জাতীয়

ডা. মিলনের ২৮তম শাহাদাতবার্ষিকী

শহীদ ডা. শামসুল আলম খান মিলনের ২৮তম শাহাদাতবার্ষিকী আজ ২৭ নভেম্বর। এ উপলক্ষে সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসির অপর প্রান্তে অবস্থিত ডা. মিলনের স্মৃতিস্তম্ভে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান তাঁর পরিবারের সদস্য এবং বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীরা।

স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে ডা. শামসুল আলম খান মিলনের শাহাদাতের দিনটি স্মরণ করা হচ্ছে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে। আলোচনা সভা, ফাতেহা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাতেরও আয়োজন করা হয়েছে।

১৯৯০ সালের ২৭ নভেম্বর স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনের চূড়ান্ত পর্যায়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় লাইব্রেরির পাশের সড়কে এরশাদের পেটোয়া বাহিনীর গুলিতে নিহত হন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) নেতা ও তৎকালীন বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) যুগ্ম মহাসচিব ডা. শামসুল আলম খান মিলন।

ওই ঘটনার পর আন্দোলন গণবিক্ষোভের রূপ নেয়, যার ফলে এইচ এম এরশাদ সরকারের পতন ত্বরান্বিত হয়। মিলন নিহত হওয়ার দিনটিকে ‘মিলন দিবস’ হিসেবে পালন করে আসছে তার দল জাসদসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক দল।

দিনটি উপলক্ষে শহীদ ডা. মিলন সংসদ সকাল ৮টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজে মিলনের সমাধিতে এবং সাড়ে ৮টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মিলন স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতা-কর্মীরা সকাল সাড়ে ৮টায় মিলনের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানান।

শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান বলেন, “মিলনের রক্তদানের মধ্য দিয়ে স্বৈরশাসক পতনের চূড়ান্ত আন্দোলনের সূচনা করেছিল। মাত্র এক সপ্তাহের মধ্যেই পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছিলেন এরশাদ। যে চেতনা ধারণ করে ডা. মিলন প্রাণ দিয়েছিল, আগামী প্রজন্মকে সেই চেতনায় অসম্প্রদায়িক বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ করে যেতে হবে।”

আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক আব্দুস সবুর, কৃষি ও সমবায় সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক শামসুন্নাহার চাঁপা, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, উপ দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, কেন্দ্রীয় সদস্য এস এম কামাল হোসেন, আনোয়ার হোসেন, মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির পক্ষ থেকেও সকালে মিলনের সমাধিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করা হয়। পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেননসহ জ্যেষ্ঠ নেতারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

 

সিএসবি


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন