সারাদেশ

সকল বিভ্রান্তি কাটিয়ে কুলিয়ারচর উপজেলার নৌকার মাঝি ইয়াছির মিয়া

আসছে ২৪ শে মার্চ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কুলিয়ারচর উপজেলায় আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেলেন আলহাজ্ব ইয়াছির মিয়া। যদিও এর আগেই কিশোরগঞ্জ-৬ আসন ভৈরব- কুলিয়ারচরের মাননীয় সংসদ সদস্য নাজমুল হাসান পাপন ইয়াছির মিয়াকে দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করেছিলেন এবং আওয়ামীলীগের সভাপতি ইমতিয়াজ বিন জিসান, সাবেক সভাপতি আবুল হোসেন লিটন দলীয় নেতাকর্মীকে সাথে নিয়ে ইয়াছির মিয়ার নির্বাচনী প্রচারণা ও করেন।

গত কাল হঠাৎ  জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত হয় জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি সৈয়দ হাসান সারোয়ার মহসিন সাহেবের নাম। তাতেই উৎফুল্ল হয়ে ওঠে মহসিন সমর্থকরা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আজ দলীয় মনোনয়ন পত্র হাতে পান ইয়াছির মিয়া। কুলিয়ারচর এলাকা ঘুরে সাধারণ মানুষের সাথে কথা বলে জানা যায় বিভিন্ন তথ্য।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন মেম্বার এর সাথে কথা হলে তিনি জানায়, আমরা শুনে আসছি ইয়াছির মিয়া আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেয়েছে হঠাৎ কাল শুনি মহসিন সাহেব পেয়েছে। সাথে সাথেই এলাকায় উত্তাপ ছড়াতে শুরু করে মহসিন সমর্থীত এলাকার কিছু চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী এবং টাকায় কেনা অনুসারী। চলতে থাকে তাদের হুমকি দুমকি। ছিড়ে ফেলে ইয়াছির মিয়ার পোস্টার ব্যানার। একজন সাবেক মেম্বারকে শারীরিক ভাবে লাঞ্চিত করে তারা।

আতংকে পরে যায় এলাকাবাসি। শেষ পর্যন্ত ইয়াছির মিয়া মনোনয়ন পাওয়ায় কিছুটা স্বস্তিতে আছে এলাকা বাসি।

সৈয়দ হাসান সারোয়ার মহসিন বিদ্রোহী প্রাথী হবে কিনা বা তার সমর্থকদের দাঁড়া সাবেক মেম্বার শারীরিক ভাবে লাঞ্চিত হওয়ার ঘটনা জানার জন্য তার ফোনে কল করলে ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। দেখা যাক শেষ পর্যন্ত বিজয়ের মালা কার হয়। সে জন্য অপেক্ষায় কুলিয়ারচর বাসী।  অপেক্ষা ২৪ ই মার্চের জন্য।

 

জিএসপি/আরাফাত


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন