বিনোদন

২০১৮ সালে মঞ্চে আসা আলোচিত ১৮ নাটক

২০১৮-জুড়ে অর্ধশতাধিক নতুন নাটকের পাশাপাশি প্রথমসারির অনেক থিয়েটার দলের বেশকিছু জনপ্রিয় ও সাড়া জাগানো পুরনো নাটক পুনর্নির্মাণের মধ্য দিয়ে মঞ্চকে আলোকিত করেছে। আর মধ্যমসারির অনেক নাট্যসংগঠন নতুন প্রযোজনা মঞ্চে আনলেও অধিকাংশ নাটকই দর্শকহৃদয়কে অতোটা ছুঁতে পারেনি। যদিও নতুন নাটকের পাশাপাশি আগের বছরের তুলনায় এবার দর্শকও কিছুটা বেড়েছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। সবকিছু মিলিয়ে পুরো বছরটা সাংস্কৃতিক অঙ্গনের জন্য ছিল ইতিবাচক। ২০১৮ সালের শুরুটাই হয়েছিল নতুন নাটকের শুভযাত্রায়। অবশ্য, সব নাটক যে যথার্থ শিল্পমান বজায় রাখতে পেরেছে তা কিন্তু নয়। তবে নাটকের বিষয় বৈচিত্র্যতা, উপস্থাপনায় নতুনত্ব এবং সমসাময়িক আবেদনের দিক থেকে বেশ কিছু নাটক দর্শকদের মধ্যে বেশ সাড়া ফেলেছে। তেমনি ২০১৮ সালের আলোচিত ১৮টি নতুন নাটক নিয়ে আমাদের এই বিশেষ আয়োজন।

১.

ঢাকা পদাতিকের ‘ট্রায়াল অব সূর্য সেন’

৪ ফেব্রুয়ারি রবিবার ছিল নতুন নাটক ‘ট্রায়াল অব সূর্য সেন’-এর উদ্বোধনী প্রদর্শনী। ঢাকা পদাতিকের ৩৮তম এই প্রযোজনাটি রচনা ও নির্দেশনায় রয়েছেন মাসুম আজিজ। বৃটিশবিরোধী আন্দোলনের সংগ্রামী সূর্য সেনের বিচারকে বিষয়বস্তু করে নাটকটি আবৃত। নাটকের মূল চরিত্র হিসেবে দেখা যাবে সূর্যসেন, প্রীতিলতা, কল্পনা দত্ত, অম্বিকা চক্রবর্তী, লোকনাথ বল ও নির্মল সেনের মতো ঐতিহাসিক ব্যক্তিদের।

২.

নান্দীমুখের ‘আমার আমি’

চট্টগ্রামের স্বনামধন্য নাট্য সংগঠন নান্দীমুখের অন্যতম আলোচিত প্রযোজনা ‘আমার আমি’ মঞ্চে আসে এ বছরের ১১ ফেব্রুয়ারি। নাটকটি রচনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগের প্রধান অসীম দাশ। এতে প্রাণবন্ত একক অভিনয়ে দর্শকদের মুগ্ধ করে চলছেন দীপ্তা রক্ষিত। নতুনত্ব এবং ব্যতিক্রমী উপস্থাপনার জন্য শুরু থেকেই দর্শক-সমালোচকদের মাঝে নাটকটি বেশ সাড়া ফেলে। শুধু চট্টগ্রামেই নয় ঢাকার দর্শকদের কাছেও নাটকটি ব্যাপক সমাদৃত হয়েছে। বাংলা রঙ্গালয়ের প্রবাদ প্রতিম অভিনেত্রী শ্রীমতী বিনোদিনী দাসীর আত্মজীবনী নিয়েই এই নাট্যের কাহিনি বিন্যাস।

৩.

থিয়েটারের ‘দ্রৌপদী পরম্পরা’

মহাভারতের দ্রৌপদী চরিত্রকে অবলম্বন করে নতুন নাটক ‘দ্রৌপদী পরম্পরা’র মধ্য দিয়ে নারীবাদী ভাবনায় সময়ের মুখোমুখি হয়েছে নাট্যদল থিয়েটার (আরামবাগ)। যেখানে নাট্যকার-নির্দেশক প্রশ্নবিদ্ধ করেছেন আজকের মানবতা, সমাজ-সংস্কৃতি, ধর্ম ও রাষ্ট্রনীতিকে। গত ২৫ ফেব্রুয়ারি উদ্বোধনীর মধ্য দিয়ে মঞ্চের পাদপ্রদীপের আলোয়ে দর্শকদের সামনে আসে নাটকটি। রচনার পাশাপাশি এ নাটকটি নির্দেশনা দিয়েছেন তরুণ নাট্যপ্রতিভা প্রবীর দত্ত। মহাভারতের ছায়া অবলম্বনে ‘দ্রৌপদী পরম্পরা’ নাটকে গল্প আবর্তিত। মহাভারতের সময়ের ঘটনায় তাকে যেভাবে নিগৃহীত হতে হয়েছে সেই চিত্র উন্মোচনের চেষ্টা করা হয়েছে এ নাটকে।

৪.

পালাকার মঞ্চে আনে ‘উজানে মৃত্যু’

তবে হতাশায় জীবন শেষ করা নয়, সংগ্রামের মাধ্যমে সুখ খুঁজে নেয়াতেই জীবনের সার্থকতা। এমনি বক্তব্যকে উপজীব্য করে গত ১৬ মার্চ মঞ্চে আসে পালাকার নাট্যদলের ১৩তম স্টুডিও প্রযোজনা ‘উজানে মৃত্যু’। নাটকটিতে উঠে এসেছে মানব জীবনের সৌন্দর্যের পাশাপাশি অনিশ্চয়তার নানা দিক, তুলে ধরা হয়েছে হতাশার না বলা গল্পও। সৈয়দ ওয়ালীউল্লাহ রচিত এ নাটকের নির্দেশনা দিয়েছেন শামীম সাগর। মানুষের অবচেতন মনের যে বিচিত্র ধারা যা সহজে চোখে না পড়লেও বাস্তব সত্য সেসব বিষয় তুলে আনা হয়েছে এ নাটকে।

৫.

নাগরিকের ‘ওপেন কাপল’

নাটকসরণি মহিলা সমিতি মঞ্চে ‘ওপেন কাপল’ নামে নতুন নাটক প্রদর্শনীর মাধ্যমে ১৫ এপ্রিল শেষ হয় নাগরিক নাট্য সম্প্রদায়ের তিন দিনব্যাপী সুবর্ণজয়ন্তী উৎসব। ইতালির দম্পতি দারিও ফো ও তাঁর স্ত্রী ফ্রানকা রামের লেখা এ নাটকটি রূপান্তরের পাশাপাশি নির্দেশনা দিয়েছেন সারা যাকের। এতে অভিনয় করেছেন জিয়াউল হাসান কিসলু ও সারা যাকের।

৬.

মঞ্চে ‘হাছনজানের রাজা’

নাট্যদল প্রাঙ্গণেমোর এবার মঞ্চে নিয়ে এসেছে মরমি গীতিকবি হাছন রাজাকে নিয়ে নতুন নাটক ‘হাছনজানের রাজা’। শাকুর মজিদের লেখা এ নাটকটি নির্দেশনা দিয়েছেন অনন্ত হিরা। গত ২০ এপ্রিল শিল্পকলার জাতীয় নাট্যশালায় ছিল নাটকটির উদ্বোধনী মঞ্চায়ন। হাসন রাজার কত কত গান! কত গল্প। কত বর্ণিল-বৈচিত্র্যময় ঘটনাবহুল তাঁর জীবন। তিনি ছিলেন সামন্তপ্রভু। সব ছেড়ে-ছুড়ে শেষ বয়সে হয়ে গেলেন মরমি সাধক, গীতিকবি। এসব মর্মগাঁথা নিয়ে গান-সংলাপ-আলো-ছায়ায় গড়ে উঠেছে ‘হাছনজানের রাজা’।

৭.

মঞ্চে ‘দ্য আলকেমিস্ট’

লক্ষ্যে পৌঁছাতে সংগ্রামী দুরন্ত এক তরুণের গল্প ‘দ্য আলকেমিস্ট’। ব্রাজিলের ঔপন্যাসিক পাওলো কোয়েলহোর বিখ্যাত এই উপন্যাস অবলম্বনে রচিত এ নাটকটির উদ্বোধনী প্রদর্শনী ছিল গত ২১ এপ্রিল সন্ধ্যায়। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের বিভাগের শিক্ষার্থীদের অভিনয়ে প্রযোজনাটির নাট্যরূপ ও নির্দেশনা দিয়েছেন রেজা আরিফ।

৮.

নতুন দলের নতুন নাটক ‘রুধির রঙ্গিণী’

নতুন রেপার্টরি নাট্যদল ‘হৃৎমঞ্চ’। দলটির প্রথম প্রযোজনা হিসেবে মঞ্চে এনেছে নাটক ‘রুধিররঙ্গিণী’। জাতীয় নাট্যশালার এক্সপেরিমেন্টাল থিয়েটার হলে নাটকটির উদ্বোধনী মঞ্চায়ন হয় গত ১৫ মে। রুধি অর্থ রক্ত আর রঙ্গিণী শব্দটি স্ত্রীবাচক অর্থে বুঝায় রঙ্গকারীকে। যার পূর্ণ অর্থ দাঁড়ায় রক্ত নিয়ে যে রঙ্গ করে অর্থাৎ জীবন নিয়ে খেলে যে নারী। একটি ভাগ্যবিড়ম্বিত মেয়ের জীবন নিয়েই আবর্তিত হয়েছে নাটকটির গল্প। শুভাশিস সিনহার রচনা ও নির্দেশনায় এতে অভিনয় করেছেন তিন প্রজন্মের তিন গুণী অভিনয়শিল্পী রোকেয়া রফিক বেবী, আবুল কালাম আজাদ ও জ্যোতি সিনহা।

৯.

সংস্কারের ‘ভুল স্বর্গ’ ও ‘মহাপতঙ্গ’

সক্রিয় নাট্যচর্চার ধারাবাহিকতায় একই সাথে ভিন্ন ধারার দুই নাটক নিয়ে মঞ্চে এসেছে প্রতিশ্রুতিশীল থিয়েটার সংগঠন সংস্কার নাট্যদল। ২৩ জুলাই সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় জাতীয় নাট্যশালার এক্সপেরিমেন্টাল হলে ছিল এই যুগল নাটক ‘ভুল স্বর্গ’ ও ‘মহাপতঙ্গ’র উদ্বোধনী মঞ্চায়ন। কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘ভুল স্বর্গ’ নাটকটির নব-নাট্যরূপ ও নির্দেশনা দিয়েছেন অধ্যাপক ড. ইউসুফ হাসান অর্ক। অপরদিকে, আবু ইসহাক রচিত নাটক ‘মহাপতঙ্গ’-কে নাট্যরূপ দিয়েছেন ড. রুবাইয়াৎ আহমেদ এবং নাটকটি নির্দেশনায় রয়েছেন হাবিব মাসুদ।

১০.

শোক আখ্যান ‘শ্রাবণ ট্র্যাজেডি’

ঢাকার মঞ্চে এবছরও নতুন নাটক এনেছে মহাকাল নাট্য সম্প্রদায়। ১৪ আগস্ট সন্ধ্যায় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালায় ছিল দলটির শোকআখ্যান ‘শ্রাবণ ট্র্যাজেডি’র উদ্বোধনী মঞ্চায়ন। মহাকালের ৪০তম এ নাট্য প্রযোজনাটি লিখেছেন আনন জামান এবং নির্দেশনা দিয়েছেন অধ্যাপক আশিক রহমান লিয়ন। ১৯৭১ সালের ১৫ই আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তার পরিবার-পরিজনদের সুপরিকল্পিতভাবে নৃশংস হত্যাকাণ্ডের অজানা সত্য উদ্ঘাটনে গবেষণালব্ধ নাটক ‘শ্রাবণ ট্র্যাজেডি’। মহান নেতার হত্যাকারী রাজনৈতিক ও সামরিক বেনিয়া আর খুনিদের মুখোশ উন্মোচনের মধ্য দিয়ে নতুন প্রজন্মকে সতর্ক করা এবং সেসব খুনি ও তাদের অনুসারীদের ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করার বার্তা জানানোর প্রয়াসে নির্মিত হয়েছে নাটকটি।

১১.

এবারও সাড়া জাগালো ‘গ্যালিলিও’

দীর্ঘ দুই দশক পর আবারও মঞ্চে এসেছে নাগরিক নাট্য সম্প্রদায় প্রযোজিত সাড়া জাগানো নাটক ‘গ্যালিলিও’। গত ৫ অক্টোবর সন্ধ্যায় নাটকসরণির মহিলা সমিতি মিলনায়তনে বিশেষ প্রদর্শনীর মধ্যদিয়ে নাট্যজন আলী যাকের ও আসাদুজ্জামান নূর আবারও মঞ্চাভিনয়ে ফিরলেন। প্রায় তিন দশক আগে নাগরিক নাট্য সম্প্রদায় ‘গ্যালিলিও’ নাটকটি প্রদর্শনী শুরু করে দশ বছরের মত নিয়মিত প্রদর্শনী করে। ব্রেটল ব্রেখটের ‘দ্য লাইফ অব গ্যালিলিও গ্যালিলি’ অবলম্বনে নাটকটির অনুবাদ ও নাট্যরূপ দিয়েছেন অধ্যাপক আবদুস সেলিম। তখন মঞ্চসারথি আতাউর রহমান নাটকটির নির্দেশনা দিলেও এবার নব রূপায়নসহ ‘গ্যালিলিও’ নির্দেশনা দিয়েছেন পান্থ শহারিয়ার। এ যাত্রায়ও নাটকটি সর্বস্তরের দর্শকদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলে।

১২.

ঢাবি’র এক্সপেরিমেন্টাল ‘ম্যাকবেথ’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের থিয়েটার এন্ড পারফরর্মিং স্টাডিজ বিভাগ এবছর মঞ্চে এনেছে নতুন নাটক ‘ম্যাকবেথ’। সৈয়দ শামসুল হকের অনুবাদে উইলিয়াম শেক্সপীয়রের বিখ্যাত এ নাটকটি নির্দেশনা দিয়েছেন ড. ইসরাফিল শাহীন। গত ৯ অক্টোবর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নাটমণ্ডলে ছিল নাটকটির উদ্বোধনী মঞ্চায়ন। এতে অভিনয় করেছে বিভাগের এমএ সমাপনী সেমিস্টারের শিক্ষার্থীরা। কর্ম ও মর্ম-এ দুয়ের সংঘর্ষই যেন ম্যাকবেথ। এই সংঘর্ষই যেন মানুষের নিয়তি। এই নিয়তি থেকে কি আমাদের নিস্তার নেই?- এসব প্রশ্ন-উত্তর খোঁজা হয়েছে এই নাটকে।

১৩.

পত্রমিতালির ব্যতিক্রমী নাটক ‘ডিয়ার লায়ার’

জাতীয় নাট্যশালার স্টুডিও থিয়েটার হলে গত ১৮ অক্টোবর ছিল নাট্যমের ষষ্ঠ প্রযোজনা ‘ডিয়ার লায়ার’-এর উদ্বোধনী প্রদর্শনী। এই নাটকের মধ্য দিয়ে বহু বছর পর চিঠির মাধ্যমে প্রেম চালাচালির এক অনবদ্য আখ্যানের আবির্ভাব ঘটেছে ঢাকার মঞ্চে। মঞ্চসারথি আতাউর রহমান ও জনপ্রিয় নাট্যাভিনেত্রী অপি করিমের প্রাণবন্ত রসায়নে চিঠিকাব্যের এই পুণরাবৃত্তি করেছে পেশাদারী মনোভাবনায় গড়া থিয়েটার সংগঠন নাট্যম। ব্যতিক্রমী উপস্থাপনার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের মঞ্চে পাঠ অভিনয়ের নবতর এই সংযোজন ঘটিয়েছেন নাট্যনির্দেশক আইরিন পারভিন লোপা। মার্কিন লেখক জেরোম টিমোথি কিল্টির লেখাটি বাংলায় অনুবাদ করেছেন আবদুস সেলিম।

১৪.

তীরন্দাজ নাট্যদলের ‘রক্তঋণ’

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নৃশংস হত্যাকাণ্ড, হত্যাপরবর্তী নানা ষড়যন্ত্র, বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবার নিয়ে ঘাতকদের ছড়ানো মিথ্যা, কুরুচিপূর্ণ প্রোপাগাণ্ডা, সারাদেশে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের বিরুদ্ধে সংগঠিত নানা কর্মকাণ্ড, গারো পাহাড়ে গড়ে ওঠা সশস্ত্র আন্দোলন এবং তৎকালীন শাসকগোষ্ঠীর নির্মম নির্যাতন, দমন-পীড়ন নিয়ে ঢাকার মঞ্চে যুক্ত হয় নাটক ‘রক্তঋণ’। ১৬ নভেম্বর জাতীয় নাট্যশালার মূল হলে ছিল শাহীন রেজা রাসেল রচিত এবং কাজী রাকীব নির্দেশিত এ নাটকটির উদ্বোধনী মঞ্চায়ন। এটি তীরন্দাজ নাট্যদলের ৫ম প্রযোজনা।

১৫.

বাঙালির শেকড়ের আখ্যান প্রত্ননাটক ‘মহাস্থান’

বহু জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে গত ২৩ নভেম্বর সন্ধ্যায় বগুড়ার মহাস্থানগড়ে প্রায় ১৫ হাজার দর্শকের উপস্থিতিতে মঞ্চস্থ হয় বহুল প্রতীক্ষিত প্রত্ননাটক ‘মহাস্থান’। বাংলাদেশ শিল্পকলা একডেমি প্রযোজিত এ প্রত্ননাটকটির সার্বিক পরিকল্পনা ও নির্দেশনা দিয়েছেন নাট্যজন ও একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। ড. সেলিম মোজাহার রচিত দুই ঘণ্টা ব্যাপ্তির এই নাটকে উঠে এসেছে বাঙালি জাতিসত্তার আড়াই হাজার বছরের ইতিহাস। জাতির কীর্তি, কৃষ্টি ও সভ্যতার ইতিহাস তুলে ধরেন প্রায় চার শতাধিক শিল্পী। মহাস্থানগড়ের প্রাচীন ইতিহাসের সঙ্গে সময়ের পরম্পরায় বাংলাদেশের মুক্তি সংগ্রাম পর্যন্ত সময়কালকে এক অনবদ্য দৃশ্যকাব্যে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।

১৬.

মঞ্চে ‘রহু চণ্ডালের হাড়’

সময়ের মেধাদীপ্ত নাট্যনির্দেশক রেজা আরিফ এবার নির্দেশনা দিচ্ছেন নতুন নাটক ‘রহু চণ্ডালের হাড়’। তারই নাট্যরূপায়নে অভিজিৎ সেনের বিখ্যাত এই উপন্যাসটিকে মঞ্চে নিয়ে আসে আরশিনগর। অভিজিৎ সেনের মূল উপন্যাস থেকে এর নাট্যরূপও দিয়েছেন তিনি। গত ২৮ ও ২৯ নভেম্বর রাজধানীর সেগুনবাগিচাস্থ জাতীয় নাট্যশালার পরীক্ষণ থিয়েটার মিলনায়তনে নাটকটির কারিগরি ও উদ্বোধনী মঞ্চায়ন অনুষ্ঠিত হয়। যাযাবর বাজিকরদের জীবনের প্রবহমান বাস্তবতা উঠে এসেছে নাটকটির গতিময় উপস্থাপনায়।

১৭.

উদীচীর পালানাট্য ‘বিয়াল্লিশের বিপ্লব’

বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী কেন্দ্রীয় নাটক বিভাগ এবার মঞ্চে এনেছে যাত্রাপালা। নাম ‘বিয়াল্লিশের বিপ্লব’। ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের প্রেক্ষাপট নিয়ে পালাটি লিখেছেন প্রসাদকৃষ্ণ ভট্টাচার্য্য এবং নির্দেশনা দিয়েছেন ভিক্টর ড্যানিয়েল। ১৯ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির এক্সপেরিমেন্টাল হলে ছিল পালাটির উদ্বোধনী মঞ্চায়ন। ১৯৪২ সাল ভারতবর্ষের স্বাধীনতা-সংগ্রামের ইতিহাসের এক রক্তাক্ত অধ্যায় উঠে এসেছে এই পালা-আখ্যানে।

১৮.

সেলিম আল দীনের নাটক ‘পুত্র’

নতুন আঙ্গিকে নাট্যাচার্য ড. সেলিম আল দীনের আলোচিত নাটক ‘পুত্র’ মঞ্চে এনেছে দেশের প্রথমসারির নাট্য সংগঠন ঢাকা থিয়েটার। ২১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় জাতীয় নাট্যশালার মূল হলে ছিল নাটকটির প্রথম মঞ্চায়ন। ঢালী আল মামুনের শিল্প নির্দেশনায় ‘পুত্র’ নাটকের নির্দেশনা দিয়েছেন মঞ্চকুসুম শিমুল ইউসুফ। ‘পুত্র’ সেলিম আল দীনের শেষ দিকের নাটক। এখানে সেলিম আল দীনের ব্যক্তিগত কিছু আবেগ-অনুভূতি শিল্পের গভীরতম রসায়নে উপস্থাপিত হয়েছে।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন