সাহিত্য

গুণীজন সম্মাননা পেলেন মিজানুর রহমান মিথুন

লেখক ও সাংবাদিক মিজানুর রহমান মিথুন ‘আন্তজনপদ গুণীজন স্বীকৃতি ও সংবর্ধনা’ লাভ করেছেন। তার নিজ জেলা পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ার সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘আলহাজ্ব আজাহার শিকদার মোমোরিয়াল পাবলিক লাইব্রেরী এন্ড মুসলিম কালচারাল সেন্টার’ থেকে তাকে এ সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে।
গত ২৫ ফেব্রুয়ারি মিজানুর রহমান মিথুনের গ্রামের বাড়ি পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ার ১৩৯নং পশারীবুনিয়া শিকদারহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক অনুষ্ঠানে এ সম্মাননা প্রদান করা হয়েছে।
‘আন্তজনপদ গুণীজন স্বীকৃতি ও সংবর্ধনা’ প্রাপ্তিতে আনন্দ প্রকাশ করে মিজানুর রহমান মিথুন বলেন, ‘ব্যস্ততার কারণে আমি উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে সম্মাননা ক্রেস্ট গ্রহণ করতে যেতে পারিনি। এজন্য মনের ভেতর কিছুটা দুঃখবোধ আছে। পরে আমাকে ক্রেস্টটি ঢাকায় পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারলে ভালো লাগতো। সবার সঙ্গে দেখা হত, কথা হতো। এ সম্মাননা প্রাপ্তির আনন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত সবার সঙ্গে ভাগ করতে পারতাম।’
তিনি আরও বলেন, ‘‘লেখক’ হিসেবে জন্মভিটার প্রকৃতজনের কাছ থেকে এমন স্বীকৃতিপ্রাপ্তি আমার লেখালেখি জীবনের পথপরিক্রমায় আমাকে সীমাহীন তৃপ্তি এনে দিয়েছে। এতে অব্যক্ত খুশিতে আমি অশ্রুসিক্ত হয়েছি। আমি নিজেকে গর্বিত মনে করছি।’’
মিজানুর রহমান মিথুন ১৯৯৮ সালের ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস বাংলাদেশ বেতারের জাতীয় কবিতা প্রতিযোগিতায় প্রথম স্থান অর্জন করেন। এরপর থেকেই মূলত লেখালেখির শুরু। বাংলা একাডেমির তরুণ লেখক প্রশিক্ষণ কোর্স ২০১১ সালে তৃতীয় ব্যাচে লেখালেখি প্রশিক্ষণের সুযোগ লাভ করেছিলেন। মিথুন তার লেখা প্রথম বই, ‘যে ভূতটা বই পড়তে এসেছিল’র জন্য ছোটদের মেলা পুরস্কার লাভ করেন। তিনি বাংলা একাডেমির একজন সদস্য।
মিজানুর রহমান মিথুন জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) তৃতীয় থেকে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের জন্য দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা সম্পর্কিত ‘সাপলিমেন্টারি লার্নি ম্যাটেরিয়াল’ গল্প লেখক নির্বাচিত হয়েছেন। এর আগে তার লেখা ‘নতুন সপ্তাশ্চার্য’ বইটি কিন্ডার গার্টেন স্কুলে পঞ্চম এবং ষষ্ঠ শ্রেণির পাঠ্যভুক্ত হয়েছে। বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক এবং সাময়িকীতে নিয়মিত লিখছেন।
মিজানুর রহমান মিথুনের প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে ‘তিনি আমাদের জাতির পিতা’, ‘তোমাদের জন্য বঙ্গবন্ধু স্বপ্নজয়ী সেরা মানুষ’, ‘রাসেল তুমি ফিরে এসো’, ‘নতুন সপ্তাশ্চার্য’, ‘যুগে যুগে সপ্তাশ্চার্য’, ‘যে ভূতটা বই পড়তে এসেছিলো’, ‘ফার্স্ট গার্ল সেকেন্ড বয়’, ‘ফুল বালিকা’, ‘ট্যালেন্টপুল টমি’, ‘মিষ্টি মেয়ে টুকটুকি’, ‘বৃষ্টির সাথে দেখা’, ‘হৃদয়ে হৃদয়ে বঙ্গবন্ধু’, ‘ক্লাসের বাইরে একদল দুষ্টু’, ‘মেঘলা আকাশ’, ‘আমাদের পতাকা’, ‘ব্যাক বেঞ্চার’, ‘স্কুলের সাহসী ছেলেটি’, ‘তোমাদের জন্য জন্য বঙ্গবন্ধু স্বপ্নজয়ী সেরা মানুষ’।
মিজানুর রহমান মিথুন বাংলাদেশ বেতারের একজন তালিকাভুক্ত গীতিকার। তিনি নিয়মিত গানও লিখছেন। বর্তমানে তিনি দেশের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কম-এ সহ-সম্পাদক হিসেবে কর্মরত আছেন।
তাঁর প্রসঙ্গে সাহিত্যিক-সাংবাদিক দীপংকর দীপক বলেন, ‘মিজানুর রহমান মিথুন একজন নিভৃতচারী, স্বলভাষী ও শেকড় সন্ধানী লেখক। ব্যক্তি জীবনেও তিনি অত্যান্ত ধৈর্যশীল, সংগ্রামী, বন্ধুসুলভ ও পরোপকারী। তার এ সম্মাননা প্রাপ্তিতে তরুণ লেখক সমাজ দারুন খুশি। তার জীবনের উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করছি।’


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

Tags

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন