জাতীয়

প্রিয়া সাহাকে বহিষ্কার

Priya-Saha-expelled

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে মিথ্যা তথ্য দিয়ে শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ থেকে প্রিয়া সাহাকে সাময়িক বহিষ্কার করা হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের স্থায়ী কমিটির এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সভাপতিমণ্ডলীর অন্যতম সদস্য নিমচন্দ্র ভৌমিকের সভাপতিত্বে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় অন্যদের মধ্যে ছিলেন কাজল দেবনাথ, মিলন দত্ত, জে এল ভৌমিক, অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, বাসুদেব ধর, নির্মল রোজারিও, দীপেন চ্যাটার্জি, মঞ্জু ধর, মণিন্দ্র কুমার নাথ, অ্যাডভোকেট তাপস পাল ও অ্যাডভোকেট শ্যামল রায়।

ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রানা দাশগুপ্ত বলেন, ‘আজ সন্ধ্যায় স্থায়ী কমিটির এক জরুরি সভায় সংগঠনের শৃঙ্খলাবিরোধী কাজের জন্য প্রিয়া সাহাকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করেছি। তাকে সব সাংগঠনিক দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। এই সিদ্ধান্ত অনতিবিলম্বে কার্যকর হবে।’২৪ জুলাই সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রিয়া সাহা বিষয়ে তাদের অবস্থানও পরিষ্কার করা হবে বলেও জানান রানা দাশগুপ্ত।

তিনি আরও বলেন, ‘এ সিদ্ধান্ত তো নেয়া হয়েছে সাময়িক। এ সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করতে হলে তাকে শোকজ ছাড়া এবং আরও পদক্ষেপ গ্রহণ করা ছাড়া সম্ভব নয়। এটা আমাদের গঠনতন্ত্রের অনুকূলেই করেছি।’

প্রিয়া সাহা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত ১৬ জুলাই ধর্মীয় নিপীড়নের শিকার ২৭ ব্যক্তির সঙ্গে বৈঠক করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেই বৈঠকে অংশ নিয়ে প্রিয়া সাহা মার্কিন প্রেসিডেন্টকে বলেন, আমি বাংলাদেশ থেকে এসেছি। বাংলাদেশে ৩ কোটি ৭০ লাখ হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিষ্টান নিখোঁজ রয়েছেন। দয়া করে আমাদের লোকজনকে সহায়তা করুন। আমরা আমাদের দেশে থাকতে চাই।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন