বিনোদন

বাংলায় শপথ বাক্য পাঠ করেন মিমি-নুসরাত

ওপার বাংলার প্রতিষ্ঠিত নায়িকা মিমি ও নুসরাত। তারা দুজনই ব্যক্তিজীবনে ভালো বন্ধু। তবে অভিনেত্রীর পরিচয়ে আটকে নেই তারা, দুই নায়িকাই এখন নির্বাচিত সাংসদ।

গত ১৮ জুন তৃণমূলের বাকি নির্বাচিত ২০ জন সদস্য শপথ নিলেও উপস্থিত ছিলেন না মিমি-নুসরাত। সুতরাং, প্রথম দিনেই জুটেছিল প্রশ্নচিহ্ন। তবে আজ মঙ্গলবার (২৫ জুন) সকালেই দিল্লিতে হাজির হন মিমি ও নুসরাত। এদিন সংসদে শপথ নেন তারা। বিয়ের পর চূড়া, সিঁদুর পরে লোকসভায় দেখা গেল নুসরাতকে। হাতের মেহেন্দিও গাঢ় এখনো। আর মিমির পরনে ছিল সাদা সালোয়ার।

এদিকে বিয়ের কারণে প্রথমদিন শপথ নিতে পারেননি নুসরাত। আর বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকার কারণে লোকসভায় অনুপস্থিত ছিলেন মিমি চক্রবর্তী। অবশেষে মঙ্গলবার শপথ নিলেন নব নির্বাচিত এই দুই তারকা সাংসদ। দু’জনেই বাংলায় শপথ বাক্য পাঠ করেন।

লোকসভা নির্বাচনের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হওয়ার দিন থেকেই সংবাদ শিরোনামে তৃণমূল কংগ্রেসের বিজেতা মিমি চক্রবর্তী ও নুসরাত জাহান। এককথায় বিতর্ক তাদের পিছু ছাড়েনি। কখনো বলার ভঙ্গি তো কখনো পোশাক, বারংবার ট্রোল হয়েছেন সোশাল মিডিয়ায়। সেই সঙ্গে আরও একটা প্রশ্ন ধাওয়া করছিল, তা হল, পার্লামেন্টে দেখা মিলবে তো এই দুই বন্ধুর? অবশেষে মঙ্গলবার পার্লামেন্টে পৌঁছলেন তারা।

প্রসঙ্গত, সন্দেশখালির ঘটনার সময়ে কোনো মন্তব্য না করায় রোষের মুখে পড়েছিলেন নুসরাত। বিয়ের পর ফিরে বিমানবন্দরে বসিরহাট নিয়েই প্রশ্নের মুখোমুখি হয়েছিলেন তিনি। অন্যদিকে, জেতার পরেই নিজের লোকসভা কেন্দ্র যাদবপুর ঘুরে সমস্যার স্ক্রুটিনি করে নজর কেড়েছিলেন মিমি চক্রবর্তী। তবে এদিন শপথ শেষ তাদের মুখে শোনা গেল ‘জয় বাংলা’ স্লোগান।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন