খেলা

শেষ দিনে ৮ উইকেট দরকার টাইগারদের

দিনের শুরুটা ছিল ভয় জাগানিয়া। প্রতিপক্ষকে ফলোঅন না করানোর মাশুলই কি গুণতে হবে, এমন প্রশ্ন উড়ছিল বাতাসে। তবে মাহমুদউল্লাহর সেঞ্চুরিতে দ্বিতীয় ইনিংসের বিপর্যয় কাটিয়ে জিম্বাবুয়েকে অসম্ভব লক্ষ্য দিয়েছে টাইগাররা।

৪৪৩ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে আলোক স্বল্পতায় চতুর্থ দিন শেষ হওয়ার আগে ২ উইকেটে ৭৬ রান করে জিম্বাবুয়ে। অর্থাৎ ম্যাচ জিততে শেষ দিনে ৮ উইকেট দরকার টাইগারদের। জিম্বাবুয়ের জয় পেতে চায় ৩৬৭ রান।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় স্টেডিয়ামে বুধবার চতুর্থ দিনের খেলায় মাঠে নামে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে। আগের দিন প্রথম ইনিংসে জিম্বাবুয়েকে অল আউট করে দিয়েছিল টাইগাররা। প্রথম ইনিংসে ২১৮ রানের লিড নিয়েও এদিন সকালে প্রতিপক্ষকে ফলোঅন করায়নি মাহমুদউল্লাহর দল। নিজেরা ব্যাট করতে নেমে ৬ উইকেটে ২২৪ রান করে ইনিংস ঘোষণা করে। নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৭ উইকেটে ৫২২ রান করে ইনিংস ঘোষণা করেছিল বাংলাদেশ। জিম্বাবুয়ে তাদের প্রথম ইনিংসে করেছিল ৩০৪ রান।

দুই ম্যাচের সিরিজে ১-০ তে পিছিয়ে রয়েছে টাইগাররা। সিরিজ বাঁচাতে হলে এই ম্যাচে জয় পেতেই হবে বাংলাদেশকে। ড্র করলেও সিরিজ জিতে নেবে অতিথি দল।

প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের পক্ষে ডাবল সেঞ্চুরি করেছিলেন মুশফিকুর রহীম। দেড় শতাধিক রানের ইনিংস খেলেন মুনিমুল হক। বোলিংয়ে পাঁচ উইকেট নেন তাইজুল ইসলাম। টাইগারদের এমন পারফরম্যান্সে একটা নির্দিষ্ট গতিতেই এগোচ্ছিল মিরপুর টেস্ট। কিন্তু বুধবার সকালে টেস্ট ক্রিকেট তার চিরায়িত মহিমার কথা জানান দিল সকালে। ২৫ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে বসল স্বাগতিকরা। সকালের শুরুতেই মিরপুরে কেমন গুমোট আবহ তাতে।

সেই গুমোট ভাব দূর করেছেন মোহাম্মদ মিথুন ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ মিলে। পঞ্চম উইকটে দুজনে গড়েছেন ১১৮ রানের জুটি। অভিষেক ইনিংসে শূন্য রানে আউট হলেও দ্বিতীয় ইনিংসে ফিফটি তুলে নেন মিথুন। ১১০ বলে ৪ চার ও ১ ছক্কায় করেন ৬৭ রান।

মিথুন ফিরে গেলেও সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। যাকে সেঞ্চুরি পেতে যোগ্য সহায়তা দেন মেহেদী হাসান মিরাজ। খেলেন ২৭ রানের ইনিংস। মাহমুদউল্লাহ ১২২ বলে ৪ চার ও ২ ছক্কায় করেন অপরাজিত ১০১ রান। সেঞ্চুরি পূরণের পরই ইনিংস ঘোষণা করেন মাহমুদউল্লাহ।

জিম্বাবুয়ের পক্ষে কাইল জার্ভিস ও তিরিপানো ২টি করে উইকেট নেন। ১টি করে উইকেট নেন উইলিয়ামস ও সিকান্দার রাজা।

 

এসবি


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন