সারাদেশ

বড়াইগ্রামের সড়কে ঝুঁকি নিয়ে চলছে যানবাহন, ঘটছে দুর্ঘটনা

নাটোরের বড়াইগ্রামের কয়েন বাজার থেকে নগর পর্যন্ত সড়কটির বেহাল অবস্থার কারণে বর্তমানে যান চলাচল ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। এতে জোনাইল ও নগর ইউনিয়নের বাসিন্দারা জেলা ও উপজেলা সদরের সঙ্গে যোগাযোগসহ স্বাভাবিক চলাচলে প্রতিনিয়িত ব্যাপক দুর্ভোগের সম্মুখীন হচ্ছেন।

এলাকাবাসী জানান, দীর্ঘদিন থেকে সড়কটি মেরামতের অপেক্ষার পর অবশেষে গত বছর স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর নাটোর-পাবনা মহাসড়কের কয়েন বাজার থেকে নগর বাজার পর্যন্ত প্রায় ৮ কিমি. রাস্তাটি সংস্কার করে।

কিন্তু চলতি বছরের প্রথম কয়েক মাস এ রাস্তা দিয়ে ১০ চাকাবিশিষ্ট ড্রাম ট্রাক দিয়ে মাটি নেয়ার ফলে রাস্তার অধিকাংশ জায়গা দেবে যাওয়াসহ বিভিন্ন স্থানে দেড় থেকে দুই ফুট গভীর অজস্র গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। সামান্য বৃষ্টিতেই এসব খানাখন্দ ভরে গিয়ে কাদাপানিতে রাস্তায় চলাচল করা দায় হয়ে পড়ে। গর্তে পড়ে ট্রাক-বাস ও সিএনজিচালিত থ্রি-হইলারের মূল্যবান যন্ত্রাংশ নষ্ট হয়ে যায়। প্রায়ই নানা দুর্ঘটনাসহ ভাঙা রাস্তায় যানবাহনের চাকা আটকে রাস্তা বন্ধ হয়ে যায়।

এছাড়া নগর ও কয়েন বাজার ছাড়াও পাট ও রসুন বেচাকেনার জন্য দ্বাড়িখৈড় সাহেব বাজার একটি প্রসিদ্ধ হাট। রাস্তার দুরবস্থার কারণে এসব হাটে পাটসহ অন্যান্য পণ্য কেনাবেচা করতে আসা মানুষদের দুর্ভোগের সীমা থাকে না। এ রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন শত শত শিক্ষার্থী বনপাড়া ডিগ্রি কলেজ, খলিসাডাঙ্গা কলেজ, নগর উচ্চবিদ্যালয়, পাঁচবাড়িয়া উচ্চবিদ্যালয়, পাঁচবাড়িয়া বালিকা উচ্চবিদ্যালয় ও ধানাইদহ ফাজিল মাদ্রাসায় লেখাপড়া করতে যায়।

ভাঙা রাস্তায় ভ্যান-ভটভটি উল্টে প্রায়ই শিক্ষার্থীদের কাপড়-চোপড় ও বই-খাতা নষ্ট হওয়াসহ আহত হওয়ার ঘটনা ঘটে বলে জানান স্থানীয়রা। উপজেলা প্রকৌশলী আহসান হাবীব জানান, ধারণক্ষমতার চেয়ে অধিক লোডসম্পন্ন গাড়ি চলায় সংস্কারের অল্প দিনের মধ্যে রাস্তা ভেঙে গেছে। রাস্তাটি পুনরায় সংস্কার করা খুবই জরুরি। বরাদ্দ পেলে কাজ করা হবে।

 

দেশরির্পোট/সজল

 


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন