিরাজগঞ্জে দুর্বৃত্তদের হাতে এক যুবক খুন হয়েছেন। মির্জাপুরে নিহতের নাম ঝলমল রানী (৩২)। গতকাল শুক্রবার সকালে মির্জাপুর উপজেলার সোহাগপাড়া এলাকার বাড়িতে তিনি খুন হন। ঘটনার পর থেকে তার স্বামী প্রাণকৃষ্ণ পলাতক রয়েছেন। প্রাণকৃষ্ণের বাড়ি শেরপুরের নালিতাবাড়ীর উপজেলার সন্যাভিটা গ্রামে। এই দম্পতির দুটি মেয়েসন্তান রয়েছে বলে জানা গেছে।

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার পিপুলবাড়ীয়া এলাকায় সংগ্রাম (২৭) নামের যুবককে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে পিপুলবাড়ীয়া গ্রামের একটি পাটক্ষেত থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। সংগ্রাম সদর উপজেলার বাগবাটি ইউনিয়নের আকতার হোসেনের ছেলে। তিনি চিহ্নিত মাদককারবারি বলে জানান।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, স্বামী-স্ত্রী দুই মেয়ে নিয়ে সোহাগপাড়ার ওই ভাড়া বাসায় থেকে মির্জাপুরের ধেরুয়া এলাকায় অবস্থিত নাসির গ্রুপের কারখানায় চাকরি করতেন। পারিবারিক কলহের জেরে শুক্রবার সকালে স্বামী দা দিয়ে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা করে পালিয়ে যান।

নিহতের ছোট বোন স্বপ্না রানী জানান, তার বোন ও বোনজামাইয়ের মধ্যে বেশ কিছুদিন ধরে পারিবারিক বিরোধ চলছিল।

এ ব্যাপারে মির্জাপুর থানার ওসি একেএম মিজানুল হক বলেন, শুক্রবার দুপুরে পুলিশ খবর পেয়ে নিহতরে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। পারিবারিক কলহের জেরে এ ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার পর থেকে প্রাণকৃষ্ণ পলাতক রয়েছেন।

সিরাজগঞ্জ সদর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) রফিকুল ইসলাম জানান, সকালে পিপুলবাড়ীয়া গ্রামের একটি পাটক্ষেতে সংগ্রামের লাশ দেখে স্থানীয়রা থানায় দেয়। তার শরীরে একাধিক ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, রাতের কোনো এক সময় তাকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

 

 

দেশরির্পোট/এ এইচ

 


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন