বিনোদন

মেডলিংয়ের দুনিয়ায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন ‘রিহানা’

দেখতে ভালই কিন্তু গায়ের রঙটা যদি একটু পরিষ্কার হতো তাহলে আরও সুন্দর লাগত ওকে৷’ খবরের কাগজে পাত্রী চাইয়ের তালিকাতেও একটাই ডিমান্ড৷ ‘ফর্সা সুযোগ্যা পাত্রী চাই’৷ গায়ের রঙই হল মেয়েদের সৌন্দর্য্যের মাপকাঠি৷

ফর্সা হলেই তবেই সব রঙ মানাবে৷ গায়ের রঙ যদি চাপা হয় তাহলে খবরদার উজ্জ্বল রঙ পড়বেন না৷ এমনই টিপস কিছু ফ্যাশন পেজে লেখা থাকে৷ যতই নতুন প্রজন্ম রেসিজম নিয়ে আওয়াজ তুলুক না কেন, সমাজের চোখে সুন্দর মানেই ফর্সা মেয়ে৷ আর কালো গায়ের রঙকে বলা হয় ‘ময়লা’ গায়ের রঙ৷ এই ভাবনা চিন্তাকেই চ্যালেঞ্জ করে ভাইরাল হয়ে উঠলেন রেনে৷ ছত্তিশগড়ের বাগিচার মেয়ে রেনে৷

নিজের কালো গায়ের রঙ নিয়ে মেডলিংয়ের দুনিয়ায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন রেনে৷ তবে এই মডেলিংয়ের জগতে পা রাখা রেনের পক্ষে একেবারেই সহজ ছিল না৷ তার কারণ একটাই৷ রিজেকশনের পর রিজেকশন এসেছিল তাঁর রাস্তায়৷ প্রতি পদে অপমানিত হয়েছিলেন তিনি৷ তবে এই রিজেকশন তাঁর জীবনে নতুন নয়৷ প্রতিনিয়ত অবমাননা হয়েছে তাঁর৷ সেই তিন বছর বয়স থেকেই৷ ফ্যান্সি ড্রেস কম্পিটিশনে পরী হয়ে স্টেজে হাঁটার কথা তাঁর৷ হঠাৎ দর্শক আসন থেকে ভেসে এলো, ‘এ দেখ, কালো পরী’৷ কথাটা অতটাও যন্ত্রণাদায়ক ছিল না যতটা ছিল দর্শকদের অট্টোহাসি৷ চোখের কোনায় জল নিয়ে স্টেজ থেকে দৌড়ে পালিয়ে যায় রেনে৷

তবে এখন আর পালিয়ে যাওয়ার কোনও প্রশ্ন নেই৷ নিজের গায়ের রঙকেই হাতিয়ার করে ইন্টারনেটে ভাইরাল তিনি৷ তবে রেনের ইউেসপি অন্য জায়গায়৷ তাঁকে অবিকল রিহানার মতো দেখতে৷ দু’জনের ছবি পাশাপাশি রাখলে কে রিহানা এবং কে রেনে তা বোঝা মুশকিল হয়ে ওঠে৷ রিহানার মতোই সাজগোজ করে, পোশাক পরে ইনস্টাগ্রামে ছবি পোস্ট করেন রেনে৷ যা দেখে চমকে উঠছে সাইবারবাসী৷ রিহানার সঙ্গে এই সাদৃশ্যের কারণেই রেনের এখন একটাই স্বপ্ন, রিহানার সঙ্গে দেখা করা৷

তিন বছর ধরে মডেলিংয়ের দুনিয়ায় রয়েছেন রেনে৷ যেখানে তাঁকে শুনতে হয়েছে প্রত্যেকটি মডেলই আসলে বেশ্যা৷ সবাইকেই ক্লায়েন্টকে সন্তুষ্ট করতে হয়েছে কোনও না কোন ভাবে৷ কিন্তু রেনের গায়ের রঙ কালো বলে তাঁর নাকি ক্লায়েন্টকে সন্তুষ্ট করার সুযোগ নেই৷

ফোটোগ্রাফাররা সবসময়ই মেকআপ আর্টিস্টদের অনুরোধ করতেন ফোটোশপ করার সুবিধার জন্য আমার গায়ের রঙকে মেক আপ দিয়ে যেন আরও ফর্সা করে তোলা হোক৷ একবার তাঁর মেকআপ করার পর সকলের সামনে বলেছিল, “সুন্দরী মেয়েদের মেকআপ করা তো সহজ ব্যাপার৷ কিন্তু আসল পরীক্ষা হল কালো মেয়েকে মেকআপ দিয়ে সুন্দর করে তোলা৷ আর সেটা আমি আজ পেরেছি৷

তবে এতো অবমাননা, অপমান সহ্য করার পরও তিনি পিছিয়ে যাননি৷ নানা রকমের ফোটোশ্যুট করার নিজের সঙ্গে পপস্টার রিহানার মিল খুঁজে পান৷ আর সেই সাদৃশ্যই রেনের জীবনে টার্নিং পয়েন্ট হয়ে দাঁড়ায়৷

 

 

দেশরির্পোট/আরাফাত


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন