সারাবিশ্ব

আফগানিস্তানে তালেবান জঙ্গিদের সঙ্গে সংঘর্ষে ১০ পুলিশ নিহত

আফগানিস্তানে তালেবান জঙ্গিদের সঙ্গে সংঘর্ষে অন্তত ১০ পুলিশ নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

মধ্যাঞ্চলে দেশটির প্রধান একটি মহাসড়কের দখল নিয়ে লড়াই চলার মধ্যেই ওয়ার্দাক প্রদেশে এসব পুলিশ সদস্য নিহত হন বলে রোববার জানিয়েছেন তারা, খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

ঊর্ধ্বতন এক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, শনিবার রাতে ওয়ার্দাকের সায়িদ আবাদ জেলায় একটি সরকারি ভবনে আগুন লাগিয়ে দেয় তালেবান, তারপর নয় পুলিশ সদস্যসহ জেলা পুলিশ প্রধানকে হত্যা করে।

ওয়ার্দাকের গভর্নর দপ্তরের মুখপাত্র আব্দুল রহমান মঙ্গল জানিয়েছেন, ১০ পুলিশকে হত্যার পর কয়েকটি বেসামরিক বাড়িতে হামলা চালায় তালেবান, তারা নতুন করে তৈরি করা তল্লাশিচৌকিগুলো ধ্বংস করে দেয় এবং শহরের কিছু অংশে বিদ্যুৎ সরবরাহ বিচ্ছিন্ন করে দেয়।

সায়িদ আবাদ শহরে বিদ্রোহীদের প্রবেশ রুখতে সরকারি বাহিনী পাল্টা হামলা চালায় বলে জানিয়েছেন তিনি।

তালেবানের প্রধান মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ জানিয়েছেন, নিরাপত্তা বাহিনীগুলোর বহু সদস্যকে হত্যার পাশাপাশি অস্ত্র, গোলাবারুদ ও গাড়ি দখল করে বিদ্রোহীরা সায়িদ আবাদ শহরের কেন্দ্রস্থল ও এর আশপাশের সবগুলো নিরাপত্তা চৌকির নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে।

গজনি প্রদেশের গভর্নরের মুখপাত্র মোহাম্মদ আরিফ নুরি জানিয়েছেন, মার্কিন বাহিনী সমর্থিত আফগান বাহিনীগুলো গজনি থেকে তালেবান যোদ্ধাদের হটিয়ে দেওয়ার পর থেকে গত প্রায় দুই মাস ধরে প্রদেশটির কয়েকটি অংশে নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার চেষ্টা করছে তালেবান, এখানে তাদের সঙ্গে লড়াইয়ে এক সৈন্য নিহত হয়েছে।

অগাস্টে গজনির নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার চেষ্টায় বড় ধরনের হামলা চালিয়েছিল তালেবান। আফগানিস্তানের দক্ষিণাঞ্চলের সঙ্গে রাজধানী কাবুলকে সংযোগকারী প্রধান মহাসড়কটি এই প্রদেশের মধ্য দিয়ে যাওয়ায় কৌশলগতভাবে গজনি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। গজনির ওই লড়াইয়ে আফগানিস্তনের নিরাপত্তা বাহিনীগুলোর ১৫০ সদস্য ও ৯৫ জন বেসামরিক নিহত হয়, পাশাপাশি কয়েশ তালেবান যোদ্ধাও নিহত হয়।

ওয়ার্দক ও গজনির মতো কৌশলগতভাবে গুরুত্বপূর্ণ প্রদেশগুলোতে হামলা চালিয়ে নিজেদের শক্তিমত্তা জানান দিচ্ছে তালেবান। এতে আফগানিস্তানের জাতীয় নির্বাচনের মাত্র দুই সপ্তাহ আগে দেশটির নাজুক নিরাপত্তা পরিস্থিতির বিষয়টি সামনে এসেছে।

 

 

দেশরির্পোট/রবিন


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন