বিনোদন

নির্মাতা কৌশিকের বিরুদ্ধে গল্প চুরির অভিযোগ

গল্প চুরির অভিযোগ উঠেছে ভারতীয় নির্মাতা কৌশিক গাঙ্গুলীর বিরুদ্ধে। লেখক স্বপ্নময় চক্রবর্তী অভিযোগ এনেছেন, তার লেখা ‘হলদে গোলাপ’ অবলম্বনে কৌশিক তার নতুন সিনেমা ‘নগর কীর্তন’ নির্মাণ করেছেন। কিন্তু নির্মাণের আগে বা পরে তাকে এ বিষয়ে কিছুই জানানো হয়নি।

ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে বিষয়টি তুলে ধরেন স্বপ্নময়। তিনি লেখেন, কৌশিক বাবু একজন দক্ষ অভিনেতা এবং পরিচালক। নানা গুনে গুনবান, নীরব আহরণ চাতুর্য সমেত। আবুল বাশারের ‘নরম হৃদয়ের চিহ্ন’ উপন্যাসটি নীরবে নিয়ে ‘শূন্য এ বুকে’ ছবিটি বানিয়েছিলেন। এবার আমার ‘হলদে গোলাপ’-এর অবলম্বনে বানালেন ‘নগর কীর্তন’! দরকার হলে বাশারকে ফোন করে জেনে নিতে পারেন।

কৌশিকের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশ আলোচনার জন্ম দিয়েছে ‘নগর কীর্তন’ প্রসঙ্গ। অনেকে কৌশিকের পক্ষে, আবার অনেকে যুক্তি দিচ্ছেন লেখক স্বপ্নময় চক্রবর্তীর পক্ষে।

এ বিষয়ে কৌশিক বলেন,  আমি স্বপ্নময় চক্রবর্তীকে চিনি না। তবুও তাকে অনুরোধ করছি ছবিটা একবার দেখুন। আর কী বলব বলুন তো? হঠাৎ করে এমন মন্তব্য! আমি তার গল্প নিলে কপিরাইট নিয়ে নিতাম। ঋতুদার (ঋতুপর্ণ ঘোষ) ভাবনা নিয়েছি যখন সঙ্গে সঙ্গে জানিয়েছি। সারা জীবন পরিচালক নিজের গল্প নিয়ে কাজ করে গেল। ত্রিভুজ প্রেমে তৃতীয় চরিত্র থাকে, সেটাই কি চুরির বিষয়? আর যে পত্রিকায় তার গল্প ধারাবাহিক ভাবে প্রকাশ পেত সেই পত্রিকার সম্পাদক আজ ‘নগরকীর্তন’-এর সমালোচনা লিখেছেন। কই, সেখানে তো তেমন কিছুর উল্লেখ নেই?’

‘নগর কীর্তন’ এর যে গল্প তা কি সত্যিই ‘হলদে গোলাপ’ থেকে চুরি করা? জানতে চাইলে স্বপ্নময় বলেন, ‘আমি ছবিটা দেখিনি। আমি অবশ্য লিখে ফেলেছি, উনি আস্ত করেছেন। একবার দেখে নিই। বাশারের(কথাসাহিত্যিক আবুল বাশার) ঘটনাটাও উল্লেখ করেছি। বাশার বলেছে আমায়। এলজিবিটি নিয়ে কাজ করে এনজিও, তারা আমায় জানিয়েছে। তারা গল্পটাও পড়েছে। ছবিও দেখেছে। আরও কয়েকজন বলেছেন। তবে ছবিটা দেখে তবেই পুরো বিষয় নিয়ে বলতে পারব।’

শরীর ও শরীরের সমাজতত্ত্ব নিয়ে এক দুঃসাহসিক উপন্যাস স্বপ্নময় চক্রবর্তীর ‘হলদে গোলাপ’। ২০১২-১৩ সাল জুড়ে প্রয়াত ঋতুপর্ণ ঘোষ সম্পাদিত পত্রিকায় ধারাবাহিক ভাবে এটি প্রকাশিত হতো। এটা প্রকাশের পর বেশ পাঠকপ্রিয়তা পেয়েছিল।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন