লাইফষ্টাইলস্বাস্থ্য

“জীবনের জন্য রক্ত”

মুনমুন বড়ুয়া চৌধুরী : রক্তদান হলো কোনো ব্যক্তি প্রাপ্ত বয়স্ক সুস্হ মানুষের স্বেচ্ছায় রক্ত দেবার প্রক্রিয়া। উন্নত দেশের মতন বর্তমানে বাংলাদেশেও স্বেচ্ছায় রক্তদানের প্রবণতা আজকাল পরিলক্ষিত হচ্ছে। বেশীরভাগ রক্তদাতাই সমাজ সেবামূলক কাজ হিসেবে রক্তদান করছেন। এমনি একটি গ্রুপ বা সংগঠনের নাম “জীবনের জন্য রক্ত” যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম তথা ফেইসবুকে বহুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে অল্পদিনেই। যার প্রতিষ্ঠাতা এবং এডমিন শওকত হোসেন জনি এবং আবির।

তারা পড়ালেখার পাশাপাশি মানব সেবায় কাজ করে যাচ্ছেন নির্বিঘ্নে। তারা যেমন রক্ত দিচ্ছেন, পাশাপাশি অন্যদেরও রক্তদানে উৎসাহিত করছেন অনবদ্যভাবে। তাদের শ্লোগান হলো,
★ “আগে রক্তদান, পরে আই লাভ ইউ জান। ”


★”ভালোবাসার মানুষের হাত ধরেই রক্তদান করুন মন ভরে। ”

“জীবনের জন্য রক্ত ” –এই গ্রুপের এডমিনরা তাদের গ্রুপে ঢাকা ও চট্টগ্রামে ২ টি কল সেন্টারের ব্যবস্হা রয়েছে।
ঢাকা কল সেন্টারের নম্বর – ০১৬৭৪ ০৩৯০২৭
চট্টগ্রাম কল সেন্টারের নম্বর –
০১৮২৭ ১২৩৫৮৭

রক্তদান সম্পর্কে শওকত হোসেন জনি (গ্রুপের এডমিন) বলেন, রক্তদানের প্রথম এবং প্রধান কারণ, একজনের দানকৃত রক্ত আরেকজন মানুষের জীবন বাঁচবে। তাছাড়া, রক্তদান স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত উপকারী। রক্তদান করার সাথে সাথে শরীরের মধ্যে অবস্থিত “বোন ম্যারো” নতুন কণিকা তৈরির জন্য উদ্দীপ্ত হয় এবং রক্তদানের ২ সপ্তাহের মধ্যে নতুন রক্ত কণিকার জন্ম হয়ে ঘাটতি পূরণ হয়ে যায়। তাই, তিনি সুস্থ ও প্রাপ্ত বয়স্ক সকলকে বছরে ৩ বার রক্তদানের প্রতি আহবান জানান।

প্রকৃত পক্ষে, স্বেচ্ছায় রক্তদান অনেক পূণ্য ও সওয়াবের কাজ। নিয়মিত রক্তদান করলে, হৃদরোগ ও হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমে যায় অনেকটা। এক গবেষনায় বলা হয়েছে, বছরে ২ বার রক্তদান করলে, অন্যদের তুলনায় তাদের ক্যান্সারের আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কম থাকে। বিশেষ করে, ফুসফুস, লিভার, কোলন, পাকস্থলী ও গলার ক্যান্সারের ঝুঁকি নিয়মিত রক্তদাতাদের ক্ষেত্রে কম পরিলক্ষিত হয়।

সর্বশেষে, একজন মানুষের জীবন বাঁচানো সমগ্র মানব জাতির জীবন বাঁচানোর মতো মহান কাজ। তাই আসুন, স্বেচ্ছায় রক্তদানে আগ্রহী হই এবং অন্যকেও উৎসাহিত করি। আলোয় ভরিয়ে তুলি এই ভূবণ।

 

জেড/আর


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন