বিনোদন

‘বৈশাখের মতো উৎসবে ঢালিউডে চলছে মন্দা হাওয়া’

বর্তমানে চলছে ঢালিউডে মন্দাবাজার হইতো বিচ্ছিন্ন কিছু সফলাতা। এই বছরের চলছে চতুর্থ মাস, এখনও কোন সুপারহিট ছবি নেই। ফেব্রুয়ারিতে মুক্তি পাওয়া ‘ফাগুন হাওয়ায়’-এর মধ্য দিয়ে ঢালিউড দর্শকরা কিছুটা হলমুখী হলেও সিনেমাটি আসলে কত টাকা ব্যবসা করেছে তা সঠিক কেউ জানে না। ঢালিউডে বক্সঅফিসের হিসেবটা না থাকায় প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের হিসেবটাই যেনো শেষ কথা। তবে ব্যবসায়িক হিসেবের বিষয়টি বাদ দিলে দর্শকদের হলমুখী করাটা ছিল ছবির মূল সফলতা।

এদিকে ‘যদি একদিন’ সিনেমাটি কিছুটা আলোচনায় আসে। যার অন্যতম কারণ কলকাতার জনপ্রিয় অভিনেত্রীর ঢালিউড সিনেমায় অভিষেক। অন্যদিকে সংগীতশিল্পী ও অভিনেতা তাহসান খানের প্রথম সিনেমা এটি। মোস্তফা কামাল রাজের নির্মিত চতুর্থ এই সিনেমাটির আলোচনায় আসার মূল কারণই সিনেমার নায়ক-নায়িকা। ব্যবসায়িক দিকে থেকে অসন্তোষজনক অবস্থায় রয়েছে সিনেমাটি। এ দুটি সিনেমা ছাড়া আরও বেশ কয়েকটি সিনেমা এই কয়েকমাসে মুক্তি পেলেও সবগুলো সিনেমা হতাশ করেছেন ঢালিউড দর্শকদের।

এদিকে আসছে পহেলা বৈশাখ। বাঙালির এই উৎসবের দিনে হলগুলোতে নেই তেমন উৎসবমুখর কোন পরিবেশ। দেখা যাচ্ছে দেশের বেশিরভাগ হলে এখনো পুরনো সিনেমার পোস্টার। জানাগেছে এবার পহেল বৈশাখে মুক্তি পাচ্ছে  দুটি সিনেমা। এর মধ্যে রয়েছে অনন্য মামুন পরিচালিত ‘আবার বসন্ত’ ও ওয়াজিদ আলী সুমন পরিচালিতি ‘বয়ফ্রেন্ড’।‘আবার বসন্ত’ ছবিতে অভিনয় করেছেন তারিক আনাম খান, অর্চিতা স্পর্শিয়া প্রমুখ। এছাড়া ‘বয়ফ্রেন্ড’ ছবির মধ্য দিয়ে প্রথমবারের মতো নায়ক হিসেবে বড় পর্দায় দেখা যাবে ‘ঢাকা অ্যাটাক’ খ্যাত তাসকিন আহমেদকে।

মাত্র কয়েকদিন মুক্তির  বাকি থাকলেও এখন পর্যন্ত সিনেমাগুলো কোনো প্রচারণা নেই। মুক্তি নিয়ে কোনো প্রস্তুতিও দেখা যায়নি সিনেমাগুলোর। তাসকিন ও স্পর্শিয়া দুজনেই ঢালিউডের নতুন মুখ। পহেলা বৈশাকের মতো উৎসবে এই দুজনের সিনেমা দর্শকদের কতটুকু টানতে পারবে তা নিয়ে সন্দিহান সিনেমা সংশ্লিষ্টরা।

অন্যদিকে শাকিব খানের ‘শাহেনশাহ’ এবার বৈশাখে মুক্তির কথা থাকলেও সম্প্রতি সিনেমাটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান শাপলা মিডিয়া থেকে জানানো হয়েছে বৈশাখে মুক্তি পাচ্ছে না। যার কারণ হিসেবে জানানো হয়েছে বড় বাজেটের এই সিনেমা রোজার ঠিক আগ মুহূর্তে ব্যবসায়িক দিক থেকে সফল হবে না। সেই শঙ্কা থেকে রোজার ঈদে মুক্তির ঘোষণা দেওয়া হয়।

সার্বিক অবস্থায় ঢালিউডে চলছে মন্দা হাওয়া। যার ফল হিসেবে কমছে সিনেমার সংখ্যা ও হল সংখ্যা। তবে সংশ্লিষ্টরা বিভিন্ন সময় সিনেমার অবস্থা নিয়ে নানান আশার কথা শোনালেও বাস্তবিক জায়গা থেকে এখনো এমনটা দেখা যাচ্ছে না। তবে সামনে রোজার ঈদে সিনেমার অবস্থার দিকে যেমন তাকিয়ে আছেন কলাকুশলীরা, তেমনি দর্শকরাও। এখন যেন শুধু ঢালিউড পাড়ায় সুবাতাসের অপেক্ষায় সবাই।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন