রাজনীতি

ছয় শর্তে এরশাদের জোটে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিশ

কোরআন সুন্নাহবিরোধী আইন না করা, হযরত মুহম্মদ (সা.) সর্বশেষ নবী সংবিধানে তা অন্তর্ভুক্ত করাসহ ছয় শর্তে জাতীয় পার্টির (জাপা) নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত জাতীয় জোটে যোগ দিয়েছে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিশ। জোট সম্প্রসারণ করলেও জাপা চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেন, আগামী নির্বাচনে কীভাবে অংশ নেবেন, তা এখনও ঠিক করেননি।

শনিবার রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে কওমি মাদ্রাসাভিত্তিক দল খেলাফতের সঙ্গে সমঝোতার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিতে ডাকা সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন এরশাদ। তিনি বলেন, দেশে ইসলামের শাসন কায়েম করতে জাপা ও খেলাফত একযোগে কাজ করবে।

প্রয়াত শায়খুল হাদিস আজিজুল হকের প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশ খেলাফত মজলিশ নির্বাচন কমিশনের নিবন্ধিত দল। দলটি হেফাজতে ইসলাম সংশ্নিষ্ট। খেলাফতের মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব। খেলাফত ১৯৯৯ থেকে ২০০৬; সাত বছর বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোটে ছিল। ২০০৬ সালে বহুল আলোচিত পাঁচদফা চুক্তি করে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন জোটে যোগ দিয়েছিল। সমালোচনার মুখে আওয়ামী লীগ চুক্তি বাতিল করলে খেলাফত জোট ছাড়ে। ‘ব্লাসফেমি’ আইন প্রণয়নের দাবি থেকে সরে এসে ছয় শর্তে দলটি এবার জাপার সঙ্গে জোট করল।

রাজনৈতিক অঙ্গনে গুঞ্জন, বিএনপি নির্বাচনে অংশ নিলে আওয়ামী লীগের সঙ্গে জোট করে নির্বাচন করবে জাপা। বিএনপি অংশ না নিলে গতবারের মতো আসন সমঝোতা করে আবারও বিরোধী দলের আসনে বসবে। আওয়ামী লীগ ও জাপা নেতারা এ ছক কষছেন। এ প্রসঙ্গে এরশাদ বলেন, এ বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না।

বিএনপি সংলাপের দাবি জানিয়ে আসছে দীর্ঘদিন ধরে। এ বিষয়ে সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদের বক্তব্য, জাপা অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন চায়। তার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। কার সঙ্গে কার সংলাপ হবে, তা নিয়ে তাদের আগ্রহ নেই। জোটে যোগ দিলেও খেলাফত কোন প্রতীকে নির্বাচনে লড়বে এ বিষয়েও পরে সিদ্ধান্ত হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত এরশাদ বলেন, দেশে সুশাসনের অভাব রয়েছে। মানুষ মুক্তি ও পরিবর্তন চায়। পরিবর্তনের জন্য ইসলামের চেয়ে বড় শক্তি নেই। ক্ষমতায় গিয়ে তিনি তা প্রমাণ করবেন।

খেলাফত মজলিসের আমির প্রিন্সিপাল হাবীবুর রহমান বলেন, ইসলামী শাসন প্রতিষ্ঠায় জাপার সঙ্গে নির্বাচনী সমঝোতা হয়েছে। এর মাধ্যমে আগামীতে এদেশে ইসলামের পতাকা উড্ডীন হবে। খেলাফত ও জাপা ইসলাম প্রতিষ্ঠা করতে চায়।

গত বছর ৫৮টি নামসর্বস্ব দল নিয়ে ঢাউস জোট করে জাপা। যার একটিমাত্র নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধিত। খেলাফতের যোগ দেওয়ার মাধ্যমে জোটে দলেরসংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৬০। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, জাপার কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, ইসলামী মহাজোটের চেয়াম্যান মাওলানা আবু নাসের ওয়াহেদ, খেলাফতের মহাসচিব মাহফুজুল হক প্রমুখ।

 

দেশরির্পোট/এসআর

 


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন