বিনোদন

জোভান-মেহজাবিনের ‘রংতুলি’

আর্ট ইন্সটিটিউটে ক্লাস শেষ। সবাই নিজের মত গুছিয়ে নিচ্ছে, কেউ চলে যাচ্ছে, কেউ চিত্রের বাকি অংশের কাজ করছে। নিজের ব্যস্ততায় পারিপার্শ্বিকতা ভুলে কাজ করছিল রঙ। একটু দূরে দাঁড়িয়ে কেউ যে তার আত্মমগ্নতায় ডুবে তা লক্ষ করছিল সেটি যেন বিবেচ্য বিষয় নয়। তুলির ডাকে ধ্যান ভেঙে সম্বিত ফিরে পায় রঙ। বিরক্তি মিশ্রিত বিব্রতায় জানতে চায় কেন মেয়েটি তাকে ডেকেছে? লজ্জায় নিজেকে গুটিয়ে মেয়েটি জানায় সে ক্লাসে নতুন, নিজ চেষ্টায় যদিও সে কিছুটা এগিয়ে নিয়েছে তবুও রঙ যদি তাকে সহযোগিতা করে তবে সে রঙের প্রতি কৃতজ্ঞ থাকবে। বিরক্তি নিয়ে রঙ মেয়েটির ক্যানভাসের সামনে এসে দাঁড়ায়, তার আঁকা ছবিটি পর্যবেক্ষণ করে জানিয়ে দেয়, যে চোখে দেখে না সেও এর থেকে ভাল ছবি আঁকতে পারে। প্রতিউত্তররের অপেক্ষায় না দাঁড়িয়ে কিছুটা হেয় করে সেখান থেকে চলে যায় রঙ।

এদিকে, অবাক মেয়েটি নির্বিকারে দাঁড়িয়ে ছেলেটির চলে যাওয়া পথের দিকে তাকিয়ে থাকে। চলতি পথে কিছু বখাটের আক্রমণের শিকার হয় রঙ, একপর্যায়ে মাথায় আঘাত পেলে জ্ঞানহীন অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি হয় সে। মাথায় গুরুতর আঘাত লাগার ফলে তার ভিজ্যুয়াল করটেক্স ড্যামেজ হয়ে অন্ধ হয়ে যায় রং। কিছুদিন পর। বাস্তবতার সাথে চ্যালেঞ্জে নতুন জীবন অভ্যস্ত হতে তখন ব্যর্থ ছেলেটি। অদ্ভুত কৌতূহলে তুলি রঙ এর ঠিকানা নিয়ে পৌঁছে যায় সেখানে। দরজায় করাঘাতে রঙ তুলির কাছে জানতে চায় সে কেন এসেছে। উত্তরে মেয়েটি বলে রঙের আঁকা ছবি গুলো তার ভীষণ ভাল লেগেছে। সার্বিক পরিস্থিতিতে সব মানিয়ে নিয়ে সে ছবি গুলোর সাথে বন্ধুত্ব করতে চায়। বিপরীতে রঙের নেতিবাচক প্রতিউত্তরে সেদিনের মত ফিরে যায় তুলি। এর পরের ঘটনা কি তা জানতে উপভোগ করতে হবে নাটক ‘রংতুলি’।

এরই মধ্যে নাটকটির শুটিং সম্পন্ন হয়েছে। গত ২৭ ও ২৮ অক্টোবর উত্তরার স্বপ্নীল হাউজ এবং লালমাটিয়া মহিলা কলেজ ক্যাম্পাসে ‘রংতুলি’র চিত্রায়ন হয়েছে।

আহমেদ অর্কের গল্পে নির্মিত হল নাটক ‘রংতুলি’। মিমি প্রোডাকশন প্রযোজিত এ নাটকটি পরিচালনা করেছেন স্বাধীন ফুয়াদ।নাটকটিতে অভিনয় করেছেন জোভান ও তার বিপরীতে দেখা যাবে মেহজাবিনকে। অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছেন রাশেদ মামুন, সজল মহন্ত, রাসেল আহমেদ, সজল আহমেদ, জাকির আরও অনেকে। নাটকটিতে নির্বাহী প্রযোজক হিসেবে রয়েছেন জাকির খান। নাটকটির চিত্রগ্রহণে ছিলেন মোমিন হোসেন এবং শিল্প নির্দেশনায় মাহফুজ ইসলাম। বদরুন নাহার মিরার সার্বিক তত্ত্বাবধানে নাটকে প্রধান সহকারী পরিচালক হিসেবে রয়েছেন রিফাত আহমেদ।

নাটকটি শিগগিরই একটি বেসরকারি টিভি চ্যানেলে প্রচার হবে বলে জানা গেছে।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন