প্রধান সংবাদ

ডিআরইউ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে!

এবারের নির্বাচনে ২১টি পদে ৩৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। মোট ভোটার এক হাজার ৪৯০ জন।

ডিআরইউ নির্বাচনে সভাপতি পদে দুইজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন, এসএ টিভির ইলিয়াস হোসেন ও একাত্তর টেলিভিশনের মনির হোসেন লিটন।

সাধারণ সম্পাদক পদে তিনজন প্রার্থী রয়েছেন। দৈনিক মানবকণ্ঠের শেখ জামাল, বার্তা সংস্থা বাসসের কবির খান ও এশিয়ান মেইল ২৪ ডটকমের রিয়াজ চৌধুরী এ পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সহ-সভাপতি পদে আবুল বাশার, ওসমান গণি বাবুল ও খন্দকার কাওছার হোসেন রয়েছেন। অর্থ সম্পাদক পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন শ্যামল কান্তি নাগ ও জিয়াউল হক সবুজ।

সাংগঠনিক সম্পাদক পদে লড়ছেন আফজাল বারী ও হাবীবুর রহমান। নারী বিষয়ক সম্পাদক পদে সাজিদা ইসলাম পারুল ও সেলিনা শিউলী লড়াই করছেন। প্রশিক্ষণ ও গবেষণা সম্পাদক পদে লড়ছেন আব্দুল হাই তুহিন ও সাখাওয়াত হোসেব সুমন।

ক্রীড়া সম্পাদক পদে শফিকুল ইসলাম শামীম ও মাকসুদা লিসা এবং সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে এস এম মুন্না মিয়া ও মো. এমদাদুল হক খান প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এ ছাড়া কার্যনির্বাহী সদস্য হিসেবে ৭টি পদে ৮ জন প্রার্থী লড়াই করছেন।

এদিকে, ২১টি পদের মধ্যে ৫টি পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় প্রার্থী আগেই নির্ধারণ হয়ে গেছেন। তারা হলেন- দপ্তর সম্পাদক জেহাদ চৌধুরী, প্রচার সম্পাদক মাহমুদ এ রিয়াত, যুগ্ম-সম্পাদক জামিউল আহসান শিপু, আপ্যায়ন সম্পাদক এইচ এম আক্তার ও কল্যাণ সম্পাদক কাওছার আজম।

ডিআরইউ নির্বাচনে পাঁচ সদস্যের কমিশনের নেতৃত্বে রয়েছেন নিউজ টুডের সাবেক সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন আহমেদ।

অন্যরা হলেন, বিএফইউজের সাভেক সভাপতি এম শাজাহান মিয়া, একুশে টেলিভিশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, বাংলাদেশ প্রতিদিনের যুগ্ম-সম্পাদক আবি তাহের এবং সাংবাদিক নেতা এম এ আজিজ।

 

 

সিএসবি

 


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন