সারাবিশ্ব

বাঘকে উত্যক্ত করার ঘটনায় গ্রেপ্তার ১২ মৎসজীবী

সুন্দরবনের মাঝনদীতে একটি বাঘকে উত্যক্ত করার ঘটনায় ১২ মৎস্যজীবীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার সকালের দিকে ভারতীয় অংশের সুন্দরবন থেকে ওই ১২ মৎস্যজীবীকে গ্রেপ্তার করে কোস্টাল থানা পুলিশ৷তবে এখন পর্যন্ত তাদের নাম জানানো হয়নি।

ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া ও আনন্দবাজারের খবরে বলা হয়েছে, বেশ কিছুদিন ধরে ভারতীয় অংশের সুন্দরবন এলাকার নদীতে মাছ ধরতেন ওই ১২ মৎস্যজীবী। কিন্তু বাঘের ভয় থাকায় তারা গভীরে যেতে পারতেন না। একদিন সবাই মিলে বনের গভীরে গিয়ে মাছ ধরার সময় একটি রয়েল বেঙ্গল টাইগার তাদের সামনে চলে আসে। পরে ওই ১২ মৎস্যজীবী থেকে কয়েকজন বাঘটিকে তাড়ানোর জন্য বিভিন্ন সময় ইট, বাঁশের কঞ্চি, কাঠের টুকরা ছুঁড়ে মারতেন।

এভাবেই একদিন তারা মাছ ধরার সময় বাঘটি আবার তাদের সমানে চলে এলে একইভাবে সেটাকে তাড়ায় মৎসজীবীরা। এতে বাঘটি নদীতে পড়ে যায়। কোস্টাল এলাকার ওই নদীতে প্রায় তিন দিন ধরে বাঘটিকে উত্যক্ত করে মৎস্যজীবীরা। পরে বন কর্তৃপক্ষ তাদের লোকজন পাঠিয়ে বাঘটিকে উদ্ধার করে।

সংবাদমাধ্যম দুটি আরও জানিয়েছে, এ ঘটনাগুলো ঘটার সময় ওই ১২ জন মৎস্যজীবীকে চিহ্নিত করে বন কর্তৃপক্ষ। পরে তারা বিষয়টি নিয়ে পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। বন কর্তৃপক্ষের অভিযোগের ভিত্তিতে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

কোস্টাল থানা পুলিশ জানিয়েছে, বন কর্তৃপক্ষের অভিযোগের ভিত্তিতে ১২ জন মৎস্যজীবীকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করার পর বাঘটিকে উত্যক্ত করার বিষয়টি স্বীকার করেছে তারা। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হচ্ছে।

 

দেশরির্পোট/জেড,আর/জনি


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন