রাজনীতি

খালেদা জিয়াকে চিকিৎসাহীন অবস্থায় ফেলে রাখা হয়েছে: রিজভী

কারাবন্দি বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে চিকিৎসাহীন অবস্থায় স্যাঁতসেতে অন্ধকার কারা প্রকোষ্ঠে ফেলে রাখা হয়েছে অভিযোগ করে দলটির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, মঙ্গলবার বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে তাঁর পরিবারের লোকেরা দেখা করতে গিয়েছিলেন। সেখানে বেগম জিয়ার অসুস্থ শারীরিক অবস্থা দেখে স্বজনরা ব্যথিত হয়েছেন। তাঁকে চিকিৎসাহীন অবস্থায় রাখা হয়েছে। বাম হাত-পা, হাতের আঙ্গুল নড়াচড়া করতে পারছেন না। ফিজিওথেরাপিও প্রায় বন্ধই করে দেয়া হয়েছে। তাঁর জন্য দক্ষ ও অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ফিজিওথেরাপিস্ট ব্যবস্থা করা হয়নি। গভীর স্বাস্থ্য সংকটের মধ্যে রাখাটাই যেন সরকার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে। এই জন্যই বেগম খালেদা জিয়াকে চিকিৎসা বঞ্চিত রাখা হচ্ছে। খালেদা জিয়ার পছন্দানুযায়ী ইউনাইটেড হাসপাতালে তড়িৎ চিকিৎসা ব্যবস্থা গ্রহণ এবং অবিলম্বে নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবি জানান রিজভী।
বুধবার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ সব কথা বলেন।
‘২০১৮ সালে এসে বিএনপির ভোট ৩০ শতাংশ আর আওয়ামী লীগের ভোট ৪২ শতাংশ হয়েছে’- প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচটি ইমামের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, এইচ টি ইমাম সরকারের গোপন পরিকল্পনা মাঝে মাঝে প্রকাশ করে দেন। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে সব দল অংশগ্রহণ করলে তিনি কিভাবে বাছাই করা প্রশাসনের লোকদের দিয়ে ভোট কেন্দ্রগুলি নিজেদের আয়ত্বে রাখবেন সেটিও পরবর্তীতে প্রকাশ করেছেন। পরীক্ষা ছাড়াই বিসিএস-এ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের পাশ করানোর পরিকল্পনা করেছিলেন সেটিও একটি সভায় তিনি ফাঁস করেছেন। এখন তিনি গায়েবী পরিসংখ্যান ব্যুরোর অধিকর্তা সেজেছেন মুজিব হত্যাকারীদের সহযোগী এই সাবেক আমলা। এইসব উদ্ভট পরিসংখ্যান এইচ টি ইমামের নিজস্ব নাকি তথ্য ও যোগাযোগ উপদেষ্টার তা জাতির জানার আগ্রহ আছে।
‘বিএনপির নেতাদের নাশকতার ছকের তথ্য পুলিশ হাতিরঝিল থানায় মামলা দিয়েছে’- ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের জবাবে রিজভী বলেন, ‘আমি ওবায়দুল কাদের সাহেবকে বলতে চাই- আপনাদের মতো আপনাদের পুলিশরাও এখন গায়েবি তথ্য উৎপাদনের কারখানায় পরিণত হয়েছে। আপনাদের পুলিশ এমনই যে, ঐ মামলায় বর্ণিত ভাংচুর হওয়া গাড়ির নম্বর জানে না। এছাড়াও সম্প্রতি দায়ের করা অনেক মামলায় দুই বছর আগে মারা যাওয়া বিএনপি নেতার নামেও মামলা দেয়া হয়েছে, হজে থাকাকালীন অবস্থায়ও মামলা দেয়া হয়, হাসপাতালে শায়িত ৮৩ বছর বয়স্ক বিএনপি নেতার নামে এবং বিদেশে থাকলেও মামলা দেয়া হয়।
৩০ সেপ্টেম্বরের জনসভা সফল করায় কারাবন্দি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ঢাকাসহ সারাদেশ থেকে আসা নেতাকর্মীদের আন্তরিক ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বলেও রিজভী জানান। এছাড়া তিনি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বিএনপি’র জনসভা চলাকালে ফরিদপুর জেলাধীন নগরকান্দার ফুলসুতি ইউনিয়ন বিএনপি’র সহ-সভাপতি আব্দুল হান্নান মাতুব্বর হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ইন্তেকাল করায় গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।
সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান বেগম সেলিমা রহমান, শওকত মাহমুদ, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, সহ-দফতর সম্পাদক মুনির হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
দেশরির্পোট/রবিন


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন