বিনোদন

টেলিফোনে লাইভ অনুষ্ঠানে পূর্ণিমাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা- শাকিব,ফেরদৌস ও সানীর

ঢাকাই সিনেমার নন্দিত ও জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা পূর্ণিমার জন্মদিন আজ। দীর্ঘ অনেক বছর ধরেই নেই চিত্র পাড়াতে। নতুন কোনো সিনেমাতে না দেখা গেলেও টিভি শোতে উপস্থানা আর চলচ্চিত্রের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে দেখা মিলছে নিয়মিত।

তবে তার এই শুভ দিনে কেমন কাটছে সময় সেটাই জানালেন তিনি, পূর্ণিমা জানালেন পরিবারের সাথে কাটাচ্ছেন এই দিনটি। অসংখ্য ভক্তদের শুভেচ্ছায় ভেসে কেটে যাচ্ছে পূর্ণিমার এই দিনটি। আজ দুপুর সাড়ে ১২টায় চ্যানেল আই ‘তারকা কথন’ অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছিলেন তিনি। টেলিফোন করে লাইভ অনুষ্ঠানে পূর্ণিমাকে ফোন করে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানান ঢাকাই ছবির তিন নায়ক – শাকিব খান, ফেরদৌস, ওমর সানী।

শাকিব খান বলেন, হ্যাপি বার্থডে পূর্ণিমা। মেনি মেনি হ্যাপি রিটার্নস অব দ্য ডে। তোমাকে অনেক সুন্দর লাগছে।’ প্রথমে শাকিবের কণ্ঠ শুনেই চমকে ওঠেন পূর্ণিমা। খুশীতে একগাল হাসি দেন। এরপর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে শাকিবকে উদ্দেশ্য করে পূর্ণিমা বলেন, ‘আমার জন্মদিনে শাকিবের ফোনকল এটা অন্যরকম সারপ্রাইজ।’ পূর্ণিমা শাকিবের কাছে জানতে চান, ‘শাকিব কোথায় তুমি? ঢাকায় নাকি ঢাকায় বাইরে?’ শাকিবের উত্তর, ‘আমি ঢাকাতে আছি।

এরপর মজা করে পূর্ণিমা বলেন, ‘এবার আমার জন্মদিনের পার্টিটা তুমি (শাকিব) দাও।’ হাসি দিয়ে শাকিব বলেন, ‘হা অবশ্যই দেব।’ শাকিব আরও বলেন, ‘অনেকদিন বেঁচে থাকো। পূর্ণিমার মতো আলোকিত হোক তোমার জীবন।’ এরপর পূর্ণিমা শাকিবের কাছে বিনীতভাবে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

ফেরদৌস বলেন, মধু পূর্নিমার রাতে যেমন সব কিছু ভাল লাগে তেমন পূর্নিমার সব কিছু আমাদের সব কিছু ভাল লাগে। তোমার এ ভাললাগাটা অব্যহত থাকুক , তোমার কাছে আমরা সুন্দর সুন্দর কাজ , সুন্দর সুন্দর উপস্থাপনা উপহার পাই সেই প্রত্যাশা থাকবে।

তিনি আরও বলেন, তবে একটা কথা আমি বলবো এটা আমার লেখা কথা না এটা আমার মনের কথা যেটা আমি পূর্নিমাকে সামনা সামনি বলি নেই। আমরা যে নারী সত্যি কথা বলি পূর্নিমা কে মনে হয় সে একটা উদাহরন। সে অনেক দিন তার এই জায়গাটাকে অটুট করে ধরে রেখেছে এটা আমার মনে হয় এটা সবার পূর্নিমার কাছ থেকে শিখার আছে । পূর্নিমা অনেক অনেক ভাল থাকো তোমার শক্তি যেনো থাকে কাজের ক্ষেত্রে পরিবারের ক্ষেত্রে এই প্রত্যাশা এই দোয়া । অনেক অনেক ভালবাসা।

এসব কথা শুনে আবেগে কান্না বের হয়ে যাই পূর্নিমার। তিনি ফেরদৌসকে ধন্যবাদ জানান এবং বলেন আমার ভাল একটা বন্ধু ফেরদৌস। ও সবসময় যে কোন কাজে আমাকে অনেক সার্পোট করেন।

এদিকে ওমর সানি ফোন দিলে প্রথমে বুঝতে পারছিলেন না আসলে কে, তাই  আগেই পূর্নিমা তাকে  হ্যাপি বার্থডে জানান,। পরে তিনি বলেন, থ্যাংকস জানিয়ে বলেন, শুভ জন্মদিনে আমি আল্লাহ কাছে দোয়া করি ও যেনো সুস্থ থাকে এবং পরিবার নিয়ে ভাল খাকে , বাচ্চাটাকে নিয়ে ভাল থাকে। আর তোমার জন্মদিন উপলক্ষে বের হয়েছি, তোর জন্য একটা খাসি কিনবো জবাই করে ফ্যামেলির সবাই তোদের কে নিয়ে খাবো ইনশাআল্লাহ।

জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘এ জীবন তোমার আমার’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে ১৯৯৮ সালে ঢাকাই চলচ্চিত্রে অভিষেক হয় দিলারা হানিফ পূর্ণিমার। এরপর ১৫ বছরের অভিনয় ক্যারিয়ারে শতাধিক দর্শকনন্দিত ছবি উপহার দিয়েছেন। পাশাপাশি ছোট পর্দা, অর্থাৎ টেলিভিশনেও করেছেন অত্যন্ত চমৎকার কিছু কাজ।

পূর্ণিমা অভিনীত জনপ্রিয় ছবির মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে ‘মনের মাঝে তুমি’, ‘মেঘের পরে মেঘ’, ‘হৃদয়ের কথা’, ‘শাস্তি’, ‘সুভা’, ‘রাক্ষুসী’, ‘আকাশ ছোঁয়া ভালোবাসা’, ‘মনের সাথে যুদ্ধ’, ‘ওরা আমাকে ভালো হতে দিলো না’, ‘সুলতান’ ইত্যাদি। কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘ওরা আমাকে ভাল হতে দিলো না’ ছবির জন্য পূর্ণিমা সেরা অভিনেত্রী হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন।

 

দেশরির্পোট/ জেড / আর


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন