বিনোদন

হ্যাশট্যাগমিটু আন্দোলনের বিরুদ্ধে লিন্ডসে লোহান!

হলিউডের ক্ষমতাধর প্রযোজক হার্ভি ওয়াইন্সটাইনের বিরুদ্ধে ওঠা যৌন নিপীড়নের অভিযোগ চলচ্চিত্র জগেকই যেন কাঁপিয়ে দিয়েছিল গত বছর। সালমা হায়েক, অ্যাঞ্জেলিনা জোলি, ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চনের মতো প্রতিষ্ঠিত অভিনেত্রীরাও নিপীড়নের অভিযোগ তুলেছিলেন হার্ভির বিরুদ্ধে। একের পর এক অভিযোগে সর্বস্ব হারিয়ে এখন জেলে বন্দি এ প্রযোজক। ধারণা করা হচ্ছে, অচিরেই খুব বড় ধরনের শাস্তির মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন ধর্ষণের দায়ে অভিযুক্ত হার্ভি। মূলত হার্ভির এ কুর্কীতির পর আরো অসংখ্য ‘স্বনামধন্য’ ব্যক্তির বিরুদ্ধে গড়ে ওঠে হ্যাশট্যাগমিটু ক্যাম্পেইন।

নারী নিপীড়নের বিরুদ্ধে হ্যাশট্যাগমিটু আন্দোলন যখন সফলতার মুখ দেখছে, নিপীড়কদের নাম প্রকাশ করে যখন অনন্য সাহসিকতা প্রকাশ করে বাহবা পাচ্ছেন অভিনেত্রী থেকে শুরু করে সাধারণ নারী পর্যন্ত। ঠিক তখনই এ আন্দোলনের বিরুদ্ধে আবারো অবস্থান নিলেন হলিউড অভিনেত্রী লিন্ডসে লোহান। লোহানের যুক্তি, মিটু ক্যাম্পেইন নাকি নারীকে ‘দুর্বল’ হিসেবেই তুলে ধরছে। একই সঙ্গে দ্য টাইমসকে দেয়া এক সাক্ষাত্কারে এ অভিনেত্রী স্বীকার করেছেন, তিনি কখনই হলিউডে এ রকম নেতিবাচক অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হননি। লোহান বলেন, ‘সত্যিকার অর্থেই এ নিয়ে আমার বলার কিছু নেই। আমি যার মুখোমুখি হইনি, তা নিয়ে কথা বলতে পারি না, ঠিক? দেখুন, আমি খুবই সহযোগিতাপ্রবণ একজন নারী। প্রত্যেকেই নিজ নিজ চলার পথে ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা অর্জনের মধ্য দিয়ে যায়।’

৩২ বছর বয়সী লোহানের পরামর্শ, কোনো ঘটনা ঘটার সঙ্গে সঙ্গেই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করা উচিত, প্রয়োজনে পুলিশের কাছে অভিযোগ করতে হবে। তিনি আরো মতামত দেন, এ ধরনের আন্দোলন একজন সবল নারীকেও দুর্বল হিসেবে উপস্থাপন করে। কেউ কেউ আবার বাড়তি মনোযোগ আকর্ষণ পেতেও নাকি এ আন্দোলনে যোগ দিয়েছেন।

এদিকে গত বছরের অক্টোবরে লোহান তার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে এক ভিডিও বার্তা দিয়ে হার্ভির পক্ষ অবলম্বন করেছিলেন, যদিও পরে তা প্রত্যাহার করে নেন। সেখানে তিনি বলেছিলেন, হার্ভি ওয়াইন্সটাইনের জন্য এখন আমার খুব খারাপ লাগছে। ভাবতে পারছি না, যা চলছে তা আদৌ ঠিক। আমার মনে হয়, জর্জিনার (হার্ভি ওয়াইন্সটাইনের সাবেক স্ত্রী জর্জিনা রোজ চ্যাপম্যান) এ বিষয়ে অবস্থান নেয়া উচিত এবং তার স্বামীর পাশে থাকা কর্তব্য। তিনি (হার্ভি) কখনই আমাকে আহত বা অন্য কিছু করেননি। আমরা একসঙ্গে কিছু ছবিতে অভিনয় করেছিলাম। আমি মনে করি, সবার থেমে যাওয়া উচিত। আমি মনে করি, এ সবই ভুল।

 

দেশরির্পোট/এএইচ


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন