আইন-আদালত

খালেদা জিয়ার খালাস চেয়ে আপিল করেছেন বিএনপি!

জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাজা বাতিল করে খালাস চেয়ে আপিল করেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

রোববার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় খালেদার পক্ষে আপিল আবেদন জমা দিয়েছেন তার অন্যতম আইনজীবী ব্যারিস্টার কায়সার কামাল।

৬৩৮ পৃষ্ঠার মূল রায়সহ প্রায় ৭০০ পৃষ্ঠার এই আপিলের সঙ্গে জামিনের আবেদনও রয়েছে।

ব্যারিস্টার কায়সার কামাল সাংবাদিকদের বলেন, এই মামলায় অবৈধ ও অন্যায়ভাবে বিএনপি চেয়ারপারসনকে জেল জরিমানা করা হয়েছে। এর বিরুদ্ধে আপিল করে সাজা বাতিল ও খলাস চাওয়া হয়েছে।

গত ২৯ অক্টোবর ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ আখতারুজ্জামান এ মামলার রায় ঘোষণা করেন।

প্রায় সোয়া ৩ কোটি টাকা আত্মসাতের দায়ে সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াসহ চার আসামির সবাইকে সাত বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড দেন আদালত।

পাশাপাশি তাদের ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরো ছয় মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। আর জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে কেনা কাকরাইলের ৪২ কাঠা জমি রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত ঘোষণা করা হয় রায়ে।

গত ১৪ নভেম্বর পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশিত হওয়ার পর খালেদার অন্যতম আইনজীবী ছানাউল্লাহ মিয়া সত্যায়িত অনুলিপি হাতে পান। রায় পর্যালোচনা করে চার দিন পর তারা আপিল জমা দিলেন।

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে এটি দ্বিতীয় রায়; এর আগে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসনকে গত ৮ ফেব্রুয়ারি পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ এর বিচারক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

রায় ঘোষণার পরপরই খালেদা জিয়াকে পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। বর্তমানে তিনি এই কারাগারে রয়েছেন।

এই মামলায় বিচারিক আদালত বিএনপি চেয়ারপারসনকে ৫ বছর কারাদণ্ড দিলেও আপিলের রায়ে হাইকোর্ট সাজা বাড়িয়ে ১০ বছর কারাদণ্ডাদেশ দেয়।

 

 

এসবি


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন