বিনোদন

ঢাকার রাস্তার ফুটপাত ও ফুট ওভারব্রিজের সামনে ডিপজল !

সম্প্রতি ঢাকার  বিভিন্ন সড়কে দেখা মিলছে ডিপজলকে। এক সময়ের বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় খলনায়ক মনোয়ার হোসেন ডিপজল। তাকে এখন দেখা যাচ্ছে ঢাকার রাস্তার ফুটপাত ও ফুট ওভারব্রিজের সামনে। ফুটপাত ব্যবহারকারীদের বলছেন, ‘খারাও ভাতিজা! এইডা ফুটপাত মোটরসাইকেল চালানোর জায়গা না।

আবার ফুট ওভারব্রিজের সামনে দাঁড়িয়ে বলছেন, ভাতিজা ওই যে ফুট ওভারব্রিজ। একটু কষ্ট কইয়া দু কদম হাঁটো। তবে এসব প্ল্যাকার্ডের। তবে সিনেমার সত্যিকারের ডিপজল এসব কথা বলছেন না। ডিপজলের ছবি দিয়ে প্ল্যাকার্ডে এসব লিখে সচেতন করা হচ্ছে ঢাকাবাসীদের।

জানা গেছে, প্রাণ-আরএফএল গ্রুপের ‘দেশ আমার দোষ আমার’ শিরোনামে সামাজিক সচেতনতার ক্যাম্পেইনের জন্য এসব প্ল্যাকার্ড ব্যবহার করা হয়েছে।

১৯৫৮ সালে মিরপুরের বাগবারিতে জন্মগ্রহণ করেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল। ডিপজল একাধারে চলচ্চিত্র অভিনেতা ও প্রযোজক। তার প্রযোজনার ব্যানারে অসংখ্য সুপারহিট ছবি নির্মিত হয়েছে। চলচ্চিত্রে তার অভিষেক ঘটেছিল নায়ক হিসেবেই। ১৯৮৯ সালে ‘টাকার পাহাড়’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে চলচ্চিত্রে আসেন। ডিপজলের বড় ভাই শাহাদাত হোসেন বাদশা যিনি বাদশা ভাই নামে পরিচিত তিনি সান পিকচার্সের ব্যানারে চলচ্চিত্রটি প্রযোজনা করেন। পরিচালনা করেন মনতাজুর রহমান আকবর। আকবরেরও এটি পরিচালিত প্রথম ছবি। কিন্তু ছবিটি মুক্তি পায় ১৯৯৩ সালে।

সে যাত্রায় সাফল্য কিছু আসেনি। অনেকটা বিরতি নিয়ে আবার তিনি কামব্যাক করলেন নব্বই দশকের শেষ দিকে কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘তেজী’ ছবির মাধ্যমে। ভিলেন হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে হইচই ফেলে দেন ডিপজল। বাংলা সিনেমার ভিলেনদের চিরাচরিত প্রথা ভেঙে অনেক নতুনত্ব নিয়ে হাজির হলেন তিনি। সেই নতুনত্ব যেমন ছিল তার সংলাপে, তেমনি ছিল অভিনয়ে। তখন ছবিতে ডিপজল থাকা মানেই সুপারহিট ছবি। বিশেষ করে নায়ক মান্নার সঙ্গে তার জুটির ছিল আকাশছোঁয়া জনপ্রিয়তা। টানা কয়েক বছর ভিলেন হিসেবে দাপটের সঙ্গে অভিনয় করার পর আবার একটা বিরতি নেন তিনি।

২০০৪ সালে এফ আই মানিক পরিচালিত ‘কোটি টাকার কাবিন’ ছবিতে সম্পূর্ণ নতুনরূপে আত্মপ্রকাশ করেন ডিপজল। ভিলেনরূপী ডেঞ্জারম্যান ডিপজল এবার হাজির হলেন পারিবারিক গল্পে ইতিবাচক চরিত্রে। তার ‘চাচ্চু’, ‘দাদীমা’, ‘কোটি টাকার কাবিন’ ইত্যাদি ছবিগুলো তুমুল ব্যবসা সফল হয়। ধীরে ধীরে চলচ্চিত্রে দাঙ্গা-হাঙ্গামা, কোন্দল, হল সংকট বাড়তে থাকলে অনিয়মিত হয়ে পড়েন এই অভিনেতা। তবে এখনো চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন তিনি, প্রযোজনাও করেছেন।

সর্বশেষ ডিপজল প্রযোজিত ও অভিনীত ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ নামে একটি ছবি মুক্তি পায় গত বছর।

এছাড়া ডিপজল চলচ্চিত্রের নানা ক্রান্তিলগ্নে ইতিবাচক ভূমিকা রেখেছেন। নানা প্রয়োজনে তিনি চলচ্চিত্রের মানুষদের পাশে থেকেছেন। এ কারণে দর্শকের কাছেও যেমন জনপ্রিয় ডিপজল, চলচ্চিত্রের মানুষদের কাছে প্রিয় নাম তিনি।

ব্যক্তিজীবনে তিন ছেলে ও এক মেয়ের জনক ডিপজল। গত বছর তার একমাত্র মেয়ে ওলিজার বিয়ে হয়েছে।

 

 


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন