খেলাপ্রধান সংবাদ

নিষিদ্ধ কাশির সিরাপ,আইপিএল শেষ ইউসুফ পাঠানের

নিষিদ্ধ কাশির সিরাপ খাওয়ার চড়া মূল্য দিতে হচ্ছে ভারতের ক্রিকেটার ইউসুফ পাঠানকে। মাসুল হিসেবে ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে বাইরে থাকতে হচ্ছে এই হার্ডহিটার ব্যাটসম্যানকে। ফলে তিনি অংশ নিতে পারবেন না আসন্ন ইন্ডিয়ান প্রিমিয়াল লীগেও।   এক বিবৃতিতে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) জানায়, ‘২০১৭ সালের ১৬ মার্চ ঘরোয়া টি-২০ প্রতিযোগিতা চলার সময় বিসিসিআই-এর অ্যান্টি-ডোপিং টেস্টিং প্রোগ্রামের কাছে প্রস্রাবের নমুনা দিয়েছিলেন পাঠান। পরবর্তীতে তা পরীক্ষা করে টার্বুটালিনের (কাশির সিরাপের) অস্তিত্ব পাওয়া যায়।  টার্বুটালিন একটি নিষিদ্ধ ড্রাগ হিসেবে ভারতে অনুমোদিত।

গত বছরের অক্টোবরে বিসিসিআইয়ের অ্যান্টি-ডোপিং রুলসের (এডিআর) আর্টিক্যাল দুই দশমিক এক ধারা অনুযায়ী পাঠানের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে অ্যান্টি-ডোপিং রুল লঙ্ঘন কমিশন (এডিআরভি)। তবে শাস্তি ঘোষণা বিলম্বের কারণে সাময়িক নিষেধাজ্ঞা তখন আরোপ করা হয়নি। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে পাঠান নিজের প্রতিক্রিয়া তুলে ধরেন। এডিআরভিকে তিনি বলেন, তার চিকিৎসায় নির্ধারিত ওষুধের পরিবর্তে ভুলবশত টার্বিটালিন দেওয়া হয়েছিল। বিসিসিআই পাঠানের যুক্তিতে সন্তোষ প্রকাশ করে বলে, তিনি উচ্চ শ্বাসনালীর সংক্রমণের কারণে ভুলবশত টার্বিটালিন সেবন করেছেন, ক্ষমতা বাড়ানোর ওষুধ হিসেবে নয়। সব প্রমাণ ও বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিয়ে বিসিসিআই পাঠানের ওপর পাঁচ মাসের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। বেঙ্গালুরুতে আগামী ২৭ ও ২৮ জানুয়ারি আইপিএল খেলোয়াড়দের নিলাম অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু ডোপিং নিষেধাজ্ঞায় এবার পাঠানকে দর্শক হয়েই থাকতে হচ্ছে। আগামী ৪ এপ্রিল ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক জমজমাট টি-২০ টুর্নামেন্টটির পর্দা ইঠবে।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন