Notice: 3.0.0 ভার্সন থেকে header.php ছাড়া থিম ফাংশনটি deprecated করা হয়েছে এবং এর এখনও কোন বিকল্প নেই। অনুগ্রহ করে আপনার থিমে একটি header.php টেমপ্লেট যোগ করুন। in /home1/deshreport/public_html/wp-includes/functions.php on line 4019
বাংলার চোখ ক্রেস্ট দিয়ে সম্মানিত করলেন সনিকে! - দেশ রিপোর্ট বাংলার চোখ ক্রেস্ট দিয়ে সম্মানিত করলেন সনিকে! - দেশ রিপোর্ট

বিনোদন

বাংলার চোখ ক্রেস্ট দিয়ে সম্মানিত করলেন সনিকে!

বিনোদন প্রতিবেদক || আলোচিত তোলপাড় সিনেমার হিরো সনি রহমান বাস্তব জীবনেও কিছুটা হিরোর সমতুল্য বলা যেতে পারে।  সনি রহমান শুধু ক্যামেরার সামনে অভিনয় করে না তিনি কিন্তু ব্যাক্তি জীবনে সব সময় ব্যস্ত থাকেন সামাজিক ও সমাজ সেবা মূলক নানান কাজ কর্মে।

যা অনেকবার ফুটে এসেছে বিভিন্ন গণমাধ্যম গুলোতে। এফডিসিতে যে নতুন মসজিদটা নির্মাণ হচ্ছে এই মহান উদ্দেশ্যর পিছনেও রয়েছে এই নবাগত নায়ক সনি রহমান এর হাত।
কিন্তু নতুন খবর হচ্ছে ভিন্ন কিছু, গত শুক্রবার রংপুর বাংলার চোখ সেচ্ছাসেবী, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া সংগঠন সনি রহমানকে অভিনয়ের পাশাপাশি মহৎ কাজের জন্য “বাংলার চোখ সংগঠন ‘এর ১ যুগ পূর্তি অনুষ্ঠানে ক্রেস্ট দিয়ে সম্মাননা প্রদান করেন।

১ যুগ পূর্তি উপলক্ষে বৃক্ষরোপন, রক্তদান কর্মসূচি, সাহিত্য, সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা, পুুরস্কার বিতরন, সম্মাননা প্রদান ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক সন্ধ্যার আয়োজন করে সংগঠনটি ।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রতিষ্ঠানটি সম্মাননা স্মরক প্রদান করেন সনিকে এবং পাশাপাশি রক্তদান করবে কালকে বলে জানিয়েছে তিনি । অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আলহাজ্ব মো:তানবীর হোসেন আশরাফী।সম্মাননা সনি রহমানের হাতে তুলে দেন উক্ত সংগঠনের সভাপতি, প্রধান অতিথি জনাব আলহাজ্ব মশিউর রহমান রাঙ্গা এমপি-(মাননীয় প্রতিমন্ত্রী স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রনালয়,জনাব ) আরো ছিলেন এ্যাডভোকেট হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া এমপি, ও জনাব -ডা:আক্কাছ আলী এমপি, ছিলেন সিটি মেয়র জনাব-মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফাসহ আরও অনেকে।

সনি রহমান এর সাথে কথা হলে তিনি জানান , আসলে অনুষ্ঠানটি উপভোগ যোগ্য ছিল।  তাদের এই মহান উদ্যেগকে স্বাগত জানাই আমি  আমি চেষ্টা করবো সবসময় তাদের সাথে থাকার জন্য।এবং ধন্যবাদ জানাই এতো সম্মানীয় মানুষ গুলোর সাথে আমাকে জড়িত করার জন্য।

এবং সনি বক্তৃতাকালে অনুষ্ঠানে সবাইকে বলেন , শিল্প সাংস্কৃতি কে মনে ধারণ করার জন্য।  এবং শিল্পসাংস্কৃতিক কে রক্ষার জন্য যে কোনো উদ্দ্যেগ জেনো সরকার গ্রহণ করে।  শিল্প সাংস্কৃতিক বাংলাদেশে কে পৌঁছে দিচ্ছে বিশ্বের দরবারে।  এই সাংস্কৃতি কে বাঁচিয়ে রাখতে হবে আমাদেরই। এই রকম সংগঠনগুলি চেষ্টা করে সবসময় সামাজিক সকল কাজ করার। এইসব সংগঠনের পাশে থেকে তাদের সাহায্য করলে হয়তো কিছুটা হলে সামাজিক অবক্ষয় রোধ হবে বলে আমি মনে করছি।

পরিশেষে প্রধান অথিতির বক্তৃতার মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠানটি ইতি টানে ।

 

 

দেশরির্পোট/রবিন


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

Tags

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন