প্রধান সংবাদবিনোদন

শিল্পীদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে তিনটি আবেদন ববিতার

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন অভিনেত্রী ববিতা জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০১৬-এর আজীবন সম্মাননা পেয়েছেন। গত রোববার রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার হাতে এই সম্মাননা তুলে দেন। এ সময় ববিতা প্রধানমন্ত্রীর কাছে তিনটি আবেদন করেছেন। আবেদন তিনটি হলো নায়করাজরাজ্জাকের নামে একটি ফিল্ম ইনস্টিটিউট বা আর্কাইভ করা, শিল্পীদের জন্য বাসস্থান, চলিচ্চত্রর উন্নয়েনর জন্য আধুনিক যন্ত্রপাতির ব্যবস্থা করা। জাতীয় চলিচ্চত্র পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে অনুভুতি প্রকাশ করার সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আবেদনগুলো পেশ কেরন বিবতা।

চলচ্চিত্রে নায়করাজের অবদানের কথা উল্লেখ করে ববিতা বলেন, আমি চাই প্রয়াত শিল্পী নায়করাজ রাজ্জাকের নামে একটি ইনস্টিটিউট হোক। কিংবা তাকে নিয়ে একটি ফিল্ম আর্কাইভ প্রতিষ্ঠা করা হোক। চলচ্চিত্র শিল্পীদের পক্ষ থেকে তিনি বলেন, শিল্পীদের জন্য স্বল্পমূল্যের বাড়ি দরকার। চলচ্চিত্রের উন্নয়নে আধুনিক যন্ত্রপাতিরও প্রয়োজন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার প্রত্যাশা এটুকুই।

উল্লেখ্য ববিতার চলচ্চিত্র আসার পেছনে বড়বোন সুচন্দার অনুপ্রেরনায় রয়েছে। বড়বোন সুচন্দা অভিনীত জহির রায়হানের ‘সংসার’ চলচ্চিত্রে শিশুশিল্পী হিসেবে ববিতার আত্মপ্রকাশ ঘটে ১৯৬৮ সালে। এই চলচ্চিত্রে তিনি রাজ্জাক-সুচন্দার মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেন। চলচ্চিত্র জগতে তাঁর প্রাথমিক নাম ছিলো “সুবর্ণা”। তিনি ‘কলম’ নামের একটি টেলিভিশন নাটকে অভিনয় করেছিলেন সে সময়। জহির রায়হানের ‘জ্বলতে সুরুজ কি নিচে’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে গিয়েই তাঁর নাম “ববিতা” হয়ে যায়। ১৯৬৯ সালে শেষ পর্যন্ত চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন প্রথম নায়িকা চরিত্রে। ১৯৬৯ সালের ১৪ই আগস্টে চলচ্চিত্রটি মুক্তি পায় এবং ঐদিন তাঁর মা মারা যান। তাঁর কর্মজীবনের শুরুতে ভগ্নিপতি জহির রায়হানের পথ প্রদর্শনে চললেও পরে তিনি একাই পথ চলেছেন। ৭০’-এর দশকে শুধুমাত্র অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি গোটা দশকের অন্যতম শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেন। ‘টাকা আনা পাই’ সিনেমাটা ছিল তাঁর জন্য টার্নিং পয়েন্ট যা পরিচালনা করেছিলেন জহির রায়হান। এরপর তিনি নজরুল ইসলামের ‘স্বরলিপি’ সিনেমাতে অভিনয় করেন যা ছিল সুপারহিট সিনেমা

 

দেশর্রিপোট/অারাফাত


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন