বিনোদন

শাকিব খানের নায়িকা মিতু !

শাকিব খানের নতুন নায়িকা হচ্ছেন জাহারা মিতু। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে শাকিব খানের নতুন ছবি ‘আগুন’ এ দেখা যাবে তাকে। এ নিয়ে নিয়ে জানাজানি হলে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে শাকিব খান ভক্তদের মাঝে। অনেকেই শাকিব খানের এ নায়িকাকে স্বাগত জানিয়েছেন।

এদিকে শাকিব খান শবনম বুবলীর গণ্ডি থেকে বের হয়ে আসছেন। যে কারণে তাকে বাদ দিয়ে একের পর এক নতুন নায়িকার সঙ্গে অভিষেক হচ্ছে তার। নুসরাত ফারিয়া, রোদেলা জান্নাতের পর এবার মিতু নামের এক নবাগতকে নিয়ে পর্দায় আসছেন বাংলার সুপারষ্টার।

সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার (৯ জুলাই) ‘আগুন’ ছবির জন্য শাকিবের বিপরীতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন মিতু।

এদিকে মিতুর সাথে কথা হলে তিনি বলেন, এখনই কিছু বলতে চাচ্ছি না। তবে তিনি জানান তার সাথে অভিনয়ে জন্য  কাল প্রাথমিক কথা হয়েছে। তবে সব ঠিক থাকলে আনুষ্ঠানিক ভাবে শিগগিরই হয় তো জানাবেন।

আবার সূত্র আরও জানায়, ‘আগুন’ ছবিটি মূলত পুলিশ, সাংবাদিক এবং ভিলেনের গল্প নিয়ে নির্মিত হতে যাচ্ছে। যেখানে সাংবাদিক চরিত্রে অভিনয় করবেন মিতু। অন্যান্য চরিত্রে আরও দেখা যাবে আমিন খান ও চিত্রনায়িকা মৌসুমীকেও।

দেশ মাল্টিমিডিয়ার প্রযোজনায় ‘আগুন’ পরিচালনা করবেন বদিউল আলম খোকন। ছবির কাহিনি করছেন কমল সরকার, চিত্রনাট্য করছেন নির্মাতা খোকন নিজেই।

ছবিটির শুটিং শুরু হবে কবে তা নিশ্চিত বলতে পারছে না সুত্র। তবে একটি সম্ভব্য ২১ অথবা ২২ জুলাই এফডিসির ২ নম্বর ফ্লোরে শুরু হতে পারে বলে জানান।

জাহারা মিতু সর্বপ্রথম ২০১২-‘বিজিএমইএ ইয়োলো ফ্যাশন ফেস্টে’ অংশ নিয়েই হয়েছিলেন চ্যাম্পিয়ন। আর এখান থেকেই মিডিয়ার প্রতি আরো বেশি আগ্রহী হয়ে ওঠেন জাহারা। সামরিক কর্মকর্তা বাবার চাকরির সুবাদে বিভিন্ন অঞ্চলে বসবাস করে মানুষের ভাষা ও সংস্কৃতির সঙ্গে পরিচিত হয়ে ওঠেন রাজবাড়ীর পাংশার মেয়ে মিতু। চট্টগ্রামে কমার্স কলেজে ইন্টার পড়ার সময় সামাজিক ও স্বেচ্ছাসেবী কাজের সঙ্গে সম্পৃক্ত হন তিনি। খুলনায় রোটারি স্কুলে থাকা অবস্থায় সামাজিক কার্যক্রম শুরু হয় তার। চার বোন এক ভাইয়ের মধ্যে জাহারা সবার বড়। বাবা রাহমান রাসেল নৌবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, মা ফরিদা রাহমান গৃহিণী। পরিবারের সঙ্গে বর্তমানে বসবাস ঢাকায়।

এরপর তিনি ‘সুপার মডেল বাংলাদেশ-২০১৭’-তে অংশ নিয়ে হয়েছিলেন চ্যাম্পিয়ন। এই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে দেশের পতাকা হাতে গিয়েছিলেন মূল ‘সুপার মডেল ইন্টারন্যাশনাল-২০১৭’ মঞ্চে। সেখানেও প্রাপ্তি একেবারে কম নয়। হয়েছিলেন ফাইনালিস্ট। এরপর আবারো সুযোগ আসে মিস কসমোপলিটন ইন্টারন্যাশনাল প্রতিযোগীতায় অংশ গ্রহণের। কিন্তু ব্যক্তিগত কারণে সেখানে অংশ নিতে পারেননি মিডিয়া অলরাউন্ডার মিতু।

মিষ্টি মেয়ে মিতুর মিডিয়ার প্রতি দুর্বার আকর্ষণ বোধ করলেও পড়ালেখার প্রতিও ছিলেন দুর্দান্ত সিরিয়ায়। ক্লাস ওয়ান থেকে ইন্টারমিডিয়েট পর্যন্ত কখনো দ্বিতীয় হননি। ২০০৭ সালে এসএসসি ও ২০০৯ সালে এইচএসসি উভয় পরীক্ষায় পেয়েছেন গোল্ডেন জিপিএ ফাইভ। ফ্যাশন ডিজাইনিংয়ে বেসরকারি ইউনিভার্সিটির পড়াশোনাতেও ছিলেন তুখোড়। অনার্সে আউট অব ফোরে পেয়েছেন সিজিপিএ ৩.৯৫।

 


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন