খেলাপ্রধান সংবাদ

পাকিস্তানি মেয়েদের ১৪ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশের মেয়েরা

সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী ফুটবলে মাত্র আট মাস আগে শিরোপা জিতেছে বাংলাদেশের মেয়েরা। এবার আবার দক্ষিণ এশিয়া ফুটবল ফেডারেশন (সাফ) ভুটানে অনূর্ধ্ব-১৫ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের আয়োজন করেছে। এতে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ নারী দল প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানি মেয়েদের ১৪ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে। বিপরীতে নিজেদের জাল অক্ষত রেখেছে তারা।

বাংলাদেশ মেয়েরা ৯০ মিনিটের খেলায় গড়ে প্রতি ৬.৫ মিনিটে একটি করে গোল দিয়েছে। দলের হয়ে পাঁচটি গোল করেছেন শামসুন্নাহার। ম্যাচের ৫ মিনিটের মাথায় পাকিস্তানি মেয়েদের গোলমুখ খোলে বাংলাদেশের মেয়েরা। তহুরা খাতুনের ওই গোলেই শুরু। এরপর মনিকা চাকমা ১৭ মিনিটে বাংলাদেশের হয়ে দ্বিতীয় গোল করেন। তার দু’মিনিট পরেই গোল ব্যবধান ৩-০ করেন তরুহা খাতুন। পুরো ম্যাচে গোল উৎসবে ভাসা বাংলাদেশের মেয়েরা ৩১ মিনিটে শামসুন্নাহারের গোলে ৪-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায়।

ম্যাচের ৩৯ মিনিটে পঞ্চম গোলটি করেন মারিয়া মান্দা। পরের মিনিটেই আঁখি খাতুনের গোলে ৬-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে প্রথমার্ধের খেলা শেষ করে বাংলাদেশ।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে যেন আরও ক্ষুরধার হয়ে ওঠে বাংলাদেশের মেয়েরা। দ্বিতীয়ার্ধের তৃতীয় মিনিটেই গোল করে ব্যবধান ৭-০ তে উন্নীত করেন সাজেদা খাতুন। পরের তিনটি গোলই আসে শামসুন্নাহারের পা থেকে। ম্যাচের ৩১ মিনিটে নিজের প্রথম গোল করা শামসুন্নাহার ৮ মিনিটের ব্যবধানে আরও ৩ গোল করে ব্যবধান ১০-০ তে উন্নীত করেন। গোল তিনটি করেন যথাক্রমে ম্যাচের ৫০, ৫৪ ও ৫৭ মিনিটে।

এরপর ৫৮ মিনিটে বাংলাদেশ মেয়েরা ব্যবধান ১১-০ বানিয়ে ফেলে। তার দুই মিনিট পরে আনাই মোগিনির গোলে ১২-০ গোলের লিড নেয় মেয়েরা। পাকিস্তানের অবস্থা তখন ‘ছেড়ে দে মা কেঁদে বাঁচি’। কিন্তু ম্যাচ শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাদের কোনো ছাড় নয়— এমন পণ করেই যেন এদিন মাঠে নেমেছিল বাংলাদেশের মেয়েরা।

ম্যাচের ৮৮ মিনিটে মোগিনির দ্বিতীয় গোলে ১৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে যায় বাংলাদেশ। এরপর ৯০ মিনিটে নিজের পঞ্চম এবং দলের ১৪তম গোলটি করেন শামসুন্নাহার। আর এর মধ্য দিয়ে সাফ চ্যাম্পিয়নদের সঙ্গে পাকিস্তানের মেয়েদের পার্থক্যটা বুঝিয়ে দিয়ে বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে তরুহা-শামসুন্নাহার-মনিকারা।

 

 

দেশরির্পোট/এএইচ


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন