লাইফষ্টাইলস্বাস্থ্য

সুস্বাস্থ্য ধরে রাখবে বেদানা

বেদানা— টকটকে লাল দানাদার ফলটি চীনে লাকি ফ্রুট হিসেবে পরিচিত। সুস্বাস্থ্য ও সুন্দর ত্বকের জন্য উপকারী এ ফলটি অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, ভিটামিন ও খনিজ উপাদানে ভরপুর। ফল হিসেবে খাওয়া তো বটেই ফলের সালাদ, স্মুদি ও রস করেও এটি খাওয়া যায়। জেনে নিন বেদনার উপকারী ভূমিকাগুলো—

ক্যান্সার প্রতিরোধ করে

বেদানার রস শরীরে ক্যান্সারের কোষ তৈরি হতে বাধা দেয়। বিশেষত, মূত্রনালির ক্যান্সার প্রতিরোধে এর ভূমিকা অসীম।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ

ডায়াবেটিসে আক্রান্তরা অনায়াসে বেদানাকে বিকালের স্ন্যাকস হিসেবে গ্রহণ করতে পারেন। এর ডায়েটারি ফাইবার রক্তের শর্করা কমিয়ে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আনে।

হৃপিন্ডের সুস্থতায়

বেদানা রক্তের কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায় এবং  এইচডিএল কোলেস্টেরল সরবরাহ করে, যা উচ্চ রক্তচাপ কমিয়ে স্ট্রোকের আশঙ্কা হ্রাস করে। উপরন্তু এ ফল ট্যানিন, অ্যান্থোসায়ানিন ও পলিফেনলের ভালো উত্স, যা হৃপিন্ডের সুস্থতায় গুরুত্বপূর্ণ উপাদান।

 

পাকস্থলীর সুস্থতায়

বেদানা বিপাক প্রক্রিয়াকে সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করতে পারে। ডায়েরিয়া ও বমিভাব দূর করাসহ পেটের যেকোনো সমস্যা সমাধানে সক্ষম এ লাল ফল।

হাইড্রেশন

এটি শরীর ও ত্বককে হাইড্রেটেট রাখে। হাইড্রেশনের বেলায় বেদানা গ্রিন টির চেয়েও বেশি কার্যকর বলে মনে করা হয়।

অ্যালঝেইমার্স

স্মৃতিভ্রংশতা এড়াতে ও স্মৃতিশক্তি প্রখর রাখতে বেদানার জুড়ি নেই। অ্যালঝেইমার্সে আক্রান্তদের জন্য এটি খুব ভালো ওষুধ।

ত্বক সুরক্ষা

সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি প্রতিরোধ করে ত্বককে সুরক্ষিত রাখে। এতে রয়েছে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, যা শরীরের জীবাণু অপসারণে ভূমিকা রাখে। বেদানার রস ত্বকে বলিরেখা পড়তে দেয় না ও ত্বকের কোষকে দীর্ঘায়ু করে। এটি কোলাজেন ও এলাস্টিন উত্পাদনেও সাহায্য করে। এই দুটি উপাদানই ত্বককে রাখে সজীব ও তরুণ। এছাড়া এ ফলে রয়েছে প্রদাহনাশক উপাদান, যা ত্বকের প্রদাহ নাশ করে স্বস্তি দেয়। আরো রয়েছে ওমেগা-৫ ফ্যাটি অ্যাসিড, যা ত্বকে জোগান দেয় আর্দ্রতার।

রক্তনালিকে সুরক্ষিত রাখে

বেদানা রক্তনালিকে সুরক্ষিত রাখে ও চর্বি জমতে দেয় না। ফলে স্ট্রোকের আশঙ্কা কমে যায় বহুলাংশে।

মজবুত চুল

মাথার ত্বকের রক্ত সঞ্চালন বাড়ায় ও চুল পড়া কমায়। বেদানা চুলের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে এনে দেয় ঝরঝরে ভাব।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন