সারাদেশ

সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে নিখোঁজের তিনদিন পর উদ্ধার

পাবনার সুজানগর উপজেলার দুলাই উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে নিখোঁজের তিনদিন পর উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার রাতে রাজবাড়ির পাংশা থেকে ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে সাঁথিয়া উপজেলার আতাইকুলা থানা পুলিশ।

তবে ভুক্তভোগী পরিবারের দাবি নিখোঁজ ওই স্কুল ছাত্রীকে অপহরণ করা হয়েছিল। এ বিষয়ে ওহাব (৬০) নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ। এর আগে গত ৩ নভেম্বর দুপুরে স্থানীয় দুলাই বাজার থেকে তাকে অপহরণ করা হয়ে বলে জানায় পুলিশ।

আতাইকুলা থানার তদন্ত বিভাগের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলাম জানান, পাবনার সুজানগর উপজেলার দুলাই উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী আরিয়া আনোয়ার লিনজাকে (১৩) গত ৩ নভেম্বর দুপুরে দুলাই বাজার থেকে অপরহণ করা হয়। আতাইকুলা থানার লক্ষ্মীপুর গ্রামের ওহাবের ছেলে মাসুম (১৯) সহযোগিদের সঙ্গে নিয়ে ওই ছাত্রীকে অপহরণ করে।

ওসি আরও জানান, ৫ নভেম্বর লিনজার বাবা আনোয়ার হোসেন বাদী হয়ে সুজানগর থানায় অপহরণ মামলা করেন। যার নম্বর ৭। পরে আমাদের কাছে মামলার বিষয়ে অবগত করলে আতাইকুলা থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে সোমবার রাতে রাজবাড়ির পাংশা থেকে লিনজাকে উদ্ধার করে। এ সময় অপহরণে সহযোগিতার অভিযোগে মাসুমের বাবা ওহাবকে (৬০) আটক করে পুলিশ। আটককৃতকে আজ মঙ্গলবার পাবনা আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

এ বিষয়ে অপহৃত ছাত্রীর বাবা বলেন, ‘কীভাবে তার সঙ্গে পরিচয় হয়েছে আমার জানা নেই। কিন্তু আমার মেয়ে অপহরণের পর থানায় মামলা করলে, মোবাইলের সূত্র ধরে মেয়েকে উদ্ধার করে পুলিশ।

সুজানগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শরীফুল ইসলাম বলেন, ‘অপহণের মামলা হয়েছে। অপহৃতকে উদ্ধার করা হয়েছে। প্রধান আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

 

 

দেশরির্পোট/অাকিব


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন