বিনোদন

‘ঋতু’র শুভেচ্ছাদূত হলেন চঞ্চল-তিশা

জনপ্রিয় অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরী ও অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশা ‘ঋতু’ প্রকল্পের শুভেচ্ছাদূত হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। ‘ঋতু’র বিভিন্ন জনসচেতনতামূলক প্রচারণায় এখন থেকে তাদেরই দেখা যাবে।

সম্প্রতি ‘ঋতু’র বিজ্ঞাপনের কাজ শেষ করেছেন। শিগগিরই বিজ্ঞাপনটি বিভিন্ন টেলিভিশনে দেখানো হবে। পাশাপাশি মাসিক বিষয়ে জনসচেতনতা বাড়াতে প্রিন্ট মিডিয়ার একটি বিজ্ঞাপনেও দেখা যাবে তাদের।

মাসিক বা ঋতুকালীন স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনার ব্যাপারে গণজাগরণ ও সচেতনতা তৈরিতে কাজ করছে ‘ঋতু’প্রকল্প। বাংলাদেশের কিশোরীদের প্রথম মাসিক হওয়ার গড় বয়স ১২ বছর ৮ মাস। তাই ১১ থেকে ১৩ বছর বয়সী স্কুল পড়ুয়া মেয়েদের নিয়ে কাজ করছে এই প্রকল্প।

এদেশে অনেক কিশোরীই প্রথম মাসিক হওয়ার আগে মাসিক সম্পর্কে প্রায় কিছুই জানে না। স্বাস্থ্যসম্মত মাসিক ব্যবস্থাপনা সম্পর্কে তাদের জানাশোনা আরও কম। ‘ঋতু’ প্রকল্প এমন ভাবে জনসচেতনতা তৈরি করতে চায়, যেন মাসিক সম্পর্কে ট্যাবু ধীরে ধীরে কমে আসে।

২০১৬ সাল থেকে বাংলাদেশে নেদারল্যান্ডস দুতাবাসের অর্থায়নে ‘ঋতু’ প্রকল্প মেয়েদের মাসিক স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা পরিস্থিতি উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। ‘ঋতু’ প্রকল্পে নেদারল্যান্ডস ভিত্তিক আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা সিমাভিলিড, রেড অরেঞ্জ মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশনস স্ট্র্যাটেজিক অ্যান্ড কমিউনিকেশন পার্টনার, নেদারল্যান্ডস ভিত্তিক গবেষণা সংস্থা টিএনও পার্টনার হিসেবে আছে।

এছাড়া মাঠ পর্যায়ে বাস্তবায়ন পার্টনার হিসেবে কাজ করছে ডিওআরপি এবং বিএনপিএস। এই প্রকল্পের আওতায় পূর্বধলা উপজেলার ৪০টি নিম্ন মাধ্যমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ১৯টিতে ঋতু প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়নের মাধ্যমে কয়েক মাস আগে থেকেই সেবা দেয়া হচ্ছে। কাজ শুরু হবে বাকিগুলো নেয়ও।


ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন :

টি মন্তব্য
মন্তব্যে প্রকাশিত যেকোন কথা মন্তব্যকারীর একান্তই নিজস্ব। DeshReport.com-এর সম্পাদকীয় অবস্থানের সঙ্গে এসব অভিমতের কোন মিল নেই। মন্তব্যকারীর বক্তব্যের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে কর্তৃপক্ষ আইনগত বা অন্য কোনো ধরনের কোনো দায় নিবে না

আরো সংবাদ...

মন্তব্য করুন