খেলা

মেসিহীন বার্সা ড্র করেও নকআউটে

বি-গ্রুপে ইন্টার মিলানের বিপক্ষে ১-১ গোলে ড্র করেও জয় পেয়েছে স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনা। জয়টি চ্যাম্পিয়নস লিগের নকআউট পর্বে ওঠার। জয়ের দোড়গোড়ায় থেকেও ড্র করে সবার আগে দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলা নিশ্চিত করেছে মেসিহীন বার্সা। অবশ্য এ ম্যাচে জয়ের কাণ্ডারী ছিলেন ডেম্বেলেদের কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দে।

চ্যাম্পিয়নস লিগের নকআউট পর্বে খেলার আগে বার্সা ও ইন্টার মিলান খেলে ক্যাম্প ন্যুতে। গতমাসের ম্যাচটিতে ২-০ গোলে জয় পায় বার্সা। গতকাল মঙ্গলবার সান সিরো স্টেডিয়ামে একই আত্মবিশ্বাস নিয়ে মাঠে নামে কোতিনহোরা। মেসি না থাকলেও সুয়ারেজ পিকেদের নিয়ে জোরকদমেই শুরু করে বার্সা।

ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই গোলের সুযোগ পায় বার্সা। কিন্তু উসমান ডেম্বেলের দূরপাল্লার শট রুখে দেন মিলানের গোলরক্ষক। কর্ণার পেলেও গোলের দেখা পায়নি বার্সা। পরের আট মিনিটে লুইস সুয়ারেজের দ্রুতগতির একটি শট মিলানের ক্রসবার ঘেঁষে চলে যায়। বাকি সময়টা গত ৫ বছরের ইতিহাসেও দেখা যায়নি বার্সার।

ছন্দহীন একটি ম্যাচের সবটুকুই ছিল বার্সা-মিলানের প্রথমার্ধে। ইন্টার মিলানের খেলোয়াড়রা পরিচিত দ্রুত খেলার অভিজ্ঞতার কারণে। তবে গতকাল তারা খেলেছে পুরো উল্টো। একটা খাপছাড়া ম্যাচ দেখছিল সমর্থকরা। আক্রমণ পাল্টা আক্রমণ তো ছিল। কিন্তু নজরকাড়া খেলার ধাঁচ ছিল না।

রক্ষণাত্মক ফুটবল খেলেই গোলশূন্য ড্র নিয়ে বিরতিতে যায় দুদল। দ্বিতীয়ার্ধে চেনা বার্সাকে দেখা যায় মাঠে। দারুণ সব আক্রমণে মিলানের প্রাচীর ভেঙে গোলের চেষ্টা করছিলেন কোতিনহোরা। ক্রোয়েশিয়ার তারকা খেলোয়াড় ইভান রাকিতিচ সুযোগ পান ম্যাচের ৬০ মিনিটে। কিন্তু দারুণ সুযোগ নিদারুণ ভাবে নষ্ট করেন তিনি।

৮১ মিনিটে ডেম্বেলেকে বসিয়ে ম্যালকমকে নামান কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দে। আস্থার প্রতিদান দিতে বিলম্ব করেননি ভালভার্দে। ফিলিপ কোতিনহোর বাড়ানো বল ধরে ডি-বক্সে ঢুকে মিলানের ডিফেন্ডারের বাঁ পাশ দিয়ে শট নেন। মুহুর্তেই স্টেডিয়ামের কাতালান অংশে উল্লাস। মনে হচ্ছিল, পুরো পয়েন্ট নিয়েই মাঠ ছাড়বে টিম বার্সা।

তা-ই হতো যদি না আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড মাউরো ইকার্দি মিলানের ত্রাতা হয়ে না আসতেন। ম্যাচের ৮৭ মিনিটে তার বিদ্যুৎগতির একটি শট জায়গা নেয় বার্সার জালে। ৮১ থেকে ৮৬, মাত্র পাঁচ মিনিট স্থায়ী হয়ে বার্সার আনন্দ।

শেষতক ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে দুদল। তবে ড্র করলেও জয় পেয়েছে বার্সেলোনাই। কারণ চ্যাম্পিয়নস লিগে সবার আগে নকআউট পর্বে ওঠার জয়টি তারাই উদযাপন করছে সবার আগে। ৪ ম্যাচে ৩ জয় ও ১ ড্রয়ে ১০ পয়েন্ট নিয়ে এ গ্রুপে শীর্ষে আছে বার্সেলোনা। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইন্টার মিলানের পয়েন্ট ৭।

 

দেশরির্পোট/অাকিব


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন