প্রবাসসারাবিশ্ব

‘পারমানবিক অস্ত্রের নির্মূলই হতে পারে ব্যবহার বন্ধের নিশ্চয়তা’

বাংলাদেশ মনে করে পারমানবিক অস্ত্রের সম্পূর্ণ নির্মূলই হতে পারে এর ব্যবহার বন্ধের একমাত্র পূর্ণ নিশ্চয়তা। সুদূরপ্রসারী এই লক্ষ্য অর্জনের উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ এবছর ৭ জুলাই গৃহীত পারমানবিক অস্ত্র-নিরোধ চুক্তি সমর্থন করেছে এবং সদস্য রাষ্ট্রসমূহের মধ্যে প্রথম গ্রুপে থেকে গত সপ্তাহে এ চুক্তি স্বাক্ষর করেছে’- গতকাল মঙ্গলবার জাতিসংঘ সদর দফতরে ‘পারমানবিক অস্ত্রের সম্পূর্ণ নির্মূলের জন্য পালিত আন্তর্জাতিক দিবস’ এর স্মরণ ও প্রচারের লক্ষ্যে গৃহীত জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের উচ্চ পর্যায়ের প্লেনারি সভায় একথা বলেছেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন।
এ প্রসঙ্গে রাষ্ট্রদূত মাসুদ ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বরে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ক উচ্চ পর্যায়ের একটি সভায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রদত্ত বক্তৃতার উদ্ধৃতি দেন। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, বাংলাদেশ বিশ্বাস করে যে পরমাণু অস্ত্র চূড়ান্ত নিরাপত্তা ও শান্তি নিশ্চিত করতে পারে না। অন্যদিকে, এই নিশ্চয়তা প্রদান সম্ভব যদি শিক্ষা, আর্থ-সামাজিক অগ্রগতি ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ সংরক্ষণের মাধ্যমে জনগণকে ক্ষমতায়িত করা যায় এবং শান্তি অর্জনে মানুষের সামর্থ্যকে ব্যবহার করা যায়। কোন সন্দেহ নেই শান্তিকে সুরক্ষিত রাখার এসকল কাজে আমাদেরকে বিনিয়োগ করতে হবে কিন্তু আমরা নিশ্চিত বলতে পারি, এটি পারমানবিক অস্ত্র তৈরি এবং তা দিয়ে যুদ্ধ করার জন্য যে মূল্য দিতে হয় তা তার চেয়ে কম।’
জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের প্রস্তাব ৭০/৩০ অনুযায়ী পারমানবিক নিরস্ত্রীকরণের উপর সামগ্রিক আলোচনার জন্য ২০১৮ সালের মধ্যেই জাতিসংঘের উচ্চপর্যায়ের একটি সম্মেলন আহ্বানের বিষয়টিকে বাংলাদেশ সমর্থন করে মর্মে তিনি তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন