বিনোদন

ছয় ভিআইপি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের আবেদন করবেন

চলচ্চিত্রের শিল্পী সংকট দূর করতে হাতে নেওয়া হয়েছে নতুন মুখের সন্ধানে । আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে ‘নতুন মুখের সন্ধানে-২০১৮ প্রতিযোগিতা। ঢাকার একটি পাঁচতারকা হোটেলে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিযোগিতাটির যাত্রা শুরু করে সারাদেশ থেকে বড় পর্দার জন্য অভিনয়শিল্পী সংগ্রহ করা হবে।

প্রতিযোগীরা ওইদিন থেকে চলচ্চিত্রে অভিনয়ে আগ্রহীরা আবেদন করতে পারবেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সমিতি আয়োজিত এই প্রতিযোগিতায় থাকছে আরও একটি বিশেষ চমক। প্রথম দিন প্রতীকীভাবে প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার জন্য আবেদন করবেন দেশের চার মন্ত্রী দুই সচিব।

বিষয়ে সমিতির সভাপতি বলেন, আনন্দঘন আবহে পহেলা সেপ্টেম্বরই আমরা এই কার্যক্রম শুরু করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু অর্থমন্ত্রীর সময় না পাওয়ায় নির্দিষ্ট দিনে আনুষ্ঠানিকতা শুরু করতে পারিনি। এখন তার সম্মতি সময় পাওয়া গেছে। আশা করছি আমাদের এই যাত্রা দেশের চলচ্চিত্রের অগ্রণী ভূমিকা রাখবে।

প্রতিযোগিতা উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। বিশেষ অতিথি থাকবেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, তথ্য সচিব এম মালেক সংস্কৃতি সচিব নাসির উদ্দিন আহমেদ। ছয়জনই প্রথম প্রতীকী অর্থে অভিনয়ের জন্য আবেদন করবেন বলে জানান গুলজার।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত থাকবেন চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, নবীনপ্রবীণ তারকাশিল্পী, পরিচালক, প্রযোজক কলাকুশলীরা। জানা গেছে, ওই দিনই ওয়েবসাইটে নাম নিবন্ধনের আবেদনপত্র খুলে দেওয়া হবে। পরদিন থেকে আগ্রহী প্রার্থীরা নাম নিবন্ধন করতে পারবেন। 

এই নাম নিবন্ধন প্রক্রিয়া চলবে এক মাস। এরপর আটটি বিভাগীয় শহর ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, খুলনা, রাজশাহী, বরিশাল, রংপুর, ময়মনসিংহে শুরু হবে প্রাথমিক নির্বাচন পর্ব। বিচারকদের কাছ থেকেইয়েস কার্ডপাওয়া প্রতিযোগিরা অংশ নিবে ঢাকার চূড়ান্ত পর্বে। 

প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত প্রতিযোগীদের জন্য গ্রুমিংয়ের আয়োজন করা হবে। তারপর প্রতিযোগিরা পাঁচটি বিভাগের জন্য প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবেন। এখান থেকেই নির্বাচিতরা নতুন ছবিতে অভিনয়ের সুযোগ পাবেন। 

এই পাঁচটি বিভাগ হলো: নায়কনায়িকা, পার্শ্ব অভিনয়শিল্পী, খলনায়ক, কৌতুক অভিনেতা শিশুশিল্পী। চূড়ান্ত পর্বের বিচারক প্যানেলে থাকবেন চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্ট নয়জন। এই তালিকায় যারা থাকবেন, তাদের নামও আনুষ্ঠানিকভাবে ১৬ সেপ্টেম্বর ঘোষণা করা হবে বলে জানা গেছে।

এর আগে, বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন সংস্থার (বিএফডিসি) উদ্যোগে ১৯৮৪, ১৯৮৮, ১৯৯০ সালেনতুন মুখের সন্ধানেকার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। এর মাধ্যমে ঢালিউড পেয়েছিল মান্না, দিতি, সোহেল চৌধুরী, আমিন খান, অমিত হাসান, মিশা সওদাগরের মতো প্রতিভাবানদের। 


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন