খেলা

ক্রিকেটার চামেলী খাতুন চিকিৎসার জন্য ভারত গেলেন!

বাংলাদেশ নারী দলের সাবেক ক্রিকেটার চামেলী খাতুন চিকিৎসার জন্য ভারতে গেছেন।

শুক্রবার দুপুর ১টা ২০ মিনিটে ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে একটি ফ্লাইটে চামেলী ভারতের উদ্দেশ্যে রওনা হন।

তার সাথে রয়েছে ভাগ্নে রায়হান, খালা ও খালাত বোন।

ব্যাঙ্গালুরুর নারায়ণা হাসপাতালে সাবেক এই অলরাউন্ডারের চিকিৎসা হবে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন চামেলীর প্রাথমিক পর্যায়ের প্রশিক্ষক যুব ক্রিকেট স্কুলের পরিচালক জামিলুর রহমান সাদ।

পায়ের লিগামেন্ট ছিঁড়ে যাওয়ায় দীর্ঘদিন থেকে অবস্থান করছিলেন রাজশাহী মহানগরীর দরগাপাড়ার বাড়িতে। বিষয়টি গণমাধ্যমে প্রকাশ পেলে তার চিকিসার সকল দায়িত্ব নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

গত ২ নভেম্বর রাজশাহী থেকে ঢাকায় নিয়ে ভর্তি করা হয় জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানের (পঙ্গু হাসপাতালে) ২১৬নং কেবিনে। প্রাথমিক পর্যায়ের পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে হাসপাতালেই চিকিৎসার প্রস্তুতি শরু হয়।

কিন্ত চামেলী ভারতে চিকিৎসার জন্য বললে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে তাকে সে দেশে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়।

গত ২৫ সেপ্টেম্বর রাজশাহী আনসার অফিসে কাজ করার সময় ডান হাত ও পায়ে কাঁপুনি উঠে পড়ে যান চামেলী। সেখান থেকে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অর্থোপেডিক সার্জারি বিভাগের চিকিৎসক মুনজুর রহমানের কাছে নিয়ে যাওয়া হয়।

গত ৩ অক্টোবর অফিসে কাজ করার সময় আবার পড়ে যান চামেলী। এর পর থেকে তার ঠাঁই হয় বিছানায়। ক্রমশই তার ডান পাশ অবশ হতে থাকে।

চামেলী জানান, অন ডে স্ট্যাটাস সামনে রেখে দলের প্রস্তুতি চলছিল ২০১১ সালে। ফিল্ডিং প্রশিক্ষণ চলাকালীন পড়ে গিয়ে মারাত্মকভাবে আহত হন।

পরে আবাহনী ক্রীড়া চক্র মাঠে প্রশিক্ষণে গিয়েও আরেক দফা আঘাত পান। এই ইনজুরি তার ক্রিকেট ক্যারিয়ার খাদের কিনারে এনে দাঁড় করিয়ে দয়ে। পরিবারের হাল ধরতে গিয়ে নিজের চিকিৎসা করাতে পারেননি। আশা করছেন, সুষ্ঠু চিকিৎসার মাধ্যমে সুস্থ হয়ে আগামীতে আবারো মাঠে ফিরতে পারবেন এবং দেশের হয়ে ভাল কিছু করবেন।

বাংলাদেশ জাতীয় নারী দলের হয়ে ১৯৯৯ থেকে ২০১১ পর্যন্ত মাঠ মাতিয়ে বেড়িয়েছেন চামেলী খাতুন। ২০১০ সালের এশিয়া কাপের রানার আপ হওয়া দলের হয়ে মাঠ মাতান এই দাপুটে ক্রিকেটার। এর বাইরে ঢাকা বিভাগে খেলেছেন টানা। দুই মৌসুম শেখ জামালের ক্যাপ্টেন হিসেবে সামনে থেকে টেনে নিয়ে গেছেন দলকে। এখন তিনিই পরাস্ত ইনজুরিতে।

 

 

সিএসবি


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন