বিনোদন

`চলচ্চিত্র শিল্পের কোনো বিকল্প নেই’

আজ বুধবার, ৩ এপ্রিল বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে পালিত হচ্ছে জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস।এবারের চলচ্চিত্র দিবস উদযাপিত হচ্ছে দুই দিনব্যাপী। প্রথমদিনে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে চলচ্চিত্র দিবসের উদ্বোধন করেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

এসময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন তথ্য সচিব আব্দুল মালেক, বিএফডিসির ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক লক্ষন চন্দ্র দেবনাথ, চলচ্চিত্র দিবস উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমাম, কো চেয়ারম্যান নায়ক আলমগীর, ইলিয়াস কাঞ্চন, চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার, শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান, অভিনেত্রী রোজিনা, অঞ্জনাসহ আরও অনেকে।

বুধবার সকাল ১০টা ১৫ মিনিটে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বিএফডিসিতে আসেন। তাকে ফুল দিয়ে বরণ করেন চলচ্চিত্র উদযাপন কমিটির সদস্যরা। চলচ্চিত্র দিবসের উদ্বোধনের আগে তথ্যমন্ত্রী বিএফডিসিতে স্থাপিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

আনুষ্ঠানিকতা শেষে নিজের বক্তব্যে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, চলচ্চিত্র সমাজের ক্যানভাস পরিবর্তন করে দিতে পারে। মানুষকে হাসাতে পারে ও কাঁদাতে পারে। সমাজের দর্পণ হিসেবে কাজ করে। সমগ্র পৃথিবীতে চলচ্চিত্র শিল্পের কোনো বিকল্প নেই। চলচ্চিত্র শিল্পের বিকল্প টেলিভিশন, ইউটিউব, কিংবা নেটফ্লিক্সে চলচ্চিত্র দেখা নয়। চলচ্চিত্রের বিকল্প চলচ্চিত্র, অন্যকিছু হতে পারে না।

হাছান মাহমুদ বলেন, ১৯৫৭ সালের ৩ এপ্রিল জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তৎকালীন সরকারের মন্ত্রী হিসেবে প্রাদেশিক পরিষদে পূর্ব পাকিস্তান চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশন গঠনের লক্ষ্যে একটি বিল উত্থাপন করেন। বিলটি সেদিনই সংসদে পাস হয়েছিল। এর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে চলচ্চিত্রের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়। এজন্যই আজকের দিনটিকে জাতীয় চলচ্চিত্র দিবস উপলক্ষে আমরা উদযাপন করছি। জাতির জনকের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

তিনি আরো বলেন, বিএফডিসি আধুনিকায়নের জন্য বিভিন্ন প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে ৫৩ কোটি টাকা ব্যয়ে আধুনিক যন্ত্রপাতি আনা হয়েছে। এছাড়া ৩২২ কোটি টাকা ব্যয়ে বিএফডিসিতে অত্যাধুনিক একটি ভবন নির্মিত হচ্ছে। যেখানে সিনেপ্লেক্স থেকে শুরু করে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে চলচ্চিত্র নির্মাণের সুযোগ থাকবে।

এদিকে চোখ ধাঁধানো সাজসজ্জা আর চলচ্চিত্রের মানুষদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠেছে বিএফডিসি প্রাঙ্গণ। চলচ্চিত্র দিবসের প্রথমদিনের আয়োজনে থাকছে উদ্বোধন, শোভাযাত্রা ও আলোচনা। বৃহস্পতিবার (৪ এপ্রিল) বিকাল ৫টায় অনুষ্ঠিত হবে জমকালো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

প্রসঙ্গত, ২০১২ সালে প্রথম চলচ্চিত্র দিবস পালন শুরু হয়। সে হিসেবে এ বছর ৮ম বারের মতো পালিত হচ্ছে চলচ্চিত্র দিবস। এবারের দিবসের প্রতিপাদ্য- চলচ্চিত্র বাঁচলে, সংস্কৃতি বাঁচবে।

 


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন