বিনোদন

আন্তর্জাতিক মন্ডলে অর্চিতা স্পর্শিয়া

মডেল-অভিনেত্রী ও একজন নির্মাতা অর্চিতা স্পর্শিয়া। তার এই সুন্দর নামটি খাঁটি বাংলায় রেখেছেন তার সাংবাদিক মা সুজান হক। যদিও তিনি এখন সাংবাদিকতা না করলেও গণমাধ্যম জগতে তার যোগ্য উত্তরসূরি হয়ে উঠেছেন তার মেয়ে অর্চিতা। ইউল্যাব থেকে মিডিয়া স্টাডিজ ও সাংবাদিকতায় পড়াশোনা করে অর্চিতা মিডিয়া জগতেই প্রতিষ্ঠিত হয়ে গেছেন। ক্যারিয়ারের কম সময়ে তিনি ১৫টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র, ৩০টির মতো বিজ্ঞাপনচিত্র এবং শতাধিক নাটকে অভিনয় করেছেন। স্পর্শিয়া এ পর্যন্ত পাঁচটি ছবিতে অভিনয় করেছেন। এর মধ্যে ‘আবার বসন্ত’ এবং ‘ইতি’, ‘তোমারই ঢাকা’ জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে মুক্তি পেয়েছে। ‘কাঁঠবিড়ালি’ ছবিটি মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। ‘বন্ধন’ ছবিটির কাজ শেষ হয়েছে অনেক আগেই। ‘মানুষের বাগান’ ছবিটিও আন্তর্জাতিকভাবে মুক্তি পাওয়ার পর দেশে মুক্তি পাবে।

পারফর্মিং আর্টের সব শাখায় অর্চিতার সপ্রতিভ বিচরণ তাকে মিনিপর্দার তারকাখ্যাতি এনে দিয়েছে। পাশাপাশি তিনি কচ্ছপ ফিল্মস নামে একটি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানও দাঁড় করিয়েছেন। এখান থেকে ক্লায়েন্ট সার্ভিসসহ কিছু নাটক প্রযোজনা করা হয়েছে। কিন্তু এ প্রতিষ্ঠান থেকে এখনো কোনো চলচ্চিত্র নির্মিত হয়নি।

এদিকে তার কাছে জানতে চাওয়া হয় প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের নাম কচ্ছপ কেন? তিনি বলেন, কচ্ছপ ধীর গতিতে চলে। আমার বান্ধবী এবং সহকর্মীদের অনেকে রসিকতা করে আমাকে কচ্ছপ বলে ডাকে। আমি কচ্ছপের মতো চলি, শেষ পর্যন্ত জয়ী হই। এজন্য আমি নিজ থেকেই আমার প্রতিষ্ঠানের নাম কচ্ছপ রেখেছি। প্রতিষ্ঠানটি ধীর গতিতে এগোচ্ছে। নতুন বছরে এই প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে দর্শক নতুন ঘোষণা পাবেন।

অনেক দিন হয় নাটকে দেখা যাচ্ছে না বলতেই তিনি বলেন, দুই বছর আগে আমি নাটকে অভিনয় ছেড়ে দিয়েছি। এখন শুধু চলচ্চিত্র নিয়েই কাজ করছি। ইউল্যাবে পড়াশোনা করার সময়ই আমি বিজ্ঞাপনচিত্রে অভিনয় করার পাশাপাশি ‘রানআউট’ ছবিতে সহকারী পরিচালক হিসেবেও কাজ করেছি। চলচ্চিত্রের দেশীয় দর্শকের কাছে আমি ব্যাপকভাবে পরিচিত না হলেও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আমার ছবিগুলো প্রদর্শিত হচ্ছে এবং সে সুবাদে আন্তর্জাতিক মন্ডলে আমার একটা পরিচিতি গড়ে উঠছে, সেটাই বা কম কিসে। শিল্পীরা যখন তারকা হয়ে যায়, তখন তার পতনও অনিবার্য হয়ে পড়ে। আমি তারকা হতে চাই না। আঙ্গিকগত ঘরানার দিক থেকে চলচ্চিত্রের একটা সীমাবদ্ধতা আছে। কিন্তু শিল্পী হিসেবে একজনের কোনো সীমাবদ্ধতা থাকে না। তিনি বাণিজ্যিক-অবাণিজ্যিক সব ধরনের ছবিতেই কাজ করতে পারেন।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন