বিনোদন

মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগী লাবণী বিবাহিত এবং কি?

মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে সেরা দশে উঠে এসেছিলেন আফরিন সুলতানা লাবণী। হঠাৎ করেই মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে তার বিয়ের কাবিননামা।অথচ এ প্রতিযোগিতায় বিয়ে ও ডিভোর্সের তথ্য গোপন করেছেন তিনি। এমনকি প্রতিযোগিতা শেষে ০৯ অক্টোবর একটি লাইভ অনুষ্ঠানে এসে বিয়ের কথা অস্বীকার করেছিলেন লাবণী। ওই অনুষ্ঠানে লাবনী ছাড়াও ছিলেন আরো দুই সুন্দরী শিরিন শীলা এবং মনজিরা তিশা। তথ্য দেখা গেছে, ২০১৪ সালের ১৮ আগস্ট বিয়ে করেছিলেন লাবনী। স্বামী জামালপুর সদর বাগেরহাটা কলেজ রোডের বাসিন্দা আতাউর রহমান আতিক। অবশ্য ২০১৬ সালের ১৭ মে মাসে ডিভোর্স হয়ে গেছে তাদের।

এদিকে আবার জানা গেছে, লাবণী চুরির দায়ে জেলও খেটেছেন। তার নামে দুটি চুরির মামলাও হয়। ওই মামলার এখনও কোনো নিষ্পত্তি হয়নি। মামলাটি করেছিলেন আতিকই। আফরিন সুলতানা লাবণী অবশ্য বিজয়ী না হয়েও আলোচনায় এসেছিলেন বিচারকের করা প্রশ্নের হাস্যকর উত্তর দিয়ে।

খোজ নিয়ে জানা গেছে মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগী লাবণীর স্বামী আতাউর রহমান আতিক জামালপুর সদর বাগেরহাটা কলেজ রোডের বাসিন্দা। ব্যবসার পাশাপাশি কয়েকটি মিউজিক ভিডিওতেও মডেল হয়েছেন তিনি। জামালপুর কোর্টে গিয়ে ২০১৪ সালের ১৮ আগস্ট বিয়ে করেছিলেন তারা। দুই বছর সংসার করার পর ২০১৬ সালের ১৭ মে ডিভোর্স হয় তাদের।

এদিকে স্বামীর বক্তব্য, ২০১২ সালের শেষের দিকে আমাদের চেনা জানা শুরু হয়। এরপর প্রেম। তখন আমি ঢাকাতেই থাকতাম। ভালোবেসে বিয়ে করেছিলাম। কিন্তু সে ভালোবাসার মর্যাদা দেয়নি। ওর মায়ের চিকিৎসা আর ওর পিছনে অনেক টাকা ব্যয় করেছি। চকবাজারে সামসুল হক টাওয়ারে ওর নামে (আফরিন এস এল এন্টারপ্রাইজ) আমার দুটি দোকান ছিল; যা এখন নেই। সে আমার অনেক টাকা নিয়ে ভেগে যায়। ওর নামে চুরির মামলাও করেছি। মামলার এখন চার্জশিট হচ্ছে।

 

 


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন